আগামী দু’তিন দিন রেকর্ড শীতের সম্ভাবনা, বছরের শুরুতে ফের বৃষ্টি

0

ওয়েবডেস্ক: ২০১৩-এর জানুয়ারিতে শেষ বার কলকাতার তাপমাত্রা নেমেছিল দশের নীচে। প্রায় সাত বছর পর সেই সম্ভাবনা আবার দেখা দিয়েছে। শনিবার আর রবিবার ভোরে শহরের পারদ নেমে যেতে পারে দশ ডিগ্রির নীচে।

এই তথ্যেই নিশ্চয় বোঝা যাচ্ছে কেমন শীত পড়তে চলেছে দক্ষিণবঙ্গে। কলকাতাতেই যদি পারদ দশ বা তার নীচে যায়, তা হলে পশ্চিমাঞ্চলের জেলায় পারদ কতয় নামতে পারে?

আবহাওয়া বিশেষজ্ঞরা বলছেন বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, শান্তিনিকেতন, আসানসোলে তাপমাত্রা ৫-৬ ডিগ্রি বা তারও কমে নেমে যেতে পারে। ফলে বোঝাই যাচ্ছে জোরদার শীতের কবলে পড়তে চলেছে দক্ষিণবঙ্গ। তবে এই শীতের স্থায়িত্ব বেশি দিনের নয়, কারণ বছরের শুরুতেই আবার বৃষ্টি নামতে চলেছে রাজ্য জুড়ে।

বৃহস্পতিবার থেকে শুক্রবার সকাল পর্যন্ত দফায় দফায় বৃষ্টি হয়েছে দক্ষিণবঙ্গে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে ভালো বৃষ্টি পেয়েছে কলকাতাও। কিন্তু এত বৃষ্টির পরেও শুক্রবার দক্ষিণবঙ্গের সর্বত্র সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল স্বাভাবিকের ২-৩ ডিগ্রি নীচে।

শুক্রবার সকালের পর বৃষ্টি থেমে গিয়েছে। মেঘের আড়াল থেকে সূর্যের মুখও দেখা দিয়েছে। তবুও শীতের অনুভূতি এ দিন আরও বেশি ছিল। কলকাতায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা কুড়ি ডিগ্রিতেই পৌঁছোতে পারেনি (১৯.৯)।

তবে সন্ধ্যার দিকে আকাশ পরিষ্কার হয়ে যাওয়ায়, পারদ পতন হবে দ্রুত। আর সে কারণেই শনিবার তাপমাত্রার রেকর্ড পতনের সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না।

তবে শনিবার সকালে কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা দশের নীচে না নামলেও, দশের আশেপাশে ঘোরাফেরা করার সম্ভাবনা প্রবল।

শনিবার কিন্তু সূর্যের দেখা মিলবে। সেই সঙ্গে উত্তুরে হাওয়ার তেজও বাড়বে। সোমবার পর্যন্ত শীতের প্রবল দাপট থাকতে পারে দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে।

শুধু দক্ষিণেই নয়, প্রবল ঠান্ডার সম্ভাবনা রয়েছে উত্তরবঙ্গেও। শুক্রবারই শিলিগুড়ি আর দার্জিলিংয়ে শীতলতম দিন রেকর্ড করা হয়। আবার এ দিনই শিলিগুড়িতে তুষারপাতের মতো শিলাবৃষ্টি হয়েছে। আকাশ পরিষ্কার হয়ে গেলে সেখানে শীতের প্রকোপ আরও বাড়বে।

আরও পড়ুন শিলিগুড়িতে তুষারপাত!

তবে নতুন বছরের এক্কেবারে শুরুতেই এই শীতের ছন্দপতন হবে। তার কারণ, উত্তর ভারতের দিকে ধেয়ে আসবে আরও এক শক্তিশালী পশ্চিমী ঝঞ্ঝা।

আসন্ন ঝঞ্ঝাটি এতটাই শক্তিশালী হবে, যে তার প্রভাবে উত্তর ভারত তো বটেই, পূর্ব আর উত্তরপূর্ব ভারতেও ঝড়বৃষ্টি হতে পারে।

তার প্রভাবে ১ জানুয়ারি সন্ধ্যা থেকে ৩ জানুয়ারি পর্যন্ত দক্ষিণবঙ্গে দফায় দফায় বৃষ্টি হতে পারে। উত্তরবঙ্গেও বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে, তবে তুলনায় বেশি বৃষ্টি হবে দক্ষিণেই। এই বৃষ্টির জন্য ৩১ ডিসেম্বর থেকে উধাও হয়ে যাবে শীত। আবার তা ফিরবে ৪ জানুয়ারি বা তার পর থেকে।

সব মিলিয়ে আগামী এক সপ্তাহ চমকপ্রদ আবহাওয়া অপেক্ষা করছে গোটা রাজ্যের জন্য।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.