ওয়েবডেস্ক: কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতর অনুযায়ী ভারতে সরকারি ভাবে বর্ষা ধরা হয় ১ জুন থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। সাধারণ ভাবে দেশের একটা বড়ো অংশে ৩০ সেপ্টেম্বরের পরে বর্ষা থাকলেও, সেটাকে রাখা হয় ‘বর্ষা পরবর্তী’ মরশুমে। ফলে সরকারি ভাবে বর্ষার শেষ সপ্তাহটি শুরু হচ্ছে আগামী সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বরে। বর্তমান পরিস্থিতি বিচার করে দেখা যাচ্ছে ২৩ তারিখের পরই বৃষ্টি বাড়বে দক্ষিণবঙ্গে।

গত সোমবার থেকে বর্ষা দুর্বল হয়ে গিয়েছে দক্ষিণবঙ্গে। বিক্ষিপ্ত ভাবে স্থানীয় বজ্রগর্ভ মেঘের সৌজন্যে কোথাও কোথাও ঝড়বৃষ্টি হচ্ছে। তবে আকাশ প্রধানত ভাবে মেঘমুক্ত থাকায় ক্রমশ বাড়ছে পারদ। ফলে একটা অস্বস্তিকর পরিস্থিতি রয়েছে। রবিবার থেকে এই অসহনীয় পরিস্থিতি থেকে রেহাই মিলতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

এরই মধ্যে বঙ্গোপসাগরে চোখ রাঙাতে শুরু করেছে একটি নিম্নচাপ। এখনও নিম্নচাপটি তৈরি হতে তিন চার দিন সময় লাগবে। কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, আগামী সোমবার নিম্নচাপটি তৈরি হবে। তবে সেটি যেখানে তৈরি হবে, ওই দিকে কোনো নিম্নচাপ থাকলে সাধারণত ভাবে তার অভিমুখ হয় দক্ষিণবঙ্গের দিকেই। এ বারও সে রকমই কিছু হতে পারে বলে মনে করছে বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থা ওয়েদার আল্টিমা।

আরও পড়ুন রাতারাতি জনপ্রিয় হওয়া মালায়ালাম গানের তালে নেচে ভাইরাল দিল্লির যাজক

সংস্থার কর্ণধার রবীন্দ্র গোয়েঙ্কা জানাচ্ছেন, আগামী সপ্তাহের মাঝামাঝি ওই নিম্নচাপটি বাংলাদেশ থেকে ওড়িশার মধ্যে কোনো এলাকা দিয়ে স্থলভাগে প্রবেশ করবে। ফলে দক্ষিণবঙ্গে যে বৃষ্টি বাড়বে তা বলাই বাহুল্য। নিম্নচাপের প্রভাবে কলকাতাস-সহ দক্ষিণবঙ্গের বিস্তীর্ণ অঞ্চলে ২৫ তারিখ থেকে মহালয়া পর্যন্ত দফায় দফায় ভারী বৃষ্টি হতে পারে।

এই বৃষ্টির ফলে পুজোর প্রস্তুতিতে কিছুটা যে ভাটা পড়বে তাতে কোনো সন্দেহ নেই। কিন্তু তার পাশাপাশি এখনও ঘাটতিতে থাকা বিভিন্ন জেলার জন্য তা আশীর্বাদী বার্তা নিয়ে আসতে পারে।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন