বেতন বাকি থাকলেও বেসরকারি স্কুল বিতাড়িত করতে পারবে না পড়ুয়াকে, নির্দেশ হাইকোর্টের

0
kolkata High Court
কলকাতা হাইকোর্ট। সংগৃহীত ছবি

কলকাতা: বেসরকারি স্কুলের বেতন বিতর্কে এ বার স্পষ্ট নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট। শুক্রবার আদালত জানিয়ে দিল, বেতন বাকি থাকলেও পড়ুয়াকে বিতাড়িত করতে পারবে না বেসরকারি স্কুল।

বিচারপতি ইন্দ্রপ্রসন্ন মুখোপাধ্যায় ও বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্যের ডিভিশন বেঞ্চ এ দিন জানায়, “বেতন নিয়ে বিতর্ক থাকলেও বেসরকারি স্কুল থেকে বিতাড়িত করা যাবে না পড়ুয়াকে। প্রতিটি ছাত্র-ছাত্রীকে পরীক্ষায় বসার সুযোগ দিতে হবে। ছাত্র-ছাত্রীদের পড়াশোনায় যেন ক্ষতি না হয়”।

এর আগেই বেসরকারি স্কুলের বেতন কমিয়ে দিয়েছিল হাইকোর্ট। দু’ভাগে মিটিয়ে দেওয়া নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল অভিভাবকদের। এ দিন নতুন নির্দেশে হাইকোর্ট জানায়, যে বেতন নিয়ে বিতর্ক রয়েছে, তা আগামী ২৫ অক্টোবরের মধ্যে স্কুলকে মিটিয়ে দিতে হবে। মামলার নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত স্কুল ওই সংগৃহীত টাকা পৃথক ভাবে জমা রাখবে।

আগামী ৩ ডিসেম্বর হবে মামলার পরবর্তী শুনানি। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কোন পড়ুয়ার কাছ থেকে কত টাকা পাওয়া গেল, তার তালিকা জমা করবে স্কুলগুলো।

Shyamsundar

প্রসঙ্গত, করোনাভাইরাস মহামারি এবং লকডাউনের কারণে একাংশের পড়ুয়ার বেতন বাকি পড়েছে বেসরকারি স্কুলে। বিশেষ করে অনলাইনে ক্লাস হলেও আগের মতোই টিউশন ফি এবং স্কুল বাস ভাড়া নিয়ে প্রশ্ন তুলে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছে অভিভাবকদের একাংশ।

সেই মামলার শুনানিতেই এ দিন হাইকোর্ট জানায়, কোনো অভিভাবক যদি বেতন দিতে না পারেন, তা হলে পড়ুয়ার পড়াশোনায় যাতে কোনো ক্ষতি না হয়, সে বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে স্কুল কর্তৃপক্ষকে। যদি কোনো স্কুলের বিরুদ্ধে এ বিষয়ে অভিযোগ ওঠে, যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও জানিয়েছে উচ্চ আদালত।

আজকের আরও কিছু উল্লেখযোগ্য খবর পড়ুন এখানে:

ভুল খবর! এয়ার ইন্ডিয়ার নিয়ন্ত্রণ টাটার হাতে যাওয়া নিয়ে চাঞ্চল্যকর দাবি কেন্দ্রের

বিজেপির সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করলেন রায়গঞ্জের বিধায়ক কৃষ্ণ কল্যাণী

রাজ্যকে না জানিয়ে জল ছেড়েছে ডিভিসি, ‘ম্যানমেড’ বন্যা বললেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

১৪ বছরে সর্বাধিক বৃষ্টি দিয়ে দক্ষিণবঙ্গে শেষ হল বর্ষার মরশুম, আগামী দিনে দুর্যোগের আশংকা কম

পাহাড় বাঁচাতে অযোধ্যা পাহাড়ে ‘প্রকৃতি বাঁচাও ও আদিবাসী বাঁচাও’ মঞ্চের উদ্যোগে জনচেতনা র‍্যালি

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন