খবরঅনলাইন ডেস্ক: ‘অনেকে ভেবেছিল ভাঙা পা নিয়ে বেরোতেই পারব না।’ পুরুলিয়ার সভামঞ্চ থেকে এই কথাই বললেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার হুইলচেয়ারে বসেই প্রচারাভিযান শুরু করলেন মুখ্যমন্ত্রী।

ঝালদার নির্বাচনী সভামঞ্চ থেকে বক্তৃতা রাখতে উঠে এ দিন শুরুতেই নন্দীগ্রামের ঘটনার কথা বলেন মমতা। তিনি বলেন, “গত ১০ তারিখ আমি দুর্ঘটনার কবলে পড়েছিলাম। আমার সারা শরীরে আঘাত লাগে। পায়ে গুরুতর চোট পাই। সৌভাগ্যবশত বেঁচে গিয়েছি।”

বিরোধীদের কটাক্ষ করে মমতা বলেন, “অনেকে ভেবেছিলেন আমি আর বেরতেই পারব না। কিন্তু, ভাঙা পা নিয়েই আমি নির্বাচনের প্রচার করব।” নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি হিসেবে মমতা এ দিন বলেন, “আগামীদিনে বিনামূল্যে বাড়ি বাড়ি রেশন পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা হবে।”

এদিনের নির্বাচনী সভা ছিল একেবারেই অন্যরকম। মঞ্চে হাঁটতে থাকা কিংবা তর্জনী উঁচিয়ে বিরোধীদের তীব্র আক্রমণ করাই মমতার বৈশিষ্ট। তবে এ দিন তিনি ওই সবের ধার ধারেননি। বরং পুরুলিয়া এ দিন দেখল অন্যরকম মমতাকে।

তবে গলার ঝাঁঝ ছিল তাঁর আগের মতোই। তিনি বলেন, “আমার পা তো ঠিক হয়ে যাবে। কিন্তু, বিজেপির পা আর বাংলায় পড়বে না।” একই সঙ্গে তাঁর সাবধানবাণী, ‘বিজেপির পাতা ফাঁদে কেউ পা দেবেন না। ওরা ফাইভ স্টার হোটেল থেকে খাবার আনে, আর দু’ঘণ্টার জন্য ঘর ভাড়া নেয়। আর দেখায় গরীবদের ঘরে খাচ্ছে। টাকা নিয়ে নিচের চরিত্র বিক্রি করবেন না।”

ঝালদার সভা থেকেই বাংলার উন্নয়নকে হাতিয়ার করেন তৃণমূল সুপ্রিমো। তিনি বলেন, “তৃণমূল বাংলায় যা কাজ করেছে তা বিশ্বের আর কোনো দল পারবে না।’ বিজেপির পাশাপাশি এ দিন কংগ্রেসকেও আক্রমণ করেন মমতা। তিনি বলেন, “কংগ্রেসকে ধাক্কা মেরে সরিয়ে দিন। ২০ বছর ধরে বাংলার অথর্ব পাথর কংগ্রেস।”

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

Bengal Polls 2021: ঝাড়গ্রামের সভায় গেলেন না অমিত শাহ, সভাস্থল না ভরাই কী কারণ?

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন