Connect with us

দঃ ২৪ পরগনা

নিরন্ন মানুষের পাশে ‘সহমর্মী’ ও ভাঙড় কলেজের এনসিসি শাখা

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: করোনাভাইরাসের (coronavirus) সংক্রমণ রুখতে দেশ জুড়ে লকডাউন আরও দু’ সপ্তাহ বাড়ানো হয়েছে। অর্থাৎ আপাতত পুরো এপ্রিল মাস লকডাউন থাকছে। এবং স্বাভাবিক ভাবেই পশ্চিমবঙ্গ তার ব্যতিক্রম নয়।

এই পরিস্থিতিতে সব চেয়ে বেশি দুর্দশায় পড়েছেন তাঁরা, যাঁদের নির্দিষ্ট রোজগার নেই। ভিক্ষাবৃত্তি বা অন্যের সাহায্যই তাঁদের ভরসা। এখন এই লকডাউনে তাঁরাও ঘরবন্দি, ফলে ভিক্ষাও জুটছে না। এখন এঁরা নির্ভর করে আছেন বিভিন্ন সংগঠনের দেওয়া ত্রাণের উপর।

এমনই একটি সংগঠন ‘গড়িয়া সহমর্মী’(Garia Sahamarmi)। তারা লকডাউনের শুরু থেকেই নিরন্ন মানুষদের হাতে লাগাতার ত্রাণ তুলে দিচ্ছে।

এ বার ‘সহমর্মী’ চলে গিয়েছিল দক্ষিণ ২৪ পরগণার ভাঙড়ে, জানালেন সংস্থার সাধারণ সম্পাদক সুব্রত গোস্বামী। এ কাজে তারা পাশে পেয়েছিল ভাঙড় কলেজের এনসিসি ক্যাডেটদের (Bhangar College NCC unit) ।

সুব্রতবাবু জানান, ভাঙড় অঞ্চলের বিভিন্ন গ্রামে ঘুরে ঘুরে ‘সহমর্মী’র কর্মী ও এনসিসি ক্যাডেটরা নিরন্ন মানুষের হাতে তুলে দিয়েছেন নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যসামগ্রী। প্রত্যেকটি পরিবারকে দেওয়া হয়েছে ১০ কিলো চাল, ২ কিলো ডাল, ২ কিলো সরষের তেল, ৫ কিলো আলু, ১ কিলো পেঁয়াজ, ১ কিলো চিনি, ২ কিলো মুড়ি, ১ কিলো চিঁড়ে ও ৫০০ গ্রাম সয়াবিন।     

মানুষগুলি যে কী দুর্দশায় রয়েছেন, তা চোখে না দেখলে বিশ্বাস করা যায় না। সুব্রতবাবু বললেন, নিরন্ন মানুষের মুখে খাবার তুলে দিয়ে তাঁরা ঈশ্বরেরই আরাধনা করছেন।            

Advertisement
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দঃ ২৪ পরগনা

সুন্দরবন সেই তিমিরেই! ৫টি দ্বীপে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিল ‘গড়িয়া সহমর্মী’

বাতাসে যখন পুজোর গন্ধ, তখন কেমন আছেন কুমিরমারি, মোল্লাখালি, সাতজেলিয়া, রাঙাবেলিয়া, লাহিড়ীপুরের অসহায় আত্মজনেরা?

Published

on

সুন্দরবনের প্রত্যন্ত অঞ্চলে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ 'সহমর্মী'র তরফে।

সুব্রত গোস্বামী

“কস্তুরী-মৃগের নিজের দেহের মধ্যেই আছে কস্তুরী আবাস। কিন্তু সে মনে করে যে কস্তুরীর সুগন্ধ বাইরে থেকে ভেসে আসছে। তাই সে অস্থিরভাবে চারিদিকে ঘুরে বেড়ায়।”

এই প্রতিবেদন লেখার সময় মনে হল, সর্বপল্লী রাধাকৃষ্ণণের এই কথাই এই প্রতিবেদনের সূচনামুখ হিসাবে সুপ্রযুক্ত। আসলে মানুষের হৃদয়ের মধ্যেই আছেন ঈশ্বর/আল্লা/যিশু। কিন্তু আমরা এই ঈশ্বরের আরাধনা না করে মন্দির, মসজিদ, গির্জায় ঘুরে বেড়াই পরমেশ্বরের সন্ধানে।

এই ঈশ্বরের আরাধনায় ‘গড়িয়া সহমর্মী’ শনিবার আবার পৌঁছে গিয়েছিল সুন্দরবনের প্রত্যন্ত অঞ্চলে। এই নিয়ে বেশ কয়েক বার ‘সহমর্মী’ পৌঁছে গেল সুন্দরবনে। বাতাসে যখন পুজোর গন্ধ, তখন কেমন আছেন কুমিরমারি, মোল্লাখালি, সাতজেলিয়া, রাঙাবেলিয়া, লাহিড়ীপুরের অসহায় আত্মজনেরা?

‘সহমর্মী’র ৩৫ জন ক্যাডেট আগের দিন রাতেই পৌঁছে গিয়েছিলেন গদখালি। সেখান থেকে শনিবার ভোরে ৪টি লঞ্চে ১৮৫৬৪ কিলো খাদ্যসামগ্রী নিয়ে রওনা হয়ে যান সুন্দরবনের ৫টি দ্বীপের উদ্দেশে। সেই সব দ্বীপে পৌঁছে দেখা গেল, ঘূর্ণিঝড় উম্পুন এবং সেই সঙ্গে করোনার কারণে টানা লকডাউন, এই জোড়া আঘাতের ঘা এখনও দগদগে সুন্দরবনের শরীরে।

অসহায় আত্মজনের হাতে তুলে দেওয়া হল খাদ্যসামগ্রী।

যতই আশ্বিন আসুক, ভোরে শিউলি ফুটুক, তাদের অবস্থার কোনো উন্নতি চোখে পড়ল না। একটু খাবারের জন্য ক্ষুধার্ত অসহায় আত্মজনেরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে জঙ্গলে যাচ্ছেন মাছ, মধু, কাঁকড়া সংগ্রহ করতে। প্রায় প্রতি সপ্তাহেই বাঘ বা কুমিরের আক্রমণে জীবন হারাচ্ছেন এই মানুষেরা।

‘গড়িয়া সহমর্মী’র উদ্যোগে ও কগনিজ্যান্ট-এর (Cognizant) আর্থিক সহায়তায় এই সমস্ত অসহায় আত্মজনের হাতে তুলে দেওয়া হল খাদ্যসামগ্রী। ১৪২৮টি পরিবারের হাতে দেওয়া হল চাল, ডাল, আটা, তেল, চিনি, ছোলা, নুন, মশলা, চিঁড়ে ও সোয়াবিন।

দেবীপক্ষের শুরুতে এ ভাবেই ‘গড়িয়া সহমর্মী’ জীবন্ত ঈশ্বরদের চরণে নিবেদন করল পুজোর নৈবেদ্য। ‘মা’ সবাই কে ভালো রাখুন, রইল এই কামনা।

খবর অনলাইনে আরও পড়তে পারেন

জাতীয় গড়ের তুলনায় রাজ্যে সুস্থতার হার অনেকটাই বেশি, কেন্দ্রের প্রশংসা

Continue Reading

দঃ ২৪ পরগনা

সুন্দরবন বাঁচাতে নিজের হাতেই ম্যানগ্রোভের চারা বসালেন বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়

Published

on

rajib-banerjee

উজ্জ্বল বন্দ্যোপাধ্যায়, সুন্দরবন : সুন্দরবনের উপর দিয়ে আয়লা, বুলবুল, উম্পুন সহ বহু ঝড় বয়ে গেছে। তাছাড়া প্রতিনিয়ত বিভিন্ন কোটালে ভেঙে যাচ্ছে সুন্দরবনের নদী বাঁধ। তাই এই সুন্দরবনকে বাঁচাতে এবার পাঁচ কোটি ম্যানগ্রোভ গাছ রোপণ করার কাজ শুরু করেছে বন দফতর।

সোমবার সুন্দরবনে এসে বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় নিজের হাতে এই গাছ বসানোর কর্মসূচিতে অংশ নেন। এদিন তিনি সুন্দরবনে উপস্থিত হয়ে গোসাবার কুমিরমারিতে নিজের হাতে ম্যানগ্রোভ রোপন করে সুন্দরবন কে রক্ষা করার বার্তা দেন।

তিনি বলেন, সুন্দরবনকে রক্ষা করতে পাঁচ কোটি ম্যানগ্রোভ গাছ লাগানো হবে। এই প্রকল্প মুখ্যমন্ত্রী নিজে ঘোষণা করেছিলেন। এ দিন তিনি সেই কাজ পরিদর্শন করতে এসেছেন বলে জানান।

গত ২০ শে মে ঘূর্ণিঝড় উম্পুনের তান্ডবে ধ্বংসলীলায় পরিণত হয়েছিল সুন্দরবন। নদী বাঁধ ভাঙা থেকে শুরু করে ম্যানগ্রোভ গাছের উপরে উম্পুনের চরম প্রভাব পড়ে।

মূলত প্রাকৃতিক ঝড়ঝঞ্জা থেকে সুন্দরবনকে রক্ষা করতে গোটা সুন্দরবন জুড়ে বিভিন্ন জাতির ম্যানগ্রোভ গাছ লাগানোর উদ্যোগ নিয়েছে রাজ্য সরকার।

বন মন্ত্রী রাজীব বন্দোপাধ্যায় দফায় দফায় সুন্দরবনে এসে সেই কাজ পরিদর্শন করে সুন্দরবনকে রক্ষা করার বার্তা দেন। পাশাপাশি তিনি মৎস্যজীবী পরিবারকে বনে যাওয়া আটকাতে তাঁদের পরিবারের হাতে গ্যাস সিলিন্ডারও তুলে দেন।

মৎস্যজীবীদের হাতে মাছের চারা তুলে দেন তাঁরা যাতে জীবনের ঝুঁকি না নিয়ে জঙ্গলে যান। বাড়ির কাছেই পুকুরে মাছ চাষ করার পরামর্শ দেন তিনি ।

সুন্দরবনকে বাঁচাতে রাজ্য সরকার কী কী করছে এদিন তাও তুলে ধরেন বনমন্ত্রী।

আরও পড়ুন

দক্ষিণবঙ্গে বর্ষার নিষ্ক্রিয়তা কি মঙ্গলবার কাটবে?

Continue Reading

দঃ ২৪ পরগনা

সুন্দরবনে বাঘের হানায় মৎস্যজীবীদের মৃত্যুমিছিল ঠেকাতে শুরু বোট নজরদারি

শুধু লকডাউনের মধ্যেই প্রায় ১৩ জন মৎস্যজীবীর মৃত্যু হয়েছে বাঘের হানায়।

Published

on

উজ্জ্বল বন্দ্যোপাধ্যায়, সুন্দরবন: লকডাউনের শুরু থেকে সুন্দরবনে বাঘের হানায় মৎস্যজীবীদের মৃত্যুর সংখ্যা ক্রমশ বাড়তে থাকায় নজরদারি ও সচেতনতা বাড়াতে নদীপথে ১০টি বোট নামিয়ে তদারকি শুরু করেছে সুন্দরবন ব্যাঘ্র প্রকল্প।

সুন্দরবনে এক দিকে যেমন মানুষের বাস, তেমনই ম্যানগ্রোভে ঘেরা জঙ্গল আবার রয়েল বেঙ্গল টাইগারের। জীবন-জীবিকার স্বার্থে এখানকার অসহায় মানুষকে আজও নদী ও খাঁড়িতে মাছ, কাঁকড়া ধরতে হয়। প্রতি বছরই বহু মানুষের অকালে জীবন যায় বাঘের হানায়। বৈধ অনুমতি থাকলে মৃত কিংবা আহতের পরিবার সরকারি ক্ষতিপূরণ পেলেও বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই বাপ-ঠাকুরদার মতোই অনুমতি ব্যতিরেকে নদী-খাঁড়িতে গিয়ে জীবন খোয়াতে হয় একাংশকে। পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারীর অকাল মৃত্যুতে চরম দুর্ভোগে পড়ে গোটা পরিবার।

[গত ১২ আগস্ট মৃত মৎস্যজীবী হরিপদ মণ্ডল (৪৫)]

এমনই দুর্বিষহ অবস্থাই রোজনামচা সুন্দরবনের গোসাবা, বাসন্তী, রায়দিঘি, কুলতলি, হিঙ্গলগঞ্জ এলাকার মৎস্যজীবীদের। এক দশক আগের আয়লা কিংবা বুলবুল ও সাম্প্রতিককালের উম্পুন ঘূর্ণিঝড়ে অর্থনৈতিক মেরুদণ্ড ভেঙে পড়েছে সুন্দরবনবাসীর। ‘নুন আনতে পান্তা ফুরোয়’ পরিবারগুলিতে অনেকেই করোনার আবহে লকডাউনের দরুন অভিবাসী শ্রমিকের কাজ হারিয়ে গ্রামে ফিরে এসেছেন। শুধু পেটের তাগিদেই অনেকেই আবার পুরনো পেশাকে বেছে নিয়ে নদীতে, খাঁড়িতে মাছ,কাঁকড়া ধরতে গিয়ে বাঘের শিকারে পরিণত হচ্ছেন।

বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই বাপ-ঠাকুরদার মতোই অনুমতি ব্যতিরেকে নদী-খাঁড়িতে গিয়ে জীবন খোয়াতে হয় একাংশকে। পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারীর অকাল মৃত্যুতে চরম দুর্ভোগে পড়ে গোটা পরিবার।

পরিসংখ্যানে জানা গিয়েছে, শুধু লকডাউনের মধ্যেই প্রায় ১৩ জন মৎস্যজীবীর মৃত্যু হয়েছে বাঘের হানায়। যদিও মৃতদের অধিকাংশই অনুমতি ছাড়াই গিয়েছিল সেই কাজে। ফলে নিজেদের অকাল মৃত্যুর পাশাপাশি চরম সংকটে পড়েছে তাঁদের পরিবারগুলি। এঁদের মৃত্যুর ঘটনা বেড়ে চলায় উদ্বিগ্ন বনমন্ত্রী থেকে সুন্দরবন ব্যাঘ্র প্রকল্পের আধিকারিকরাও।

[ গত ৬ সেপ্টেম্বর বাঘের কামড়ে মৃত মৎস্যজীবী গোপাল বৈদ্য (৫৪)-র পরিবার কান্নায় ভেঙে পড়েছেন।]

চলতি সপ্তাহেই নতুন করে চার দিনে তিন জন মৎস্যজীবীর মৃত্যু ঘটেছে। জল-জঙ্গল নির্ভরশীল মৎস্যজীবীদের নৌকা নিয়ে নদী খাঁড়ির গভীরে ঢুকে যাওয়া-সহ এক গুচ্ছ বিধিনিষেধ সম্পর্কে সচেতন করার পথে হাটার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যাতে মাছ,কাঁকড়া ধরতে যাওয়া মৎস্যজীবীদের ওপর নজরদারি চালানোর পাশাপাশি সচেতন করা যায়।

সোমবারই সুন্দরবন ব্যাঘ্র প্রকল্পের অন্তর্গত বসিরহাট রেঞ্জের ঝিলা ২ ও ৪, সজনেখালি রেঞ্জের অন্তর্গত ঝিলা ৬ নম্বর কম্পার্টমেন্ট এলাকায় পাঁচটি করে মোট দশটি টহলদারি বোর্ড মোতায়েন করা হয়েছে। সেই বোটগুলিতে ব্যাঘ্র প্রকল্পের কর্মীদের পাশাপাশি জয়েন্ট ফরেস্ট মানেজমেন্ট কমিটি (যৌথ বন পরিচালনা সমিতির)সদস্যদেরকেও এক সঙ্গে টহলদারি কাজে লাগানো হয়েছে।

[গত ৩ সেপ্টেম্বর মৃত মৎস্যজীবী বাবুরাম রপ্তান (৩২)]

তবে বিশেষ করে নজর রাখা হচ্ছে যাতে বৈধ অনুমতি ছাড়াই কেউ খাঁড়িতে প্রবেশ করতে না পারে। সেই সঙ্গে নদীর জলেই দোন ফেলেই কাঁকড়া ধরার জন্য উৎসাহ দেওয়া হচ্ছে। কারণ খাঁড়িতে নৌকা নিয়ে ঢুকে বাঘের নাগালের মধ্যে গিয়েই নিজেদের মৃত্যু ডেকে আনছেন এঁরা। অনেকে আবার নিয়ম ছাড়াই জঙ্গলে জ্বালানির কাঠ সংগ্রহ করতে যাচ্ছে। যাতে আর কেউই সরকারি নির্দেশ অমান্য না করে সেই জন্য পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

‘নুন আনতে পান্তা ফুরোয়’ পরিবারগুলিতে অনেকেই করোনার আবহে লকডাউনের দরুন অভিবাসী শ্রমিকের কাজ হারিয়ে গ্রামে ফিরে এসেছেন।

একই সঙ্গে শুরু হয়েছে সতর্কতামূলক লিফলেট বিলি ও মাইকিং। এ দিন বনকর্মীদের তরফে হরিণভাঙা নদী,দত্ত নদীতে সেই সচেতনতা বার্তা দেওয়া হয় সাধারণ মৎস্যজীবীদের।

[গত ৪ সেপ্টেম্বর মৃত মৎস্যজীবী রেজাউল গাজি ওরফে মুন্না (৩২)।]

ব্যাঘ্র প্রকল্পের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন গোসাবার লাহিড়িপুর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার যৌথ বন পরিচালনা কমিটির দায়িত্বে থাকা হিমাংশু মণ্ডল। তিনি বলেন,”সাম্প্রতিক সময়ে বেশ কয়েকজনের মৃত্যুর ঘটনায় আমরাও উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছি। মানুষকে নানা ভাবে বোঝানোর চেষ্টা চলছে। সুন্দরবন ব্যাঘ্র প্রকল্পের এই সচেতনতামূলক উদ্যোগ মৎস্যজীবীদের বোঝাতে পারলে অনেকটাই সুবিধা হবে”।

এ প্রসঙ্গে সুন্দরবন ব্যাঘ্র প্রকল্পের ক্ষেত্র অধিকর্তা তাপস দাস বলেন,”আগে মানুষকে সচেতন হতে হবে। কারণ জীবিকার থেকে জীবনটাই বড়ো। তাই বাঘের ডেরায় গিয়ে মাছ, কাঁকড়া না ধরার থেকে নদীতে ধরলে বাঘের হাত থেকেই নিজের জীবনকে রক্ষা করা যাবে। বাঁচবে পরিবারও। সেই কারণেই আমরা ১০টি বোটকে নদীপথে সচেতনতার বার্তা ছড়িয়ে দেওয়ার কাজে লাগিয়েছি। দফতরের কর্মীদের সঙ্গে থেকে সেই কাজ করছেন যৌথ বন পরিচালনা কমিটির সদস্যরাও”।

আরও পড়তে পারেন: সুন্দরবনে বাঘের হানায় মৃত মৎস্যজীবী

সরকারি আধিকারিকদের কথায়, নিয়ম মেনে চললে বাঘ ও মৎস্যজীবী- উভয়েই বাঁচবে।

Continue Reading
Advertisement
দেশ35 mins ago

৬ বিধায়ক, ৩ সাংসদ এবং প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি-সহ আর যে সব ‘ভিভিআইপি’ করোনার শিকার

দেশ2 hours ago

রাজ্যসভায় বিক্ষোভ, নাটকীয়তার মধ্যেই পাশ হল দু’টি কৃষি বিল!

দেশ3 hours ago

কৃষি বিল নিয়ে উত্তপ্ত রাজ্যসভা, চরম বিশৃঙ্খলা

mamata banerjee
রাজ্য3 hours ago

সোমবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়ের উত্তরবঙ্গ সফর স্থগিত

দেশ4 hours ago

‘কৃষকের মৃত্যু পরোয়ানা’য় স্বাক্ষর করব না, রাজ্যসভায় কৃষি বিল নিয়ে বলল কংগ্রেস

দেশ5 hours ago

ব্যথার কারণ খুঁজতে হল এক্স-রে, বন্দির মলদ্বারে হদিশ মিলল চারটি মোবাইলের

দেশ7 hours ago

টানা দ্বিতীয় দিনে নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যাকে ছাপিয়ে গেল সুস্থতা

দঃ ২৪ পরগনা7 hours ago

সুন্দরবন সেই তিমিরেই! ৫টি দ্বীপে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিল ‘গড়িয়া সহমর্মী’

দেশ8 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৯২৬০৫, সুস্থ ৯৪৬১২

শিল্প-বাণিজ্য2 days ago

এসবিআই এটিএমে টাকা তোলার নিয়ম বদলে গেল! দেখে নিন ওটিপি-ভিত্তিক পদ্ধতির খুঁটিনাটি বিষয়

বিজ্ঞান3 days ago

রাশিয়ার করোনা ভ্যাকসিনে সাত জনের মধ্যে এক জনের শরীরে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া!

Wriddhiman Saha
ক্রিকেট3 days ago

হায়দরাবাদের প্রথম একাদশে কি জায়গা পাবেন ঋদ্ধিমান সাহা?

kolkata knightriders
ক্রিকেট3 days ago

আইপিএলে কলকাতা নাইটরাইডার্সের সেরা প্রথম একাদশ কেমন হতে পারে?

কলকাতা2 days ago

কয়েকটি স্টেশনে ই-পাসের সংখ্যা বাড়াচ্ছে কলকাতা মেট্রো

Shreyas Iyer
ক্রিকেট2 days ago

আইপিএলের অন্যতম সেরা বোলিং লাইনআপ কি দিল্লি ক্যাপিটাল্‌সের?

MS Dhoni
ক্রিকেট2 days ago

চেন্নাই সুপারকিংসের আদর্শ লাইনআপে কত নম্বরে ব্যাট করতে পারেন মহেন্দ্র সিংহ ধোনি?

কেনাকাটা

কেনাকাটা1 day ago

সংসারের খুঁটিনাটি সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে এই জিনিসগুলির তুলনা নেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিজের ও ঘরের প্রয়োজনে এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি না থাকলে প্রতি দিনের জীবনে বেশ কিছু সমস্যার...

কেনাকাটা4 days ago

ঘরের জায়গা বাঁচাতে চান? এই জিনিসগুলি খুবই কাজে লাগবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ঘরের মধ্যে অল্প জায়গায় সব জিনিস অগোছালো হয়ে থাকে। এই নিয়ে বারে বারেই নিজেদের মধ্যে ঝগড়া লেগে...

কেনাকাটা1 week ago

রান্নাঘরের জনপ্রিয় কয়েকটি জরুরি সামগ্রী, আপনার কাছেও আছে তো?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের এমন কিছু সামগ্রী আছে যেগুলি থাকলে কাজ করাও যেমন সহজ হয়ে যায়, তেমন সময়ও অনেক কম খরচ...

কেনাকাটা2 weeks ago

ওজন কমাতে ও রোগ প্রতিরোধশক্তি বাড়াতে গ্রিন টি

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ওজন কমাতে, ত্বকের জেল্লা বাড়াতে ও করোনা আবহে যেটি সব থেকে বেশি দরকার সেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা...

কেনাকাটা2 weeks ago

ইউটিউব চ্যানেল করবেন? এই ৮টি সামগ্রী খুবই কাজের

বহু মানুষকে স্বাবলম্বী করতে ইউটিউব খুব বড়ো একটি প্ল্যাটফর্ম।

কেনাকাটা3 weeks ago

ঘর সাজানোর ও ব্যবহারের জন্য সেরামিকের ১৯টি দারুণ আইটেম, দাম সাধ্যের মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘর সাজাতে কার না ভালো লাগে। কিন্তু তার জন্য বাড়ির বাইরে বেরিয়ে এ দোকান সে দোকান ঘুরে উপযুক্ত...

কেনাকাটা4 weeks ago

শোওয়ার ঘরকে আরও আরামদায়ক করবে এই ৮টি সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : সারা দিনের কাজের পরে ঘুমের জায়গাটা পরিপাটি হলে সকল ক্লান্তি দূর হয়ে যায়। সুন্দর মনোরম পরিবেশে...

kitchen kitchen
কেনাকাটা1 month ago

রান্নাঘরের এই ৮টি জিনিস কাজ অনেক সহজ করে দেবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজকাল রান্নাঘরের প্রত্যেকটি কাজ সহজ করার জন্য অনেক উন্নত ব্যবস্থা এসে গিয়েছে। তা হলে ঘণ্টার পর ঘণ্টা কষ্ট...

care care
কেনাকাটা1 month ago

চুল ও ত্বকের বিশেষ যত্নের জন্য ১০০০ টাকার মধ্যে এই জিনিসগুলি ঘরে রাখা খুবই ভালো

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পার্লার গিয়ে ত্বকের যত্ন নেওয়ার সময় অনেকেরই নেই। সেই ক্ষেত্রে বাড়িতে ঘরোয়া পদ্ধতি অনেকেই অবলম্বন করেন। বাড়িতে...

কেনাকাটা1 month ago

ঘর ও রান্নাঘরের সরঞ্জাম কিনতে চান? অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ৫০% পর্যন্ত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্ক : অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ঘর আর রান্না ঘরের একাধিক সামগ্রিতে প্রচুর ছাড়। এই সেলে পাওয়া যাচ্ছে ওয়াটার...

নজরে