অক্ষরেখার জন্য আজ বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি দক্ষিণবঙ্গে, শুক্রবার থেকে দাপট বাড়বে উত্তুরে হাওয়ার

0

কলকাতা: ঘূর্ণিঝড় জওয়াদ দুর্বল হয়ে গভীর নিম্নচাপ হিসেবে হানা দিয়েছিল পশ্চিমবঙ্গে। তার পর সে ক্রমে দুর্বল হয়ে বাংলাদেশে চলে যায়। তবে তার প্রভাবে এখনও একটি অক্ষরেখা ভারতের পূর্ব উপকূল বরাবর রয়ে গিয়েছে। তার প্রভাবেই বৃহস্পতিবার কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের বেশ কিছু জায়গায় বিশেষত উপকূলবর্তী অঞ্চলে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে কুয়াশার দাপট ছিল কলকাতায়। সেই কুয়াশার আস্তরণ সরলেও সূর্যের মুখ দেখা যায়নি সেভাবে। কারণ আকাশে মেঘের আনাগোনা বেড়ে গিয়েছে। সকাল থেকে হালকা বৃষ্টি হচ্ছে দক্ষিণ ২৪ পরগণা এবং পূর্ব মেদিনীপুরের উপকূলবর্তী অঞ্চলে।

এই মুহূর্তে ভারতের পূর্ব উপকূল জুড়ে একটা অক্ষরেখা তৈরি হয়েছে। পাশাপাশি দক্ষিণ ভারতে উত্তরপূর্ব মৌসুমি বায়ুও শক্তিশালী হয়ে গিয়েছে। সেই কারণেই দক্ষিণবঙ্গের বায়ুমণ্ডলে জলীয় বাষ্প ঢুকতে শুরু করেছে। তার প্রভাবেই এই বৃষ্টি।

কলকাতায় এ দিন বেলার দিকে হালকা বৃষ্টি হতে পারে। তবে গত রবিবার এবং সোমবার যে দাপটের সঙ্গে বৃষ্টি দক্ষিণবঙ্গে হয়েছে, বৃহস্পতিবারের বৃষ্টি তার ধারেকাছেও যাবে না। বরং একটা ভালো জিনিস করে দিয়ে যাবে এই বৃষ্টিটা।

শুক্রবার থেকে আকাশ পুরোপুরি পরিষ্কার হয়ে যাবে। আর তার পরেই ঢুকতে হিমশীতল উত্তুরে হাওয়া। রবিবার থেকে উত্তুরে হাওয়ার দাপট ক্রমশ বাড়বে দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে। তার প্রভাব পড়বে কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রাতেও। শনিবার থেকে কলকাতার তাপমাত্রা ১৬ ডিগ্রিতে নেমে যেতে পারে। সামনের সপ্তাহের শুরুতে তাপমাত্রা ১২-১৩ ডিগ্রিতে নেমে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে।

আরও পড়তে পারেন

বিপিন রাওয়াতের সঙ্গেই হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় প্রয়াত দার্জিলিংয়ের তাকদার বাসিন্দা হাবিলদার সতপাল রাই

গঙ্গা-ভাঙন রোখার কাজে কেন্দ্রের ‘নমামি গঙ্গে’ প্রকল্পের টাকা চান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় মৃত সেনার সর্বাধিনায়ক বিপিন রাওয়ত

রাজ্যে চাকরি করতে হলে বাংলা ভাষা জানতে হবে: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন