ওয়েবডেস্ক: নদিয়ার কৃষ্ণগঞ্জের বিধায়ক সত্যজিৎ বিশ্বাস খুনে পুলিশ গ্রেফতার করল দুই অভিযুক্তকে। তাঁদের বিরুদ্ধে প্রথম থেকেই সন্দেহ ছিল বলে জানা গিয়েছে।

গত শনিবার ফুলবাড়িতে বিধায়কের খুন হওয়ার পর থেকেই তদন্তে নেমেছে পুলিশ। পাশাপাশি রয়েছে সিআইডি একটি দল। ওই দিন রাত থেকেই স্থানীয়দের কাছ থেকে তথ্য সংগ্রহ এবং নমুনা সংগ্রহের কাজ শুরু হয়ে যায়। রবিবার সকাল থেকেই আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় বেশ কয়েকজনকে। এর পরই খুনের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে দু-জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, বিধায়ক খুনে অভিযুক্ত যে দু-জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে তাঁরা হলেন সুজিত মণ্ডল এবং কার্তিক মণ্ডল। এ দিন সকাল থেকেই তাঁদের দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ। এর পরই তাঁদের গ্রেফতার করা হয়।

[ আরও পড়ুন: তৃণমূল বিধায়ককে গুলি করে পরিকল্পনামাফিক খুন, যাচ্ছে সিআইডি ]

সত্যজিৎ বিশ্বাসের খুনের ঘটনায় আরও এক জনের ভূমিকা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। স্থানীয় যুবক অভিজিৎ পুন্ডারির বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়েছেন নিহত বিধায়কের ভাই সুমিত বিশ্বাস৷ তিনি দাবি করেন, “অভিজিৎই দাদাকে খুন করেছে ৷ অভিজিৎ পুন্ডারি বিজেপি কর্মী ৷ খুনের পরই পালিয়ে যায় অভিজিৎ৷ লোকজন ধাওয়া করেও ধরতে পারেনি”৷

[ আরও পড়ুন: সরস্বতী পুজোর অনুষ্ঠানে কৃষ্ণগঞ্জের তৃণমূল বিধায়ককে গুলি করে খুন ]

তার পর থেকেই অভিজিৎ এলাকাছাড়া। পুলিশ অবশ্য় তাঁর মা-কে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। অন্য দিকে পুলিশ সূত্রে খবর, বিধায়ক খুনে বিজেপি নেতা মুকুল রায়-সহ চার জনের বিরুদ্ধে এফআরআই দায়ের হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here