কলকাতা: ক্রমশ ঊর্ধ্বমুখী ডিজেলের দাম। মূলত ভারী যানবাহনের জ্বালানি হিসাবে ব্যবহৃত এই তেলের দামবৃদ্ধির প্রতিবাদে প্রতীকী বয়কটে (boycott) নামছে রাজ্যের জয়েন্ট কাউন্সিল অব বাস সিন্ডিকেট।

গত সপ্তাহ তিনেক সময় ধরে পেট্রোলের দাম ঠাঁয় দাড়িয়ে থাকলেও ধীরে ধীরে বাড়ছে ডিজেলের দাম (Diesel price)। যে কারণে সমস্যায় পড়ছেন বাসের মতো বাণিজ্যিক গাড়ির মালিকরা। তারই প্রতিবাদে আগামী ২৭ জুলাই প্রতীকী বয়কটে যাচ্ছে বেসরকারি বাস সংগঠন। এর আগেও একাধিকবার কেন্দ্রের কাছে লিখিত আবেদন জানিয়ে কোনো সুরাহা না মেলায় বয়কটের পথ ধরছে তারা। তবে অবিলম্বে কোনো কার্যকরী ব্যবস্থা নেওয়া না হলে বৃহত্তর আন্দোলনে যাওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন সংগঠন নেতৃত্ব।

জয়েন্ট কাউন্সিল অব বাস সিন্ডিকেটের সম্পাদক তপন বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, “রাজ্যের সমস্ত পেট্রোল পাম্প (Petrol pump) থেকে কোনো বাসমালিক ডিজেল কিনবেন না। আগামী সোমবার (২৭ জুলাই) একই ধরনের পদক্ষেপ নেওয়া হবে। তার পরেও সমস্যার সমাধান না হলে আমরা বড়োসড়ো আন্দোলনে নামব”।

তপনবাবু বলেন, “স্বাধীনতার পর থেকে কলকাতায় কখনও ডিজেলের দাম ৭৭ টাকায় পৌঁছোয়নি। একদিকে লকডাউন। অন্য দিকে ডিজেলের দামে ঐতিহাসিক বৃদ্ধি, দুইয়ের চাপে পড়ে বাস চালানো মুশকিল হয়ে পড়ছে”।

এখন পেট্রোল এবং ডিজেলের দাম

প্রসঙ্গত, বুধবার কলকাতায় লিটার প্রতি পেট্রোল এবং ডিজেলের দাম যথাক্রমে ৮২.১০ টাকা এবং ৭৬.৭৭ টাকা।

২২ দিন আগেও কলকাতায় লিটার পিছু পেট্রোলের দাম ছিল ৮২.১০ টাকা। করোনাভাইরাস লকডাউনে (Coronavirus lockdown) টানা ৮২ দিন এক জায়গায় আটকে থাকার পর এটাই দীর্ঘকালীন স্থিতাবস্থা। কিন্তু উল্টো দিকে ডিজেলের দাম কিন্তু বেড়েছে অনেকটাই।

গত ২২ দিনে যখন পেট্রোলের দাম এক জায়গায় দাঁড়িয়ে, তখন ডিজেলের দাম (Diesel price) বেড়েছে সব মিলিয়ে সাতদিন। গত সোমবারে বেড়েছে ১০ পয়সা।

অন্য দিকে লকডাউনে স্থির থাকার পর পেট্রোল-ডিজেলের দাম ফের বাড়তে শুরু করার পর এই দুই জ্বালানির দাম বেড়েছে যথাক্রমে ৮.৮০ টাকা এবং ১১.১৫ টাকা।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন