কলকাতা শুকনো থাকলেও জেলায় বৃষ্টি-পরিস্থিতির বড়ো উন্নতি, দু’সপ্তাহের পূর্বাভাস আরও উজ্জ্বল

0

ওয়েবডেস্ক: পূর্বাভাস মতোই গত ২৪ ঘণ্টায় দক্ষিণবঙ্গে সক্রিয় হয়ে উঠেছে বর্ষা। শহর কলকাতা এখনও সে ভাবে জোর বৃষ্টি না পেলেও পার্শ্ববর্তী জেলাগুলিতে বিশেষ করে পশ্চিমাঞ্চলের জেলায় বৃষ্টি পরিস্থিতির বড়োসড়ো উন্নতি হয়েছে। পাশাপাশি আগামী দু’সপ্তাহের পূর্বাভাসও দক্ষিণবঙ্গের ক্ষেত্রে যথেষ্ট উৎসাহব্যঞ্জক।

গত ২৪ ঘণ্টায় পুরুলিয়া এবং পশ্চিম মেদিনীপুরে অতি ভারী বৃষ্টি হয়েছে। দুই জেলায় গড় বৃষ্টির পরিমাণ দেড়শো মিলিমিটার। পাশাপাশি মোটামুটি ভালো বৃষ্টি হয়েছে বাঁকুড়া, দুই বর্ধমান, ঝাড়গ্রাম, পূর্ব মেদিনীপুর, দক্ষিণ ২৪ পরগণায়। এই প্রবল বৃষ্টির জন্য এক ধাক্কায় অনেকটাই কমে এসেছে দক্ষিণবঙ্গের বৃষ্টির ঘাটতি। পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, দুই মেদিনীপুর, দুই বর্ধমানে প্রভুত উন্নতি হয়েছে পরিস্থিতির। মাত্র ২৪ ঘণ্টায় দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির ঘাটতি ৪৯ থেকে কমে ৪৫ শতাংশ হয়েছে। তবে এখনও পর্যাপ্ত বৃষ্টির অভাবে কলকাতা এবং হাওড়ার ঘাটতি আরও বেড়েছে। দুই জেলায় বৃষ্টির ঘাটতি গিয়ে দাঁড়িয়েছে ৬৬ শতাংশে।

আরও পড়ুন ‘কিশোরকুমার, প্রশান্তকুমারের দরকার নেই’, মমতার মঙ্গলের উপায় বাতলে দিলেন মুকুল

তবে এখনই হতাশ হওয়ার বিশেষ কারণ নেই। কারণ আগামী দিনে দক্ষিণবঙ্গে বর্ষা সক্রিয় থাকবে বলেই জানিয়ে দিয়েছে কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতরের। একই বক্তব্য বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থা ওয়েদার আল্টিমারও। দক্ষিণবঙ্গ এবং ঝাড়খণ্ডের অবস্তিত একটি ঘূর্ণাবর্ত এবং মৌসুমী অক্ষরেখার প্রভাবে এই বৃষ্টি হয়েছে। শনিবার রাতেই বৃষ্টি ভাগ্য খুলতে পারে কলকাতারও।

তবে কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতরের তরফ থেকে আগামী দু’সপ্তাহের বৃষ্টির পূর্বাভাসের যে রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়েছে, তাতে সাফ বলে দেওয়া হয়েছে যে বৃষ্টি এখন চলবে। ১১ জুলাই পর্যন্ত গোটা পশ্চিমবঙ্গেই স্বাভাবিক বৃষ্টির কথা বলা হয়েছে। তবে ১১ থেকে ১৭ জুলাইয়ের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গ এবং লাগোয়া ঝাড়খণ্ডে বৃষ্টি স্বাভাবিকের থেকে অনেকটাই বেশি হবে বলে জানানো হয়েছে। ফলে মনে করা হচ্ছে দক্ষিণবঙ্গের আগামী দু’সপ্তাহ পর্যাপ্ত বৃষ্টিই হবে, যা বৃষ্টির ঘাটতিকে অনেকটাই কমাতে সাহায্য করবে।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন