সে দিন বিজেপিতে নাম লেখালেন তৃণমূলের বহিষ্কৃত সাংসদ অনুপম হাজরা, উত্তর ২৪ পরগনার বাগদার বিধায়ক দুলাল বর এবং মালদহের হবিবপুরের বিধায়ক খগেন মুর্মু

ওয়েবডেস্ক: উত্তর ২৪ পরগনার ঠাকুরনগরে রবিবার বিক্ষোভের মুখে পড়তে হল সদ্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া বাগদার বিধায়ক দুলাল বরকে। একই দিনে মালদহের হবিবপুরের দলত্যাগী বিধায়ক খগেন মুর্মুর বিরুদ্ধে পড়ল ফ্লেক্স-পোস্টার।

এ দিন মতুয়া সঙ্ঘের সদ্য প্রয়াত বড়ো মা বীণাপাণিদেবীর শ্রাদ্ধানুষ্ঠানে যোগ দিতে সেখানে যান দুলাল। সেখানে ঢোকার মুখেই বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে একাংশ। তাদের দাবি, রাজনীতি করতে ঠাকুরবাড়িতে গিয়েছেন দুলাল। বিক্ষোভের জেরে তৎক্ষণাৎ ঠাকুরবাড়ি ছাড়েন তিনি।

যদিও দুলাল সাংবাদ মাধ্যমের কাছে বলেন, তিনি একজন মতুয়া ভক্ত। ফলে অনুষ্ঠানে যোগ দিতেই তিনি ঠাকুরনগরে গিয়েছিলেন। এর সঙ্গে রাজনীতির কোনো যোগ নেই।

কিন্তু তিনি বললে আর শুনছে কে? গত ১২ মার্চ তিনি দিল্লিতে গিয়ে যোগ দিয়েছেন বিজেপিতে। কংগ্রেসের প্রতীকে জেতা দুলাল সম্প্রতি তৃণমূলে যোগ দিয়েছিলেন বলেও শোনা যায়।

[ আরও পড়ুন: সদ্য দলবদল করা বিধায়ককে প্রার্থী না-করার দাবিতে বিজেপির পোস্টার! ]

অন্য দিকে সদ্য দলবদল করা আরও এক বিধায়ক খগেন মুর্মুর বিরুদ্ধে পোস্টার পড়ল উত্তর মালদহে। সিপিএম ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পরই চাউর হয়ে গিয়েছে, এ বারের লোকসভা ভোটে সম্ভবত পদ্ম-প্রতীকে প্রাথী হচ্ছেন খগেন। রবিবার সকালে গাজোলে খগেন মুর্মুর ছবি-সহ এ ধরনের পোস্টার দেখা যায়। ওই পোস্টারে লেখা, “সিপিআইএম ত্যাগ করা খগেন মুর্মুকে বিজেপি প্রার্থী হিসেবে মানছি না, মানব না”।

পোস্টারের ব্যাপারে বিজেপি নেতৃত্ব সিপিএম এবং তৃণমূলের ঘাড়ে দোষ চাপালেও, নীচে লেখা-‘উত্তর মালদহ লোকসভা বিজেপি কর্মী’।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here