local train

কলকাতা: আগামী বুধবার থেকে রাজ্যে চলবে লোকাল ট্রেন। সকাল-সন্ধ্যার ব্যস্ত সময়ে ১৮১ জোড়া অর্থাৎ ৩৬২টি করে লোকাল ট্রেন চালানো হবে স্থির হয়েছে। তবে ভিড় নিয়ন্ত্রণে আরও বেশি সংখ্যক ট্রেন চালানোর প্রস্তুতি নিয়ে রাখছে রেল।

রেল সূত্রে খবর, শিয়ালদহ, হাওড়া এবং খড়গপুর ডিভিশন মিলিয়ে প্রায় ৬০০টি অথবা স্বাভাবিকের তুলনায় ৪৫-৫০ শতাংশ লোকাল ট্রেন চালানোর প্রস্তুতি সেরে রাখা হচ্ছে। এর অন্যতম কারণ অবশ্যই কোভিডবিধি বজায় রাখার পাশাপাশি ভিড় নিয়ন্ত্রণ।

Loading videos...

পূর্বরেল এবং দক্ষিণপূর্ব রেল আগের গত সোমবারের বৈঠকেই জানিয়েছিল, তারা প্রাথমিক ভাবে ৫০ শতাংশ যাত্রী নিয়ে স্বাভাবিকের তুলনায় ১০-১৫ শতাংশ লোকাল ট্রেন চালাতে প্রস্তুত। কিন্তু এ ভাবে লোকাল ট্রেন পরিষেবা চালু হলে ভিড় নিয়ন্ত্রণ কী ভাবে সম্ভব,তা নিয়েও প্রশ্নচিহ্ন পড়ো হয়।

পরিসংখ্যান অনুযায়ী, পূর্বরেল এবং দক্ষিণপূর্ব রেল স্বাভাবিক সময়ে প্রতিদিন হাজার দেড়েক লোকাল ট্রেন চালায়। পরিষেবা পান প্রায় ৩০ লক্ষ যাত্রী। সেই জায়গায় যদি দিনে ১৫০-২২৫টি ট্রেনে মাত্র ছ’শো করে যাত্রীকে সফরের অনুমতি দেওয়া হয়, সে ক্ষেত্রে দৈনিক ৯০ হাজার থেকে ১.৪ লক্ষ যাত্রীকে পরিষেবা দেওয়া সম্ভব।

গত বৃহস্পতিবারের বৈঠকের পর অবশ্য জানানো হয়, পূর্বরেল এবং দক্ষিণপূর্ব রেলের তরফে ১৮১ জোড়া বা ৩৬২টি ট্রেন চলবে প্রতিদিন। পূর্বরেলের শিয়ালদহ ডিভিশনে চলবে ১১৪ জোড়া ট্রেন। হাওড়া ডিভিশনে চলবে ৫০ জোড়া এবং বাকি লোকাল ট্রেনগুলি চলবে দক্ষিণপূর্ব রেলের খড়গপুর ডিভিশনে।

কিন্তু এই সীমিত সংখ্যক ট্রেন চালানো হলে ভিড় নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে কি না, সেটাও নিয়েও সংশয় রয়েছে। যে কারণে আরও বেশি সংখ্যক ট্রেন চালানোর প্রস্তুতি নিয়ে রাখছে রেল। সে ক্ষেত্রে রাজ্য সরকারের সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে হাওড়া ও শিয়ালদহ স্টেশন মিলিয়ে মোট ৬০০টি ট্রেন চালানো হতে পারে।

কোভিডবিধি অনুযায়ী লোকাল ট্রেনে সফর করতে যাত্রীদের কী কী নিয়ম মানতে হবে, যাত্রীদের থার্মাল স্ক্রিনিং-সহ বিভিন্ন বিষয়গুলি নিয়ে নির্দেশিকা চূড়ান্ত করতে আগামী সোমবার ফের একবার রেল এবং রাজ্য প্রশাসনের কর্তারা ফের এক বার বৈঠকে বসবেন। রেল পুলিশের সঙ্গে কী ভাবে রাজ্য পুলিশ সমন্বয় করবে, কী ভাবেই বা চলবে সামগ্রিক নজরদারি, এই বিষয়গুলিও ওই বৈঠকে চূড়ান্ত হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.