Homeরাজ্যশিলিগুড়িকাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস দুর্ঘটনা: কার গাফিলতি? উঠে আসছে একাধিক প্রশ্ন

কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস দুর্ঘটনা: কার গাফিলতি? উঠে আসছে একাধিক প্রশ্ন

প্রকাশিত

সোমবার সকালে কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেসের মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় কার গাফিলতি তা নিয়ে নানা প্রশ্ন উঠেছে। রাঙাপানি ও আলুয়াবাড়ির মধ্যে এই দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন ৮ জন। দুর্ঘটনার কারণ নিয়ে উঠেছে একাধিক তত্ত্ব। সিগন্যাল না মানা থেকে শুরু করে পুরনো প্রযুক্তির কামরা ব্যবহারের জন্য এই দুর্ঘটনা ঘটল, তা নিয়ে তদন্তে নেমেছে রেল।

রেলের তথ্য অনুযায়ী, সোমবার সকাল ৫টা ৫০ মিনিট থেকে রাঙাপানি ও আলুয়াবাড়ির মাঝের অটোমেটিক সিগন্যাল বন্ধ ছিল। ফলে ট্রেন চলাচল হচ্ছিল অত্যন্ত ধীর গতিতে। পেপার লাইন ক্লিয়ার টিকিটের মাধ্যমে ট্রেন চলাচল করছিল। সকাল ৮টা ২৭ মিনিটে রাঙাপানি স্টেশন ছাড়ে কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস, TA912 ফর্মের ভিত্তিতে। একই সময়ে মালগাড়িটি ছেড়ে যায় ৮টা ৪২ মিনিটে। দুটি ট্রেনের মাঝে সময়ের ব্যবধান ছিল মাত্র ১৫ মিনিট। প্রশ্ন উঠছে, পেপার মেমো থাকলে গতি প্রতি ঘণ্টায় ১০ কিমি হওয়ার কথা, তবে কীভাবে এই দুর্ঘটনা ঘটল?একাংশের দাবি, মালগাড়ির চালক সিগন্যাল মানেননি। 

রেলের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, “কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেসের সব কামরাই ছিল পুরনো প্রযুক্তির ‘আইসিএফ কোচ’। ২০১৭ সালে রেল সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, দুর্ঘটনা কমাতে আইসিএফ কামরা সরিয়ে এলএইচবি (লিঙ্ক হফম্যান বুশ) প্রযুক্তির উন্নত কামরা লাগানো হবে। এলএইচবি কামরা থাকলে দুর্ঘটনার সময় কামরাগুলির ভারসাম্য অনেক বেশি থাকে, সামনাসামনি ধাক্কা লাগলে কামরা একটির উপর আরেকটি উঠবে না।” এলএইচবি কামরা দ্রুত গতিতে ভারসাম্য বজায় রাখতে সক্ষম এবং দুর্ঘটনা কমাতে সহায়ক।

গত বছরের জুনে ওড়িশার বালেশ্বরের বাহানগার কাছে করমণ্ডল এক্সপ্রেস ও একটি মালগাড়ির মধ্যে সংঘর্ষের পুনরাবৃত্তি ঘটল এবার শিলিগুড়ির কাছে। প্রশ্ন উঠছে, কবচ প্রযুক্তি কেন এই ট্রেনে লাগানো ছিল না? কবচ হল ভারতীয় প্রযুক্তি যা মুখোমুখি সংঘর্ষ এড়াতে সাহায্য করে। ২০২০ সালে কবচকে জাতীয় স্বয়ংক্রিয় ট্রেন সুরক্ষা ব্যবস্থার অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল।

শিয়ালদহমুখী কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেসে দুর্ঘটনা, মালগাড়ির ধাক্কায় লাইনচ্যুত দুটি কামরা, মৃত ৯

রেলমন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব কবচ প্রযুক্তি বোঝাতে একটি ভিডিয়ো প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, “কবচ প্রযুক্তি ট্রেনের গতি নিয়ন্ত্রণ করে এবং মুখোমুখি সংঘর্ষ এড়াতে সাহায্য করে।” কিন্তু সে সবের পর কবচ প্রযুক্তি লাগানো লাগানো রেল কর্মপদ্ধতি কচ্ছপের গতি হার মানাবে। 

এই ঘটনার পর বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, যিনি নিজেও প্রাক্তন রেলমন্ত্রী, রেলের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, “এখন শুধুই বন্দে ভারতের নামে প্রচার চলছে। রেলের বাজেট তুলে দিয়ে রেলকে গুরুত্বহীন করা হয়েছে।”

মমতা রেলকর্মীদের পাশে থাকার আশ্বাস দেন এবং রেল মন্ত্রকের অবহেলা নিয়ে সরব হন। তিনি বলেন, “রেল ছেড়ে লোকে এখন বাইক, সাইকেলে যাতায়াত করছে।”

এই দুর্ঘটনার পর নজর এখন রেল কর্তৃপক্ষের তদন্তের উপর, যেখানে এই মর্মান্তিক ঘটনার প্রকৃত কারণ খুঁজে বের করা হবে। দুর্ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে রেলের আরও উন্নত প্রযুক্তি ও যথাযথ নিরাপত্তা ব্যবস্থার প্রয়োজনীয়তা এখন সময়ের দাবি।

কেন্দ্রীয়মন্ত্রী সুকান্ত মজুমদার

সাম্প্রতিকতম

অনলাইনে খাবার অর্ডারের চার্জ বাড়াল সুইগি, জোমাটো, কত বাড়তি দিতে হবে?

প্রতি অর্ডারে ১ টাকার বৃদ্ধি গ্রাহকদের জন্য তেমন গুরুত্বপূর্ণ নয় বলেই মনে করছে সংস্থাগুলি। তবে জোমাটো প্রতিদিন ২২-২৫ লাখ অর্ডার ডেলিভার করে, যার ফলে এই ফি বৃদ্ধিতে প্রতিদিন অতিরিক্ত ২৫ লাখ টাকা আয় বাড়াবে।

অত্যাধুনিক প্রযুক্তির সাশ্রয়ী মূল্যের অ্যান্ড্রয়েড স্মার্ট লেড (Android Smart LED) টিভি আনল দেয়ু (DAEWOO)

মৌ বসু দক্ষিণ কোরিয়ার টেক ব্র্যান্ড ‘দেয়ু’ (DAEWOO) ভারতের বাজারে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির অথচ সাশ্রয়ী মূল্যের...

১৫ একর জায়গা জুড়ে তৈরি হচ্ছে আম বন, থাকবে ১০৮ রকমের আমগাছ

মৌ বসু ফলের রাজা আম। গ্রীষ্মকালে সুমিষ্ট এই ফলের সম্ভারে মাতোয়ারা হয় বিশ্বের নানা প্রান্ত।...

বাড়তি মেদ ঝরানোর নয়া ট্রেন্ড ‘ওয়াটার ফাস্টিং’ (Water Fasting), জেনে নিন এর ভালো-মন্দ

মৌ বসু গোটা বিশ্বে এখন ডায়েট কন্ট্রোলের সর্বাধুনিক ট্রেন্ড হল ‘ওয়াটার ফাস্টিং’ (Water Fasting)। কী...

আরও পড়ুন

নেওড়াভ্যালি ন্যাশনাল পার্ককে আরও আকর্ষণী করতে বিশেষ উদ্যোগ বন দফতরের

নেওড়াভ্যালি ন্যাশনাল পার্কের জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ এবং বাঘের আবাসস্থল দেখাশোনা সহজতর করতে বন দফতর লাভায় নতুন অফিস চালু করতে চলেছে।

শিলিগুড়িতে মিটল জল সঙ্কট, জানালেন মেয়র, নদী দূষণমুক্ত করতেও পরিকল্পনা

শনিবার থেকেই তিস্তা সেচ ক্যানালে জল ছেড়েছে সেচ দফতর। ইতিমধ্যে ফুলবাড়িতে ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্টে জল উত্তোলন শুরু হয়েছে। সেখান থেকেই আজ বিকেল থেকে শিলিগুড়ি শহরে পানীয় জল সরবরাহ করা হবে।

‘পাহাড়ে কোনো বন্‌ধ হবে না’, চ্যালেঞ্জ মুখ্যমন্ত্রীর

আগামী ২৩ ফেব্রুয়ারি পাহাড় বন্‌ধের আহ্বায়কদের উদ্দেশে এমনই স্পষ্ট বার্তা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের।
মানসিক স্বাস্থ্য ভাল রাখার ৮ টি অভ্যাস হাড়ের ঘনত্ব বাড়াতে ৯টি যোগব্যায়াম