Prisoner

ওয়েবডেস্ক: মেদিনীপুর সংশোধনাগারের এক বন্দি নিজের যৌনাঙ্গ কেটে আত্মহত্যার চেষ্টা করলেন। গত বুধবার রাতের এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে প্রশাসনিক মহলে। এক জন বন্দি কী ভাবে ধারালো বস্তু দিয়ে নিজের যৌনাঙ্গ কেটে আত্মহত্যার চেষ্টা করলেন, তা নিয়েই উঠছে প্রশ্ন।

মেদিনীপুর সংশোধনাগার কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, বন্দির নাম মুকুন্দ দোলুই। তাঁর বাড়ি চন্দ্রকোনায়। তিনি বধূ নির্যাতন ও খুনের মামলায় অভিযুক্ত। বুধবার মাঝরাতের ওই ঘটনার পর মুকুন্দকে ভর্তি করা হয় মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। সেখানে প্রায় ঘণ্টাখানেক ধরে তাঁর অস্ত্রোপচার চলে। কিন্তু শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ার দরুন তাঁকে কলকাতায় নিয়ে আসা হয়।  চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তাঁর শারীরিক অবস্থা এখনও আশঙ্কাজনক।

সংশোধনাগারের এমন ঘটনায় কারাবন্দিদের নিরাপত্তা নিয়ে তুলছে বিভিন্ন মহল। তবে প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে, মুকুন্দ মানসিক অবস্থার জেরেই এমন কাণ্ড ঘটিয়েছেন। তিনি মানসিক অবসাদের শিকার হয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছিলেন।

রাজ্যে কেমন থাকবে কালীপুজোর আবহাওয়া?

এ ব্যাপারে যাবতীয় তদন্তের জন্য সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখার দাবি উঠেছে। পাশাপাশি, সংশোধনাগারে বন্দির হাতে কী ভাবে ধারাল বস্তু এল, সে বিষয়েও প্রশ্ন উঠেছে। যদিও পুলিশ একটি সূত্র দাবি করেছে, কাঁটা চামচ ব্যবহার করে এমন কাণ্ড ঘটাতে পারেন মুকুন্দ।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here