potato

কলকাতা: সামনে জামাইষষ্ঠী। পরম্পরা মেনে প্রতিবারের মতো এ বারও যে বাঙালির এই পার্বণকে সামনে রেখে ফলমূল-সবজির দাম বাড়বে, তা প্রায় নিশ্চিত। তবে দৈনন্দিন ব্যবহৃত পণ্যের মধ্যে সব থেকে ভাবাচ্ছে আলুর আকাশছোঁয়া দাম। গৃহস্থের পকেটে টান পড়ছে গত বারের ঠিক এই সময়ের থেকে দ্বিগুণ দরে আলু কিনতে। স্বাভাবিক ভাবে আগামী ১৯ জুন জামাইষষ্ঠীকে উপলক্ষ করে আলুর দরে লাগাম পরাতে চাইছে রাজ্য সরকার।

শুধু কি জামাইষষ্ঠী? আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে আলুর দাম বাড়ার বহুবিধ কারণ রয়েছে। একে তো পঞ্চায়েত নির্বাচনকে সামনে রেখে আলুর দামে বাড়তি সুযোগ করে দেওয়ার ঘটনা রয়েইছে। ভোট শেষের পর হিমঘরগুলি থেকে পুরোমাত্রায় আলু বেরোনো শুরু হবে। এক দিকে কর্মীরা যেমন কাজে ফিরছেন, তেমনই অন্য দিকে হিমঘরের বাইরে মজুত আলুর ভাণ্ডার শেষ। একই ভাবে হিমঘর থেকে আলু বেরোতে শুরু হলেই ভিন রাজ্যে অধিক মুনাফার উদ্দেশে তা পাড়ি দেবে।

আরও পড়ুন: ভোটের পর আরও বাড়তে পারে আলুর দাম, কত?

বর্তমানে চন্দ্রমুখী ও জ্যোতি আলু বিকোচ্ছে ১৮-২০ টাকা কেজি প্রতি দরে। এই দাম যাতে ঊর্ধ্বমুখী না হয় সে কারণেই আগামী ২৮ মে আলু ব্যবসায়ী ও হিমঘর মালিকদের সঙ্গে বিশেষ বৈঠকে বসছেন কৃষি বিপণনমন্ত্রী তপন দাশগুপ্ত। ওই বৈঠকে আলুর দাম নিয়ন্ত্রণে বিস্তারিত আলোচনা হবে বলেই সূত্রের খবর।

এ ছাড়া বিশেষ নজরদারি বাড়ানোর পরিকল্পনাও চলছে। এ মাসের শুরুতেই আলুর দাম ১০-১২ টাকা থেকে এক লপ্তে ১৮-২০ টাকায় গিয়ে ঠেকতে কৃষি দফতরের কর্তারা টাস্ক ফোর্সের নজরদারির কথা জানিয়েছিলেন। এ বার সেই পরিকল্পনায় আরও জোর দেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here