কন্যাশ্রী প্রকল্পের টাকা আত্মসাৎ জয়নগরে, পুলিশের জালে আরও ১

0
[এর আগে ধৃত তরুণ মণ্ডল (৩৭)]

উজ্জ্বল বন্দ্যোপাধ্যায়, জয়নগর: মজিলপুর শ্যামসুন্দর বালিকা বিদ্যালয়ের কন্যাশ্রীর কয়েক লক্ষ টাকা তছরুপ মামলায় আরও একজনকে গ্রেফতার করল জয়নগর থানার পুলিশ।

ধৃতের নাম তরুণ মণ্ডল (৩৭)। ধৃতের বাড়ি জয়নগর মজিলপুর-পুরসভার ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের পশ্চিম পাড়ায়। এই ঘটনার তদন্তে নেমে সোমবার রাতে তরুণকে গ্রেফতার করে জয়নগর থানার পুলিশ। তরুণ এই ঘটনার মূল অভিযুক্ত সন্দীপ রায়ের মামা। সে প্রাইভেট শিক্ষক।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার মজিলপুর শ্যামসুন্দর বালিকা বিদ্যালয়ে কন্যাশ্রীর কয়েক লক্ষ টাকা তছরুপ-কাণ্ডে পুলিশের হাতে ধরা পড়ে ওই স্কুলের প্রাক্তন ডেটা এন্ট্রি অপারেটর সন্দীপ রায় ও তাঁর বাবা অনুপ রায়। এই ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ সন্দীপের মামা তরুণকে গ্রেফতার করল। তরুণ এই কাজে ভাগ্নেকে সহায়তা করতেন বলে পুলিশের ধারণা।

ধৃতকে মঙ্গলবার দুপুরে বারুইপুর মহকুমা আদালতে তোলা হলে বিচারক ৫ দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেন।

Shyamsundar

প্রসঙ্গত, জয়নগরের মজিলপুর শ্যামসুন্দর বালিকা বিদ্যালয়ে কন্যাশ্রী প্রকল্পে প্রায় ৮ লক্ষ টাকা আত্মসাতের ঘটনায় বারুইপুর মহকুমা শাসক সুমন পোদ্দার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। এই নির্দেশেই গত শনিবার স্কুলে যান ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট সংলাপ বন্দোপাধ্যায়, বারুইপুর মহকুমার কন্যাশ্রী প্রকল্পের ডেটা ম্যানেজার বিজয় দাস।

কী ভাবে আত্মসাৎ ৮ লক্ষ টাকা?

[স্কুলে পুলিশ। ফাইল ছবি]

ডেটা এন্ট্রি অপারেটর হয়ে স্কুলের কন্যাশ্রী প্রকল্পের টাকা নিজের ও পরিচিতজনের অ্যাকাউন্টে ঢুকিয়ে প্রায় ৮ লক্ষ টাকা আর্থিক তছরুপের দায়ে শুক্রবার সকালে জয়নগর থানার পুলিশ গ্রেফতার করে ছেলে ও বাবাকে। এই ঘটনায় শোরগোল পড়ে গিয়েছে রাজনৈতিক মহলে। বিস্তারিত পড়ুন এখানে: সরষের মধ্যেই ভূত! কন্যাশ্রীর প্রায় ৮ লক্ষ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে গ্রেফতার পিতা-পুত্র

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন