কলকাতা: ববিতা সরকারের পর এ বার প্রিয়ঙ্কা সাউ। এসএসসি-তে বঞ্চনা দূর করে আরও এক যোগ্য প্রার্থীকে নিয়োগের নির্দেশ হাইকোর্টের। প্রিয়ঙ্কাকে পুজোর পরেই চাকরির সুপারিশপত্র দেওয়ার নির্দেশ দিলেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়।

নিয়োগের সময় বেঁধে দিল হাইকোর্ট

একাদশ-দ্বাদশের নিয়োগ মামলায় প্রিয়ঙ্কাকে চাকরি দেওয়ার নির্দেশ দিলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার এসএসসি-কে তাঁর নির্দেশ, আগামী ১১ থেকে ২১ অক্টোবরের মধ্যে কাউন্সেলিং করে চাকরির সুপারিশপত্র দিতে হবে প্রিয়ঙ্কাকে। ২৮ অক্টোবরের মধ্যে দিতে হবে নিয়োগপত্র।

উচ্চ আদালতের নির্দেশের ফলে প্রিয়ঙ্কা নিজের বাড়ির কাছের যে কোনো একটি স্কুলে একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষিকা হিসেবে যোগ দিতে পারবেন পুজোর পরই। বিচারপতি জানিয়েছেন, বাড়ির কাছাকাছি তিনটি স্কুলের বিকল্প থেকে তাঁকে পছন্দমতো কোনো একটি বেছে নেওয়ার সুযোগ দিতে হবে।

কেন আদালতে গিয়েছিলেন প্রিয়ঙ্কা

একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণিতে ইংরেজির শিক্ষিকাপদের জন্য ২০১৬ সালের ডিসেম্বরে তিনি এসএসসি-র পরীক্ষায় বসেন প্রিয়ঙ্কা। ফল বেরোয় ২০১৭ সালের নভেম্বরে। তার পরে তিনি জানতে পারেন, তাঁর থেকে কম নম্বর পাওয়া প্রার্থীরা পরের পর কাউন্সেলিংয়ে ডাক এবং চাকরিও পেয়েছেন। প্রিয়াঙ্কা জানান, তিনি পেয়েছিলেন ৬৮.৫০ নম্বর। কিন্তু তিনি কাউন্সেলিংয়ে ডাক পাননি, চাকরিও পাননি। অথচ ৬৮.৩৩ পাওয়া প্রার্থী কাউন্সেলিংয়ে ডাক পেয়েছেন, এবং পেয়ে গিয়েছেন নিয়োগপত্রও। এমন অবিচার দেখেই আদালতের দ্বারস্থ হন তিনি।

হাইকোর্টের নির্দেশে প্রিয়ঙ্কার প্রতিক্রিয়া

অভিযোগ, যোগ্যতা ও নম্বর বেশি থাকা সত্ত্বেও এত দিন প্রিয়ঙ্কা চাকরি পাননি। সুখবর পেয়ে খুশি হলেও আবেগে ভেসে যাননি তিনি। বরং দুর্নীতির বিরুদ্ধে এত দিনের আন্দোলন সফল হওয়ার কৃতিত্ব তিনি দিচ্ছেন আদালতকেই।

তাঁর কথায়, আন্দোলনের মাধ্যমেই তাঁদের দাবি মেনে নেওয়া হবে, এমনটাই আশা করেছিলেন তিনি। কিন্তু পরে বুঝতে পারেন আদালতে যাওয়া ছাড়া আর কোনো গতি নেই। কিন্তু ব্যয় ও সময় সাপেক্ষ বলে প্রথমে আদালতে যেতে দ্বিধাবোধ করেছিলেন। এখন পরিস্থিতি এমনই যে, আদালতে না গেলে যে চাকরি পাওয়া যাবে না, এটা পরিষ্কার।

হাইকোর্টের নির্দেশে চাকরি পেয়েছেন ববিতা

এর আগে রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পরেশ অধিকারীর কন্যা অঙ্কিতা অধিকারীর চাকরি খারিজের নির্দেশ দিয়েছিলেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়। তাঁর নির্দেশেই যোগ্যতার ভিত্তিতে সেই চাকরি পেয়েছেন শিলিগুড়ির ববিতা সরকার। যোগ্যতা ও বেশি নম্বর পাওয়া সত্ত্বেও কেন চাকরি হয়নি, এই অভিযোগ জানিয়ে সরব হয়েছেন একাধিক চাকরিপ্রার্থী। তাঁদের অভিযোগও শোনা হবে বলে আশ্বাস দিয়েছে আদালত।

খবর অনলাইন-এ আরও পড়ুন:

বিবাহিত, অবিবাহিত সব মহিলাই নিরাপদে গর্ভপাত করাতে পারবেন, রায় সুপ্রিম কোর্টের

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন