Connect with us

বাংলাদেশ

বুলবুলের আতঙ্ক কাটতে না কাটতেই দুই বাংলায় নতুন ঘূর্ণিঝড়ের গুজব

ওয়েবডেস্ক: আবার নাকি ঘূর্ণিঝড় ধেয়ে আসছে? তার নাম নাকি ‘নাকরি’? কয়েকটি সংবাদমাধ্যমে এমন খবর প্রকাশিত হওয়ার পরে স্বাভাবিক ভাবেই আতঙ্ক ছড়িয়েছে সাধারণ মানুষের মধ্যে।

সদ্য বুলবুলের তাণ্ডব দেখেছে পশ্চিমবঙ্গ আর বাংলাদেশ উপকূল। তছনছ হয়ে গিয়েছে দক্ষিণ আর উত্তর ২৪ পরগণার বিস্তীর্ণ অঞ্চল। এরই মধ্যে আবার নতুন ঘূর্ণিঝড় হলে কিছুই করার থাকবে না ভুক্তভোগী মানুষদের।

এই প্রসঙ্গে বলে রাখা ভালো, ‘নাকরি’ বঙ্গোপসাগরের কোনো ঘূর্ণিঝড়ের নাম নয়। আর সেই নামের কোনো ঘূর্ণিঝড় এই মুহূর্তে বঙ্গোপসাগর বা সংলগ্ন আন্দামান সাগরে অবস্থানও করছে না।

‘নাকরি’ প্রশান্ত মহাসাগরীয় একটি ঘূর্ণিঝড়, বা স্থানীয় ভাষায় যাকে বলা হয় টাইফুন। এই টাইফুন ‘নাকরি’ সপ্তাহখানেক আগেই ফিলিপিন্সে আঘাত হেনে মারা গিয়েছে। অর্থাৎ, এই মুহূর্তে গোটা বিশ্বে ‘নাকরি’ নামক কোনো ঘূর্ণিঝড়ের কোনো অস্তিত্বই নেই।

ফলে স্বাভাবিক ভাবেই বাংলা তো দূর, এই মুহূর্তে পূর্ব ভারতের বাকি রাজ্যের উপকূল বা বাংলাদেশেও কোনো ঘূর্ণিঝড়ের সম্ভাবনা নেই।

আরও পড়ুন আবার হেলিকপ্টার বিতর্ক, নতুন করে সংঘাতে ধনকড় ও রাজ্য

তবে আবহাওয়া বিশেষজ্ঞদের একাংশের ধারণা, নভেম্বরের শেষে বা ডিসেম্বরের শুরুতে বঙ্গোপসাগরে একটি গভীর নিম্নচাপ বা ঘূর্ণিঝড় তৈরি হতে পারে। কিন্তু তার গতিপথ অন্ধ্রপ্রদেশ বা তামিলনাড়ু উপকূলের দিকে হওয়ার সম্ভাবনাই সব থেকে বেশি।

ডিসেম্বরে বঙ্গোপসাগরে ঘূর্ণিঝড় তৈরি হওয়া অস্বাভাবিক কোনো ঘটনা নয়। কিন্তু তার অভিমুখ কোনো ভাবেই বাংলার দিকে থাকে না। থাকে অন্ধ্র বা তামিলনাড়ু উপকূলের দিকে। ফলে আগামী দিনে বাংলার দিকে কোনো ঘূর্ণিঝড় ধেয়ে আসার সম্ভাবনা নেই।

এখন মূলত শীতের পদধ্বনির সময়। ধীরে ধীরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা আগামী দিনে বেশ খানিকটা কমে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে।

বাংলাদেশ

জাল করোনা-শংসাপত্র চক্রের অন্যতম পাণ্ডা ধৃত ও চাকরি থেকে বরখাস্ত

ঢাকার হৃদরোগ হাসপাতালে কর্মরত থেকেও জোবেদা খাতুন সর্বজনীন স্বাস্থ্যসেবার (জেকেজি হেলথকেয়ার) চেয়ারম্যান ছিলেন সাবরিনা।

ঋদি হক: ঢাকা

বাংলাদেশে করোনার জাল সার্টিফিকেট চক্রের অন্যতম পাণ্ডা ডা. সাবরিনা চৌধুরীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারের পরই তাঁকে সরকারি চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

এর আগে ২৩ জুন সাবরিনার স্বামী আরিফ চৌধুরী-সহ ৬ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। স্বামীকে গ্রেফতারের পরই গা ঢাকা দেন সাবরিনা। ঢাকার হৃদরোগ হাসপাতালে কর্মরত থেকেও জোবেদা খাতুন সর্বজনীন স্বাস্থ্যসেবার (জেকেজি হেলথকেয়ার) চেয়ারম্যান ছিলেন সাবরিনা, যার সিইও ছিলেন স্বামী আরিফ চৌধুরী। স্বাস্থ্য অধিদফতরের সঙ্গে বিনামূল্যে করোনা-নমুনা সংগ্রহ সংক্রান্ত চুক্তির পর প্রতিটি নমুনা পরীক্ষায় কমপক্ষে ৫ হাজার টাকা এবং বিদেশি নাগরিকের বেলায় ১০০ ডলার নিচ্ছিল জেকেজি হেলথকেয়ার। 

পুলিশ জানায়, জেকেজি হেলথকেয়ার থেকে ২৭ হাজার করোনা-নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে স্বাস্থ্য অধিদফতরের আইইডিসিআরের (ইনস্টিটিউট অব এপিডেমিওলজি, ডিজিজ কনট্রোল অ্যান্ড রিসার্চ; IEDCR) মাধ্যমে আসা ১১ হাজার ৫৪০ জনের করোনা-নমুনার সঠিক পরীক্ষা করানো হয়েছিল। বাকি ১৫ হাজার ৪৬০টি নমুনা নিজেরাই তৈরি করে জেকেজি। একজন ভুক্তভোগীর অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ জেকেজি হেলথকেয়ারের সিইও আরিফ চৌধুরী-সহ ৬ জনকে গ্রেফতার করে। প্রতিষ্ঠানটিতে অভিযান চালিয়ে ল্যাপটপ-সহ অন্যান্য নথিপত্র বাজেয়াপ্ত করা হয়। ল্যাপটপে ১৫ হাজার ৪৬০টি নমুনার জাল সার্টিফিকেট তৈরির প্রমাণ পায় পুলিশ। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে আরিফ চৌধুরী নিজেই স্বীকার করেছেন, জেকেজির ৭-৮ জন কর্মী জাল সার্টিফিকেট তৈরি করতেন।

জানা গেছে, হাজারো চেষ্টা করেও শেষ রক্ষা হয়নি ডা. সাবরিনার। অবশেষে রবিবার  তাঁকে আটকের পর পুলিশের দীর্ঘ জেরায় করোনার জাল শংসাপত্র তৈরির কথা স্বীকার করেন তিনি। তেজগাঁও থানা পুলিশ জানিয়েছে, স্বামী-স্ত্রী দু’ জনে মিলে করোনা টেস্টের ভুয়া শংসাপত্র বিক্রির কারবারটি বেশ জাঁকিয়ে ফেঁদেছিলেন।

আরও পড়ুন: করোনার জাল সার্টিফিকেট নিয়ে ইতালিতে ফিরে বিপাকে প্রবাসী বাংলাদেশিরা

এর আগে গ্রেফতার হওয়া ২ জন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। তাদের দেওয়া জাল শংসাপত্র নিয়ে ইতালি গিয়ে হাজারো বাংলাদেশি নাগরিক আজ চরম বিপাকে পড়েছেন।

করোনা পরীক্ষার জাল শংসাপত্র তৈরির আরেক পালের গোদা রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদকে শিগগিরই গ্রেফতার করা সম্ভব হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি বলেন, “সাহেদের বিদেশ যাওয়ার সুযোগ নেই। পুলিশ তাঁকে খুঁজছে। শিগগির তাঁকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হব।”

ঈদুল আজহা উপলক্ষ্যে দেশের সার্বিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি পর্যালোচনা, কোরবানির পশুর হাটের নিরাপত্তা ও চামড়া পাচার রোধকরণ এবং শিল্পাঞ্চলে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ-সহ বিভিন্ন প্রাসঙ্গিক বিষয়ে সরকারের অবস্থান নির্ধারণের লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত সভায় তিনি এ সব কথা বলেন।

Continue Reading

বাংলাদেশ

করোনার জাল সার্টিফিকেট নিয়ে ইতালিতে ফিরে বিপাকে প্রবাসী বাংলাদেশিরা

বাংলাদেশের রিজেন্ট হাসপাতাল-সহ কয়েকটি হাসপাতাল থেকে মিলেছে করোনা নেগেটিভের ভুয়ো সার্টিফিকেট।

ঋদি হক: ঢাকা

ইতালিতে (Italy) প্রায় দু’ লক্ষাধিক বাংলাদেশি রয়েছেন। গত মার্চে করোনাভাইরাসের (coronavirus) ভয়াবহ প্রাদুর্ভাব ছড়িয়ে পড়লে সাত হাজারের বেশি প্রবাসী বাংলাদেশি দেশে ফেরেন। জুনের মাঝামাঝি সময় ইতালিতে ফিরতে শুরু করেন প্রবাসীরা। বাংলাদেশ বিমানের বিশেষ উড়ানে এক হাজারেরও বেশি প্রবাসী এরই মধ্যে ইতালিতে ফিরেছেন।

ইতিমধ্যে ২৬ জুন ও ৬ জুলাইয়ের দু’টি উড়ানে ইতালিতে ফেরত যাওয়া ২৯ বাংলাদেশির শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। সে দেশের স্বাস্থ্য বিভাগ কিছু বাংলাদেশির কাছ থেকে করোনাভাইরাসের ভুয়ো সার্টিফিকেট আটক করে। এ কারণে ৫ অক্টোবর পর্যন্ত আর কোনো বাংলাদেশিকে ঢুকতে দেবে না ইতালি। বাংলাদেশের রিজেন্ট হাসপাতাল-সহ কয়েকটি হাসপাতাল থেকে করোনা নেগেটিভের ভুয়ো সার্টিফিকেট নিয়ে ইতালি যাওয়া প্রবাসীদের দিন কাটছে দুশ্চিন্তায়। ইতালি থেকে সর্বশেষ ফেরত পাঠানো ১৬৫ জন বাংলাদেশিও রিজেন্ট হাসপাতাল থেকেই করোনা টেস্ট করিয়েছিলেন। শুক্রবার এঁরা ঢাকায় এলে এঁদের মধ্যে ১৪৭ জনকে আশকোনা হজ ক্যাম্পে কোয়ারান্টাইনে রাখা হয়েছে।     

জানা গেছে, রিজেন্টের ভুয়ো টেস্টের কারণে ইতালিতে কমপক্ষে ৩০ হাজার প্রবাসী বাংলাদেশির ফের করোনা টেস্ট করা হচ্ছে। এতে করে তাঁদের অর্থ ও কাজের সময় নষ্ট হচ্ছে।

জানা গেছে, সরকারি ব্যবস্থাপনায় দ্রুত টেস্ট রিপোর্ট না পাওয়ার কারণে প্রাইভেট হাসপাতাল থেকে করোনা টেস্টের সার্টিফিকেট নিয়ে ইতালি ফেরেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। চলতি সপ্তাহে আরও ৮০০ বাংলাদেশির ইতালি ফেরার কথা ছিল। কিন্তু ইতালি প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি হওয়ায় তাঁদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। অনেকের ওয়ার্ক ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে যাচ্ছে। করোনা সার্টিফিকেটের কারণে ইতালিতে অবৈধ বাংলাদেশিদের বৈধকরণ প্রক্রিয়ায়ও প্রভাব পড়ার আশঙ্কা করছেন অনেকে।

রিজেন্ট হাসপাতালের কর্ণধার মো. সাহেদ করিম।

ইতালি প্রবাসী কামরুল সারোয়ার বলেন, প্রথম ধাপে ইতালি থেকে যাঁরা বাংলাদেশে যান, সরকারের তরফে তাঁদের করোনা পরীক্ষা এবং কোয়ারান্টাইনের ব্যবস্থা করা হলে বিপদে পড়তে হত না। রিজেন্ট হাসপাতাল-সহ বেশ কিছু স্বাস্থ্যকেন্দ্র থেকে সাড়ে তিন থেকে পাঁচ হাজার টাকায় ভুয়ো করোনা সার্টিফিকেট বিক্রি হচ্ছে।

এখন বাংলাদেশিদের এড়িয়ে চলছেন ইতালীয়রা। ইতালিতে ফিরে যাওয়া এক করোনা-আক্রান্ত প্রবাসী বাংলাদেশি এক রেস্তোরাঁয় কাজ করায় রেস্তোরাঁ-মালিকের দু’টি রেস্তোরাঁ বন্ধ করে দিয়েছে সেখানকার প্রশাসন। প্রবাসী বাংলাদেশিদের বিভিন্ন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানেও হানা দিচ্ছে প্রশাসনের লোকজন। ইতিমধ্যে কাতার এয়ারওয়েজের যে উড়ান রোমে গিয়েছিল, সেটাকে ইতালির স্বাস্থ্যকর্তারা করোনা-বোমা আখ্যা দিয়ে ১৬৫ জনকে বিমানবন্দর থেকে ঢাকায় ফেরত পাঠিয়ে দেন।

ইতালিতে ফিরে যাওয়া করোনা রোগীদের অধিকাংশের ভুয়া সার্টিফিকেট ছিল রিজেন্টের দেওয়া। সে দেশ থেকে এ খবর দেয় সেখানকার বাংলাদেশ দূতাবাস। এর পরই র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ান (র‌্যাব) রিজেন্ট হাসপাতালে (Regent Hospital) অভিযান চালায়। তথ্যপ্রমাণ পাওয়ার পর হাসপাতালটির উত্তরা প্রধান কার্যালয়-সহ একাধিক শাখা সিল করে দেয় প্রশাসন।

করোনা পরীক্ষা না করেই সার্টিফিকেট দেওয়া-সহ নানা প্রতারণার অভিযোগে রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান মো. সাহেদ করিমকে প্রধান আসামি করে ১৭ জনের বিরুদ্ধে উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলা দায়ের করে র‍্যাব। এঁদের মধ্যে সাহেদ করিম পলাতক। সাত জনকে গ্রেফতার করে বুধবার ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেটের (সিএমএম) আদালতে তোলা হলে সিএমএম তাঁদের পাঁচ দিনের হাজতবাস মঞ্জুর করেন। সাহেদ করিমের অন্যতম সহযোগী তারিকুল ইসলামকে গ্রেফতার করে শুক্রবার আদালতে তোলা হলে তাঁকেও পাঁচ দিনের হাজতবাস দেওয়া হয়।     

বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, সাহেদের শাস্তি হবেই। তিনি যে অপরাধ করেছেন তার শাস্তি তাঁকে পেতেই হবে। তিনি যতই ক্ষমতাবান হোন না কেন তাঁকে কোনো ছাড় দেওয়া হবে না।

ইতিমধ্যে সাহেদের প্রতিষ্ঠানটির সকল ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ফ্রিজ করা হয়েছে। মামলার প্রধান আসামি হাসপাতাল চেয়ারম্যান মো. সাহেদ যাতে দেশত্যাগ করতে না পারেন, সে জন্য নির্দেশনা জারি করা হয়েছে।

Continue Reading

বাংলাদেশ

ভারত বোঝে রোহিঙ্গাদের দ্রুত প্রত্যাবাসন কতটা জরুরি, বললেন এস জয়শংকর

বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে আশ্রয় দিয়ে বাংলাদেশ যে মানবিকতার পরিচয় দিয়েছে তার ভূয়সী প্রশংসা করেন ভারতের বিদেমমন্ত্রী।

ঋদি হক: ঢাকা

২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট মায়ানমারের (Myamnar) সামরিক বাহিনীর গণহত্যা থেকে পরিত্রাণ পেতে প্রায় ৭ লাখ রোহিঙ্গা (Rohingya) শরণার্থী বাংলাদেশে (Bangladesh) এসে আশ্রয় নেয়। এর আগেও মায়ানমার সরকারের সহিংস নির্যাতনের শিকার হয়ে কয়েক দফায় ৩ লাখের বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে আসে। এ মুহূর্তে কক্সবাজারের ৩৪টি রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে সব মিলিয়ে অন্তত ১১ লাখ রোহিঙ্গার বসবাস। রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী অর্থাৎ মায়ানমার থেকে বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের মায়ানমারে ফেরানোর বিষয়ে বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক পর্যায়ে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে। এর মধ্যে রোহিঙ্গাদের সম্মানজনক ভাবে ফেরানোর কথা বলে আসছে ভারত (India)। 

ভারতের বিদেশমন্ত্রী ড. এস জয়শংকর (Dr. S Jaishankar) বলেছেন, বাংলাদেশ ও মায়ানমারের প্রতিবেশী হিসেবে ভারত বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে মায়ানমারে দ্রুত ফেরানোর প্রয়োজনীয়তা অনুভব করে। জয়শংকর বলেন, বাংলাদেশে অবস্থানরত রোহিঙ্গাদের মায়ানমারে দ্রুত, নিরাপদ ও টেকসই প্রত্যাবাসনে (Repatriation) সকলেরই মঙ্গল নিহিত।

বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনকে লেখা এক পত্রে ড. এস জয়শংকর এ সব বিষয় উল্লেখ করেন। মায়ানমারের রাখাইন প্রদেশ থেকে বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে আশ্রয় দিয়ে বাংলাদেশ যে মানবিকতার পরিচয় দিয়েছে তার ভূয়সী প্রশংসা করেন ভারতের বিদেমমন্ত্রী। করোনা মহামারি মোকাবিলায় বাংলাদেশ সরকার ও জনগণের পাশে থাকার অঙ্গীকার পুনরায় ব্যক্ত করেন ড. এস জয়শংকর।

দু’দেশের উন্নয়নের ক্ষেত্রে পারস্পরিক অংশীদারিত্ব অব্যাহত থাকার বিষয়টিও পত্রে উল্লেখ করেন ভারতের বিদেমমন্ত্রী। বাংলাদেশের বিদেশ মন্ত্রকের এক বার্তায় এ তথ্য জানানো হয়েছে। এর আগে গত বছরের ১৮ আগস্ট ঢাকা সফর করেন ভারতের বিদেশমন্ত্রী। সে সময়েও দু’ দেশের বৈঠকে রোহিঙ্গা ইস্যু গুরুত্ব পায়।

একই বছরের ৮ আগস্ট বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল নয়াদিল্লি সফরকালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। সে সময়ও দু’ জনের আলোচনায় রোহিঙ্গা ইস্যু উঠেছিল। ভারত সরকার ইতোমধ্যে মায়ানমার সরকারের সঙ্গে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে আলোচনা করেছে এবং ভারত সরকার মনে করে এ সমস্যার দ্রুত সমাধান প্রয়োজন। রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফেরানোর ব্যাপারে মায়ানমারের সঙ্গে আলোচনা করে সহযোগিতা করবেন বলে আশ্বাস দেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

Continue Reading
Advertisement
দেশ31 mins ago

দেশে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যায় রেকর্ড, তবে মৃত্যুহারে উল্লেখযোগ্য পতন

বিদেশ56 mins ago

কমদামী ও সহজলভ্য দুই ওষুধের সংমিশ্রণেই কমছে করোনার মারণ ক্ষমতা?

বিদেশ1 hour ago

রাশিয়ার করোনা ভ্যাকসিনের ট্রায়াল সফল, দাবি বিজ্ঞানীদের

কলকাতা2 hours ago

রবিবার রাতের প্রবল বৃষ্টিতে কলকাতার বিস্তীর্ণ অঞ্চল জলমগ্ন

ক্রিকেট10 hours ago

ক্রিকেটের প্রত্যাবর্তনে ঐতিহাসিক জয় ওয়েস্ট ইন্ডিজের

বাংলাদেশ13 hours ago

জাল করোনা-শংসাপত্র চক্রের অন্যতম পাণ্ডা ধৃত ও চাকরি থেকে বরখাস্ত

রাজ্য14 hours ago

রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ হাজার পার, কমছে মৃত্যুহার

রাজ্য14 hours ago

রাজ্যের লক্ষ্য দৈনিক ১ লক্ষ করোনা নমুনা পরীক্ষা করা, আসছে নতুন যন্ত্র

দেশ1 day ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ২৮৬৩৭, সুস্থ ১৯২৩৫

দুর্গা পার্বণ2 days ago

আজও ভিয়েন বসিয়ে হরেক রকম মিষ্টি তৈরি হয় চুঁচড়ার আঢ্যবাড়ির দুর্গাপুজোয়

ফুটবল3 days ago

এটিকে-মোহনবাগানের নতুন লোগো প্রকাশিত, জার্সির রঙ সবুজমেরুনই

কলকাতা2 days ago

সক্রিয় রোগীর নিরিখে এই মুহূর্তে কলকাতার অবস্থান কত নম্বরে?

শিক্ষা ও কেরিয়ার3 days ago

প্রকাশিত হল আইসিএসই এবং আইএসসি ফলাফল, মিলল না মেধা তালিকা!

atm
প্রযুক্তি3 days ago

এটিএম ব্যবহারের সময় কার্ড ক্লোনিং ডিভাইসগুলি থেকে সতর্ক থাকুন

দেশ3 days ago

শারীরিক দুরত্ব ভেঙে মানবিক দায়িত্ব পালন

Harsh Vardhan
দেশ3 days ago

করোনা আক্রান্তের সংখ্যায় আমরা উদ্বিগ্ন নই: কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী

কেনাকাটা

কেনাকাটা4 days ago

ঘরের একঘেয়েমি আর ভালো লাগছে না? ঘরে বসেই ঘরের দেওয়ালকে বানান অন্য রকম

খবরঅনলাইন ডেস্ক : একে লকডাউন তার ওপর ঘরে থাকার একঘেয়েমি। মনটাকে বিষাদে ভরিয়ে দিচ্ছে। ঘরের রদবদল করুন। জিনিসপত্র এ-দিক থেকে...

কেনাকাটা6 days ago

বাচ্চার জন্য মাস্ক খুঁজছেন? এগুলোর মধ্যে একটা আপনার পছন্দ হবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিউ নর্মালে মাস্ক পরাটাই দস্তুর। তা সে ছোটো হোক বা বড়ো। বিরক্ত লাগলেও বড়োরা নিজেরাই নিজেদেরকে বোঝায়।...

কেনাকাটা7 days ago

রান্নাঘরের টুকিটাকি প্রয়োজনে এই ১০টি সামগ্রী খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক : লকডাউনের মধ্যে আনলক হলেও খুব দরকার ছাড়া বাইরে না বেরোনোই ভালো। আর বাইরে বেরোলেও নিউ নর্মালের সব...

কেনাকাটা1 week ago

হ্যান্ড স্যানিটাইজারে ৩১ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দিচ্ছে অ্যামাজন

অনলাইনে খুচরো বিক্রেতা অ্যামাজন ক্রেতার চাহিদার কথা মাথায় রেখে ঢেলে সাজিয়েছে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের সম্ভার।

নজরে