চিরঞ্জীব পাল, নন্দীগ্রাম: ১ এপ্রিল ভোটগ্রহণ নন্দীগ্রামে (Nandigram)। রাজ্যের নজর এখন এই কেন্দ্রেই। এই কেন্দ্রের প্রাক্তন বিধায়ক এবং এ বার বিজেপি প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারীর (Suvendu Adhikari) প্রতিদ্বন্দ্বী খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। হাতে আর কয়েক সপ্তাহ সময় থাকতেই বুথে বুথে জনসংযোগে বেরিয়েছেন শুভেন্দু। বিজেপি-বিরোধীদের মূর্খের সঙ্গে তুলনা করে রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী বললেন, “শেষ কথা মানুষই বলবে”।

নিজের নির্বাচনী এলাকায় গিয়ে বাধার মুখে পড়তে হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন শুভেন্দু। বুধবারও তাঁর কনভয়ের সামনে বিক্ষোভ দেখান এক দল মহিলা। বৃহস্পতিবার নন্দীগ্রাম-১ ব্লকের জলপাইয়ে প্রচারে বেরিয়ে শুভেন্দু বলেন, “এখানকার ভোটারদের উপর আমার সম্পূর্ণ আস্থা রয়েছে”।

Loading videos...

‘হাজার জনই আমার সঙ্গে’

এ বারের হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে নিজের জয়ের ব্যাপারে কতটা আশাবাদী, এমন প্রশ্নের উত্তরে শুভেন্দু বলেন, “মানুষ বলবে। একটা বুথে এসেছি। হাজার ভোটার, হাজার জনই আমার সঙ্গে। তাঁদের সঙ্গেই কথা বলে দেখুন না”।

জায়গায় জায়গায় দু-তিন জন করে লোক দাঁড় করিয়ে অসুবিধা তৈরি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন প্রাক্তন তৃণমূল নেতা। তবে এই এলাকা তাঁর হাতের তালুর মতোই চেনা।

জয়ের মার্জিন কেমন হবে?

গত ২০১৬ সালের বিধানসভা ভোটে ৬৭.২০ শতাংশ ভোট পেয়ে সিপিআই প্রার্থীকে ৮০ হাজারেরও বেশি ভোটে হারিয়েছিলেন। এ বারে তাঁর প্রতিপক্ষ মমতা। জয়ের মার্জিন কেমন হবে?

শুভেন্দু বলেন, “ভোটারদের উপর আমার সম্পূর্ণ আস্থা রয়েছে। তাঁরাই বলবেন”।

হলদিয়া এবং নন্দীগ্রাম- দু’টো বিধানসভা এলাকার ভোটার তালিকায় তাঁর নাম রয়েছে অভিযোগে নির্বাচন কমিশনে শুভেন্দুর মনোনয়ন বাতিলের আবেদন জানিয়েছে তৃণমূল। এ প্রসঙ্গে শুভেন্দুর জবাব- “ওরা মূর্খ, কিছুই জানে না”।

আরও পড়তে পারেন: আগামী সপ্তাহে দলের দীর্ঘ দিনের অভিজ্ঞ আরও এক নেতাকে হারাতে পারেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.