Social media suicide

শুভদীপ চৌধুরী, পুরুলিয়া: একদিকে উজ্বল ভবিষ্যৎ, অন্যদিকে সম্মানহানি । তাই আত্মহত্যারই পথ বেছে নিল পুরুলিয়া জেলার কাশীপুর ব্লকের তিলাহিড়ি গ্রামের বছর ১৭-র  রিহানা খাতুন । আত্মহত্যার আগে এক চিঠিতে তার মৃত্যুর জন্য তিন জনকে দায়ী করে রিহানা ।

জানা যায়, বুধবার রিহানার বাবা-মা ঘরে ছিলেন না কেউই, আর সেই সুযোগেই গলায় ওড়নার ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী হয় মেয়ে রিহানা । এর পর মা-বাবা খবর পেয়ে ঘরে ছুটে আসেন ও দেখতে পান মেয়ের ঝুলন্ত মৃতদেহ । এর পরেই কাশীপুর থানায় ওই চিঠির ভিত্তিতে দায়ের হয় অভিযোগ ।

পুলিশ সূত্রে খবর, আত্মহত্যা করার আগে এক চিঠিতে রিহানা লিখে যায়, তার সম্মান নিয়ে খেলা করা হয়েছে ও তার ওপর শারীরিক অত্যাচার করেছে বাপি মাহাতো, বাপি মাহাতোর বাবা গণেশচন্দ্র মাহাতো ও বেদনা মাহাতো । অভিযোগ পেয়ে বৃহস্পতিবার অভিযুক্ত বাপি মাহাতো ও গণেশচন্দ্র মাহাতোকে হেফাজতে নেয় কাশীপুর থানার পুলিশ । অন্যদিকে, বাপি মাহাতোর মা বেদনাদেবী পলাতক বলে জানা যায় ।

স্থানীয় সূত্রে খবর, রিহানার অশ্লীল কিছু ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছেড়ে দেওয়ার জন্য তার সম্মানহানি হওয়ায় লজ্জায় আত্মঘাতী হওয়ার পথ বেছে নেয় রিহানা । জানা যায়, রিহানা এ বছরই উচ্চমাধ্যমিক পাশ করে ভর্তি হতে চেয়েছিল কাশীপুর মাইকেল মধুসূদন কলেজে, কিন্তু ভাগ্য যে তার স্বপ্নগুলো এমনভাবে ভেঙে দেবে কে জানত!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here