কলকাতা: যাঁরা গলমন্দ করছিলেন, তাঁরা কি তুষ্ট হলেন? না কি যাঁরা পাশে দাঁড়িয়ে সমর্থন জুগিয়েছিলেন, তাঁরা হতাশ হলেন?

‘হু ইজ কেকে ম্যান’? বা ‘কেকে কে’? ফেসবুক লাইভে এসে জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত সঙ্গীতশিল্পী রূপঙ্কর বাগচীর এই মন্তব্যের পর শুরু হয় বিতর্ক। বিশেষ করে, গত মঙ্গলবার নজরুল মঞ্চে অনুষ্ঠান শেষ করার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই কেকে-র মৃত্যুর ঘটনা রূপঙ্করের উপর আরও বাড়িয়ে তোলে বড়ো অংশের ক্ষোভ। পরিস্থিতি এমন জায়গায় পৌঁছায় যে, গায়ক অভিযোগ করেন, তাঁকে খুনের হুমকিও দেওয়া হয়েছে।

শুক্রবার সাংবাদিক বৈঠকে রূপঙ্কর বলেন, “প্রয়াত কেকে সম্পর্কে আমার ব্যক্তিগত কোনো বিদ্বেষ নেই। থাকার কোনও প্রশ্নও ওঠে না। আমি শুধু ওর কনসার্ট নিয়ে তৈরি হওয়া উন্মাদনা লক্ষ্য করে বলতে চেয়েছিলাম বাঙালি গায়কদের জন্য আপনারা এ রকম দরদ দেখান। সেটা গায়ক হিসেবে আমার কোনো হতাশা থেকে নয়। যা বলেছি, সমষ্টিগত হতাশা থেকে বলেছি। তার পর এমন প্রভাব পড়বে ভাবিনি”।

নিজের সঙ্গীত জীবনে এমন বিভীষিকার মুখোমুখি আগে হননি জানিয়ে রূপঙ্কর বলেন, “মুহূর্তের অসতর্কতার কারণে এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হবে কে জানত। নিজের বক্তব্য ঠিকমতো গুছিয়ে বলতে না পারার কারণেই নিমেষে তৈরি হয়েছে এত ঘৃণা, আক্রোশ, বিরুদ্ধতা। একটা ভিডিয়ো পোস্ট গোটা পরিবারকেই চরম আতংকের মধ্যে ঠেলে দিয়েছে”।

এ দিনের সাংবাদিক বৈঠকে হাতজোড় করে ভুল স্বীকার করেন রূপঙ্কর। প্রয়াত কেকে’র পরিবারের কাছে ক্ষমা চেয়ে নেন। পাশাপাশি বিতর্কিত ওই ভিডিয়োটি ফেসবুক থেকে ডিলিট করে দেন তিনি।

আরও পড়তে পারেন:

রেস্তোঁরার বিলে জোড়া যাবে না সার্ভিস চার্জ, সাফ জানালেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

মাধ্যমিকে অষ্টম ব্রাত্য বসু! ‘আমার থেকে অনেক বেশি মেধাবী এবং গুণী’, প্রতিক্রিয়া শিক্ষামন্ত্রীর

সিঙ্গুরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, পুজো দেওয়ার পর ছোটোদের খাবার পরিবেশন করলেন নিজেই

১০০ দিনে যুদ্ধ, রাশিয়ার হাতে ইউক্রেনের ২০ শতাংশ ভূখণ্ডের নিয়ন্ত্রণ

নাবালিকাকে গাড়িতে গণধর্ষণ, হায়দরাবাদের ভয়ংকর ঘটনায় অভিযুক্তরা ‘রাজনৈতিক ভাবে প্রভাবশালী’ পরিবারের সদস্য

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন