কলকাতা: স্নাতকোত্তর করা একটি ছেলে খাবার পৌঁছে দিতে আসছে কলেজপড়ুয়া একটি ছেলের কাছে। কলেজপড়ুয়া সেই ছেলেটির এই সংক্রান্ত একটি ফেসবুক পোস্টকে ঘিরে চূড়ান্ত চাঞ্চল্য ছড়াল।

দেশের বর্তমান কর্মসংস্থানের করুণ অবস্থা প্রকট হচ্ছে বারবার। কিছু দিন আগেই তামিলনাড়ুতে সাফাইকর্মী পদের জন্য ইঞ্জিনিয়ার, এমবিএ পাশ করা ছেলেমেয়েদের আবেদন করা ঘিরে হইচই পড়েছিল দেশ জুড়ে। যোগ্য কাজের অভাবের সেই চিত্র সম্প্রতি ফের সামনে এল ভাইরাল হওয়া একটি ফেসবুক পোস্টকে ঘিরে।

কলকাতার কলেজ ছাত্র শৌভিক দত্ত একটি নামকরা ফুড ডেলিভারি সংস্থার মাধ্যমে খাবার অর্ডার দিয়েছিলেন। অর্ডার ডেলিভারি পাওয়ার সময় তিনি জানতে পারলেন তাঁকে যে ছেলেটি খাবার পৌঁছে দিতে আসবে সে কমার্সে স্নাতকোত্তর।

আরও পড়ুন মাইনাস ১৭ ডিগ্রি উপেক্ষা করে প্রশাসনের বিরুদ্ধে সারা রাত বিক্ষোভ জনতার!

তিনি নিজে স্নাতক স্তরে পড়ছেন, অথচ তাঁকে যিনি খাবার পৌঁছে দেবেন তিনি স্নাতকোত্তর, এটা যেন কিছুতেই মেনে নিতে পারছিলেন না শৌভিক।

এর পরেই সমস্ত ব্যাপারটি ফেবসুকে লিখে, কর্মসংস্থানের সমস্যার সুরাহার ডাক দেন তিনি।

ফেসবুকের ওই পোস্টে শৌভিক লিখেছেন, “এই প্রথম বার জোম্যাটো থেকে খাবার অর্ডার দিয়ে খুব অনুতপ্ত লাগছে।”

কমার্সে স্নাতকোত্তর মিরাজ শৌভিকের হাতে খাবার পৌঁছে দিয়ে বলেছিল, “স্যার, একটু রেটিংটা দিয়ে দেবেন।” মিরাজের মুখে এই কথা শোনার পর তাঁর ভীষণ অস্বস্তিতে পড়েছিলেন বলেও জানিয়েছেন শৌভিক।

এর পরেই শৌভিকের প্রশ্ন, “একজন স্নাতকোত্তর ছেলে যদি কলেজপড়ুয়া ছাত্রের কাছে খাবার পৌঁছে দিয়ে যায়, তখন সেই ছাত্রের কাছে কী বার্তা যায়?”

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here