জিডি বিড়লা স্কুলের ছাত্রী কৃত্তিকার মৃত্যুর কারণ উঠে এল ময়নাতদন্তের রিপোর্টে

0
G D Birla

ওয়েবডেস্ক: দক্ষিণ কলকাতার রানিকুঠির জি ডি বিড়লা স্কুলের কৃতী ছাত্রী কৃত্তিকার মৃত্যুর কারণ উঠে এল ময়নাতদন্তের প্রাথমিক রিপোর্টে। সেখান থেকেই জানা গিয়েছে, শ্বাসরোধ হয়েই মৃত্যু হয় তাঁর।

গত শুক্রবার স্কুলের শৌচালয় থেকে উদ্ধার হয় কৃত্তিকার রক্তাক্ত দেহ। তাঁর হাতের শিরা কাটা ছিল। পাশাপাশি মুখ ঢাকা ছিল প্লাস্টিকে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট বলছে, প্লাস্টিকে মুখ ঢাকা থাকার কারণেই শ্বাসরোধ হয়ে মৃত্যু হয়েছে তাঁর।

রিপোর্ট বলছে, আত্মহত্যাপ্রবণ ছিলেন কৃত্তিকা। স্কুল কর্তৃপক্ষ সূত্রে খবর, দশমশ্রেণিতে পড়তেন ওই ছাত্রী। ওই দিন দুপুর ১.৩৬টায় তিনি শৌচালয়ে যান। তার পরে বেশ কিছুক্ষণ কেটে যাওয়ার পর ফিরে না-আসায় ২.১০টা নাগাদ তাঁর খোঁজ করতে গিয়ে হদিশ মেলে রক্তাক্ত দেহের। তাঁর মুখে প্লাস্টিক জাতীয় কিছু গোঁজা ছিল বলে জানা গিয়েছে। যে কারণে রহস্য দানা বাঁধে।

তৎক্ষণাৎ, তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু কিছুক্ষণের মধ্যেই তাঁর মৃত্যু হয়। ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছান কলকাতা পুলিশের ডিসি এবং জয়েন্টি সিপি। আসেন ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরাও।

ঘটনাস্থল থেকে একটি তিন পাতার সুইসাইড নোট উদ্ধার হলেও সেটা তাঁর নিজের হাতে লেখা কি না, সে বিষয়টিও খতিয়ে দেখে পুলিশ। তবে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে আসার পর আত্মহত্যাকেই তাঁর মৃত্যুর কারণ হিসাবে দর্শানো হচ্ছে। প্রতিবেশীরাও জানিয়েছেন, বেশ কয়েক দিন ধরেই তাঁর মধ্যে হতাশার ছাপ স্পষ্ট হচ্ছিল। দিন সাতেক আগেও তিনি আত্মহত্যার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন বলে জানা গিয়েছে।

যদিও কৃত্তিকার মুখে শক্ত করে বাঁধা প্লাস্টিক নিয়ে রহস্য রয়েই যাচ্ছে বলে ধারণা করছে ওয়াকিবহাল মহল!

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন