বুধবার থেকে ফের স্বমহিমায় খুলে গেল শিলিগুড়ির বেঙ্গল সাফারি পার্ক

0

নিজস্ব প্রতিনিধি, শিলিগুড়ি: দীর্ঘ লকডাউন, বিধিনিষেধ কাটিয়ে, সমস্ত কোভিড প্রোটোকল মেনেই বুধবার থেকে ফের সর্বসাধারণের জন্য খুলে গেল শিলিগুড়ির বেঙ্গল সাফারি পার্ক।

গত দু’বছরে করোনাকালের প্রথম ঢেউয়ের পর পরই বন্য প্রাণী-সহ জনগণের স্বার্থেই সম্পূর্ণ বন্ধ করে দেওয়া হয় পার্ক। পরে দ্বিতীয় ঢেউয়ের মাঝে কিছু দিনের জন্য আংশিক খোলা হলেও মে মাসের ২ তারিখে ফের বন্ধ করে দেওয়া হয় পার্ক। এর পর দীর্ঘ চার-সাড়ে চার মাসের বিধিনিষেধ কাটিয়ে আবারও জনসাধারণের জন্য খুলে গেল বেঙ্গল সাফারি।

উত্তরবঙ্গের পর্যটনে শিলিগুড়ির বেঙ্গল সাফারি পার্ক অন্যতম আকর্ষণীয় পর্যটন কেন্দ্র হয়ে উঠেছে। মমতা বন্দোপাধ্যায় মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পরই তৎকালীন পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেবের হাত ধরেই বেঙ্গল সাফারি পার্কটির পথ চলা শুরু হয়। পার্কটিতে ঘন বনাঞ্চলের পাশাপাশি বিভিন্ন বন্য প্রাণীকে নিয়ে এসে রাখা হয় এই পার্কে। এক কথায় “ইকো ট্যুরিজম”-এর পাশাপাশি বিভিন্ন বন্য প্রাণী সংরক্ষণ ও প্রজননের লক্ষেই পার্কটিতে মুক্তাঞ্চল তৈরি করে বাঘ, চিতা, হাতি, কুমির, গন্ডার-সহ বিভিন্ন ধরনের রং-বেরঙের পাখিদের জন্য মুক্তাঞ্চল গরে তোলা হয়।

পাশিপাশি স্থানীয় ও উত্তরবঙ্গে ঘুরতে আসা পর্যটকদের বিনোদন ও বনাঞ্চলে প্রকৃতির সঙ্গে মুক্ত বাতাসে মিশে যেতেই এই পার্কটিকে পর্যটনের লক্ষে তৈরি করা হয়। শুরুর দিনগুলি থেকেই এই পার্কটিতে পর্যটকদের ভিড় থাকত প্রতিদিনই। কিন্তু করোনার গ্রাসে প্রায় দু’বছর যাবৎ একদমই জনমানব শূন্য হয়ে যায় এই পার্কটি।

করোনা সংক্রমণের দাপটে যখন গোটা বিশ্ব ঘর বন্দি, তার থেকে বাদ যায়নি এই বেঙ্গল সাফারিও। সরকারি নির্দেশ মত গতো দু’বছর ধরে কখনও আংশিক, আবার কখনও সম্পূর্ণ ভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয় পার্ক। ফলত স্থানীয় কিংবা পর্যটকদের এক প্রকার হতাশ হয়েই ঘরে ফিরতে হয়। এ বার করোনা ভাইরাসের দাপট অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে আসায় ফের সাধারণ পর্যটকদের জন্য পার্ক খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় সরকার।

সিদ্ধান্ত মতোই বুধবার থেকে আবারও নিজের মহিমায় ফিরে এল বেঙ্গল সাফারি। পার্কটি ফের খুলে দেওয়ার প্রসঙ্গে বেঙ্গল সাফারি পার্কের অধিকর্তা বাদল দেবনাথ জানান, দীর্ঘদিনের বন্ধ থাকার পর দর্শনার্থী বা পর্যটককেরা নিশ্চিত ছিলেন না যে কবে খুলবে বা খুলবে না। তাই তাঁদের পার্ক পরিদর্শনের কোনো ঠিক ছিল না। এখন যেহেতু খুলে গিয়েছে তখন ধীরে ধীরে ফের পর্যটকের সংখ্যা বাড়বে।

এ দিন খোলার পর অল্প কিছু সংখ্যক পর্যটকের দেখা মিললেও, তিনি আশা করেন, আগামী দু-এক দিন পর থেকে ধীরে ধীরে এই সংখ্যাটা উপচে পড়বে। তিনি আরও জানান, যাঁরা ঘুরতে ভালোবাসেন তাঁরা কার্যত গৃহবন্দি হয়ে হাঁপিয়ে উঠছে। এই পার্কটিকে খুলে দেওয়ার ফলে এ বার তাঁরা পার্কমুখো হতে চলেছেন। শিশুদের কাছেও এখানে আসার একটা তাগিদ ছিল, সেটা পার্ক খুলে দেওয়ায় আবার চাগাড় দিয়ে উঠবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

সামনেই পুজো আসছে। আর পর্যটনপ্রেমী মানুষ এই পুজোকে কেন্দ্র করে ঘুরতে ভালোবাসেন। তাই তাঁর আশা, এ বারের পুজোতেও পার্কে ভিড় থাকবে চোখে পড়ারই মতো। তিনি আরও জানান, আগের মতই পার্কের ঢোকার দু’ধরনের বুকিং চালু রয়েছে। অফলাইন ও অনলাইন। যাঁরা অনলাইনে টিকিট বুকিং করতে পারবেন না, তাঁরা এখানে এসে ম্যানুয়াল অফলাইন বুকিং করে পার্কে প্রবেশ করতে পারবেন। যাবতীয় কোভিডবিধি মেনেই পার্ক খোলা থাকবে। স্যানিটাইজেশন থেকে শুরু করে মাস্ক, শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখা সমস্ত বিধিনিষেধ মেনেই পর্যটকদের ভিতরে প্রবেশ করানো হবে বলে জনান তিনি।

ভিতরে পর্যটকদের সাফারির জন্য গাড়িগুলির মধ্যে ১০টা গাড়িই চালু করে দেওয়া হচ্ছে। পরবর্তিতে পর্যটকের ভিড়ের ওপর বাড়ানো- কমানো নির্ভর করবে বলে জানান বাদল দেবনাথ।

অন্য দিকে, পরিবার নিয়ে এখানে ঘুরতে আসা নরেন সোরেন নামে এক পর্যটক জানান, এই পার্কে আগে কখনোই আসেননি তাঁরা। দীর্ঘ দিন ধরেই একটা পরিকল্পনা ছিল বেঙ্গল সাফারি পার্কে সাফারি করার। কিন্তু করোনার জন্য ঘর থেকে বেরোতেই পারেননি। এখন যখন সবটাই শিথিল করে দেওয়া হয়েছে, তখন প্রথম পরিকল্পনা মতোই এই পার্কে ঘুরতে এসেছেন। আর এই পার্ক খোলা পেয়ে খুবই আনন্দিত তাঁর গোটা পরিবার। শিশু-সহ বৃদ্ধ মা, স্ত্রী ভীষণ খুশি হয়ছেন। সব মিলিয়ে পার্কে ঘুরে প্রকৃতির সঙ্গে মিশে গিয়ে আনন্দিত সোরেন পরিবার।

ভিডিয়োয় দেখুন: বুধবার থেকে ফের স্বমহিমায় খুলে গেল শিলিগুড়ির বেঙ্গল সাফারি পার্ক

আরও পড়তে পারেন:

জোম্যাটো, সুইগির মতো অনলাইন প্ল্যাটফর্মে খাবার আনানোর খরচ বাড়তে পারে

বড়ো খবর! পরবর্তী বৈঠকেই পেট্রোল, ডিজেলকে জিএসটির আওতায় আনার কথা বিবেচনা করতে পারে কাউন্সিল

ভবানীপুরের বিজেপি প্রার্থী প্রিয়ঙ্কা টিবরেওয়ালের বিরুদ্ধে বিধিভঙ্গের অভিযোগ, জবাব চাইল কমিশন

‘দুয়ারে রেশন’ প্রকল্পে স্থগিতাদেশের আর্জি খারিজ হাইকোর্টে

কোভিড বিধিনিষেধের মেয়াদ বাড়াল রাজ্য, বন্ধ লোকাল ট্রেন

ফিরছে ‘ইয়াস’-এর স্মৃতি, টানা বৃষ্টিতে সুন্দরবনে ক্ষতিগ্রস্ত একাধিক বাঁধ

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন