নাতির হাতে খুন দাদু, চাঞ্চল্য জয়নগরে

0

উজ্জ্বল বন্দ্যোপাধ্যায়, জয়নগর: সম্পত্তি ও পারিবারিক বেশ কিছু বিষয় নিয়ে বচসা ও মারপিটের জেরে দাদু খুন হলেন নাতির হাতে। এই মর্মান্তিক ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল এলাকায়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেল, জয়নগর মজিলপুর পুরসভার ১২ নম্বর ওয়ার্ডের গহেরপুর সরদার পাড়ার বাসিন্দা উত্তান সরদার বহু দিন ধরে জয়নগর স্টেশন বাজারে মাছের ব্যবসা করতেন। বেশ কিছু দিন ধরে পারিবারিক বেশ কিছু বিষয় নিয়ে দু’টি পরিবারের মধ্যে ঝামেলা,গালাগালি চলছিল। আর শুক্রবার বিকালে সেই গন্ডগোল চরম পর্যায়ে পৌঁছায়। গন্ডগোল চলাকালীন নাতি সঞ্জয় সরদার হাতের কাছে থাকা লাঠি জাতীয় কিছু নিয়ে দাদুর উপর হামলা করে। আর তাতেই বাড়ির উঠোনেই জ্ঞান হারান উত্তান।

তৎক্ষণাৎ তাঁকে নিমপীঠ রামকৃষ্ণ গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা বারুইপুর মহকুমা হাসপাতালে রেফার করেন। সেখানে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন। আর এই ঘটনা জানাজানি হওয়ার পরই প্রতিবেশীরা মৃতের নাতি সঞ্জয়কে আটকে রেখে পুলিশে খবর দেয়।

ঘটনার খবর পেয়ে জয়নগর থানার পুলিশ গিয়ে সঞ্জয় সরদারকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে। ধৃতকে শনিবার বারুইপুর মহকুমা আদালতে পাঠানো হয়। মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়ে তদন্ত শুরু করেছে জয়নগর থানার পুলিশ।

শনিবার দুপুরে মৃতের বাড়িতে গিয়ে দেখা গেল, উঠোনে রক্তের ছাপ এখনও রয়েছে। মৃতের স্ত্রী পান্না সরদার কাঁদতে কাঁদতে বলেন, “আমি কলকাতায় ঠিকা কাজে যাই। বিকেলে বাড়িতে ফিরে দেখি এই অবস্থা। ধৃত সঞ্জয় আমার ভাসুরের ছেলের ছেলে। সম্পর্কে আমাদের নাতি হয়। পাশেই থাকে। বেশ কিছু দিন ধরে ওরা আমাদের সঙ্গে কোনো না কোনো কারণে ঝগড়াঝাটি করত। তবে এত বড়ো ঘটনা কোনো দিন ঘটেনি আগে। আমরা এর বিচার চাই। আমার স্বাামীকে ওরা ইচ্ছাকৃত ভাবে মেরে ফেলেছে”।

জয়নগর থানা সূত্রে খবর, পুলিশ ধৃতকে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে।

আরও পড়তে পারেন: 

কাশীপুরের পর খেজুরি, ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার ঘিরে রাজনৈতিক চাপানউতোর

ছত্তীসগঢ় সরকারের প্রস্তাবে সাড়া দিয়ে আলোচনায় প্রস্তুত মাওবাদীরা, রইল একাধিক শর্ত

হাজারের উপর চড়ল রান্নার গ্যাস, জন-যন্ত্রণা নিয়ে মমতার নিশানায় কেন্দ্র

জামশেদপুরে টাটা ইস্পাত কারখানায় আচমকা বিস্ফোরণ! আহত অন্তত ৩, দেখুন ভিডিয়োয়

সৌরভ রাজনীতিতে এলে মানুষের জন্য ভালো কাজই করবেন, জল্পনা উস্কে মন্তব্য ডোনা গঙ্গোপাধ্যায়ের

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন