potatoes in west bengal

ওয়েবডেস্ক: সপ্তাহ দুয়েক আগেও জ্যোতি ও চন্দ্রমুখী আলুর দাম ছিল ১৪ টাকা ও ১৬ টাকা। এখন বাজারময় চষে ফেললেও ১৮ টাকা এবং ২০ টাকার নীচে তা অমিল। তবে এখানেই শেষ নয়, এ মাসের শেষের দিক থেকেই আলুর দাম আরও কিছুটা বাড়বে বলে মনে করছেন ব্যবসায়ীরা।

ভোট ঘোষণার কয়েক দিন আগেও মাঠ থেকে সরাসরি বাজারজাত আলুর দাম ছিল ৮ টাকা থেকে ১০ টাকা। পঞ্চায়েত ভোটের কথা মাথায় রেখে কৃষকের হাতে বাড়তি মূল্য তুলে দেওয়ার হিসাবে সেই দাম বেড়ে হয়েছিল ১২ টাকা এবং ১৪ টাকা। কিন্তু ক’দিনের মধ্যেই সেই আলু পৌঁছে গিয়েছে ৬ টাকার বেশি দামে।

হিমঘরের মালিকদের বক্তব্য, এ বছর আলু মজুত করা হয়েছে কেজি প্রতি ১০ টাকা এবং ১১ টাকা দরে। ফলে সেই আলুর পাইকারি দাম দাঁড়াবে ১৫-১৬ টাকা। বাজারে আসার পর পরিবহণ খরচ এবং আলু ব্যবসায়ীদের লাভের অঙ্ক জুড়ে গেলে তার দাম কত হত পারে?

আরও পড়ুন: আচমকা আলুর দাম বাড়ার নেপথ্যে রয়েছে অন্য কোনো রাজনীতি?

আলু ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, ওই আলুর দাম হয়তো পৌঁছে যেতে পারে ২০-২২ টাকায়। পঞ্চায়েত ভোট মিটলেই হিমঘরের কর্মীরা পুরোদমে কাজে যোগ দেবেন। তখন হয়তো ভিন রাজ্যে আলু রফতানির বহরও অনেকটা বেড়ে যাবে। ফলে সব মিলিয়ে আলুর দাম যে মহার্ঘ্য হতে চলেছে, তা প্রায় নিশ্চিত। সে ক্ষেত্রে অবশ্য রাজ্যের টাস্ক ফোর্সের বিশেষ কিছু করণীয় থাকবে না বলেই অনুমান করা হচ্ছে।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন