মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে চান ইরাকে নিহত সমর টিকাদারের স্ত্রী

0

কলকাতা: চার বছর পর সরকারি ভাবে ঘোষণা করা হয়েছে, ইরাকের মসুলে আইএস জঙ্গিদের হাতে নিহত হয়েছেন অপহৃত ৩৯ জন ভারতীয়। যাঁর মধ্যে রয়েছেন দুই বাঙালি সমর টিকাদার এবং খোকন সিকদার। সে খবর পাওয়ার পর দু’দিন কেটে গেলেও এখনও পর্যন্ত তাঁদের  পরিবার বৃহস্পতিবারেও জানতে পারেনি সেই মরদেহ কবে, কখন, কী ভাবে পাওয়া যাবে। এ ব্যাপারে কোনো নির্দিষ্ট তথ্য জানাতে পারেননি জেলা শাসকও। তবে এই উদ্বেগের মধ্যেই দুই সন্তানের ভবিষ্যৎ নিয়ে চিন্তিত মৃত সমরবাবুর স্ত্রী দিপালীদেবী চাইছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করতে।

দিপালীদেবী বলেন, ‘আমি মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে আমার আর্থিক অবস্থার কথা জানাতে চাই। আমি একটা কাজ চাইব তাঁর কাছে। আমি জানি দিদি আমার কথা শুনবেন।’

তিনি বলেন, ‘এত দিন ভাবতাম স্বামী ফিরে এলে আজকের দুরবস্থা ঘুঁচবে। তাঁর ফেরার আশাতেই ছিলাম। কিন্তু এখন আর কোনো আশা নেই। আমার ছেলে সুদীপ ১০ ক্লাসের পরীক্ষার জন্য পড়ছে আর মেয়ে শর্মিষ্ঠা পড়ে ক্লাস ফোরে। ওদের পড়াশোনার টাকাই বা জোগাড় করব কোথা থেকে?’

উল্লেখ্য বর্তমানে দিপালীদেবী সুসংহত শিশুবিকাশ কেন্দ্রের কর্মী। মাসিক ৪৮০০ টাকার চুক্তিতে তিনি ওই কাজে যুক্ত রয়েছেন। কিন্তু এই টাকায় যে আর তাঁর পক্ষে জীবন চালানো সম্ভব নয়, সে কথাই তিনি বলতে চান মুখ্যমন্ত্রীকে।

তেহট্রে বাসিন্দা নিহত খোকন শিকদারের মেয়েকে ইতিমধ্যেই সরকারি বিভাগে কাজের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন স্থানীয় বিধায়ক গৌরিশঙ্কর দত্ত। স্বাভাবিক ভাবেই দিপালীদেবীর দাবিও অমূলক নয় বলে মনে করছেন প্রতিবেশীরাও। কারণ, কেন্দ্রীয় সরকার শুধুমাত্র মরদেহগুলি ১০ দিনের মধ্যে ফিরিয়ে নিয়ে আসার কথা ঘোষণা করলেও, আলাদা করে সংশ্লিষ্ট পরিবারগুলির পাশে দাঁড়াতে কোনো উদ্যোগ নেয়নি।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন