Connect with us

দঃ ২৪ পরগনা

বারুইপুরে সাড়ে চারশোর বেশি বিজেপি কর্মী যোগ দিলেন তৃণমূলে

সামনে ভোট, দলবদলের হিড়িক।

Published

on

ক্যানিং বাসস্ট্যান্ডের অনুষ্ঠান।

ওয়েবডেস্ক: এ বার ভাঙন বারুইপুরে। রবিবার দক্ষিণ ২৪ পরগনার (South 24 Pargana) বারুইপুরে (Baruipur) গেরুয়া শিবির থেকে তৃণমূলে (TMC) যোগ দিলে সাড়ে চারশোর বেশি কর্মী। এ দিনের ঘটনায়, আগামী ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের আগে এলাকায় রাজ্যের শাসক দলের ভিত আরও কিছুটা মজবুত হল বলেই ধরে নেওয়া হচ্ছে।

এ দিন সকালে ক্যানিং বাসস্ট্যান্ডে তৃণমূলের তরফে একটি সভায় এই দলবদল হয়। উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের দুই সদস্য তপন সাহা এবং সুশীল সরদার। এ ছাড়া স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধানরাও হাজির ছিলেন। মঞ্চে ওই দলত্যাগী বিজেপি (BJP) কর্মীদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের কো-অর্ডিনেটর পরেশরাম দাস।

তৃণমূলের দাবি,ক্যানিং-১ ব্লকের গোপালপুর, নিকারিঘাটা, মাতলা-১, তালদি এবং বাঁশড়া গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার সাড়ে চারশোর বেশি বিজেপি কর্মী এ দিন তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন।

একই সঙ্গে তৃণমূল নেতৃত্ব দাবি করেন, জেলার আরও কয়েক হাজার বিজেপি কর্মী তৃণমূলে যোগ দেওয়ার অপেক্ষায় রয়েছেন। শীঘ্রই তাঁরা দলবদল করবেন।

বিজেপির দলত্যাগী কর্মীরা তৃণমূলে যোগ দিয়ে বলেন, “বিজেপি বাংলার সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করছে। যে কারণে তাঁরা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নমূলক কাজে শামিল হতেই দলবদলের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন”।

সামনে ভোট, দলবদলের হিড়িক

গত শুক্রবার সোনারপুরের শতাধিক বিজেপি কর্মী তৃণমূলে যোগ দেন বলে দাবি করে শাসক শিবির। গত বৃহস্পতিবার বিকেলে পুরুলিয়ার রঘুনথপুর শহরে পুরসভার কমিউনিটি হলে বিধানসভা এলাকার প্রায় তিনশো পরিবার বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন। বুধবার নরেন্দ্র মোদীর অযোধ্যায় রামমন্দিরের ভূমিপুজোর পরের দিনই রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী হুমায়ুন কবীর আবার তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন।

গত সপ্তাহে বহরমপুরে তৃণমূল নেতা শৌমিক হোসেনের উপস্থিতিতে কয়েকশো বিজেপি কর্মী তৃণমূলে যোগ দেন। অন্য দিকে, সম্প্রতি আসানসোলের বিশিষ্ট সমাজকর্মী চন্দ্রশেখর কুণ্ডুও যোগ দিয়েছেন তৃণমূলে।

দঃ ২৪ পরগনা

সুন্দরবন বাঁচাতে নিজের হাতেই ম্যানগ্রোভের চারা বসালেন বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়

Published

on

rajib-banerjee

উজ্জ্বল বন্দ্যোপাধ্যায়, সুন্দরবন : সুন্দরবনের উপর দিয়ে আয়লা, বুলবুল, উম্পুন সহ বহু ঝড় বয়ে গেছে। তাছাড়া প্রতিনিয়ত বিভিন্ন কোটালে ভেঙে যাচ্ছে সুন্দরবনের নদী বাঁধ। তাই এই সুন্দরবনকে বাঁচাতে এবার পাঁচ কোটি ম্যানগ্রোভ গাছ রোপণ করার কাজ শুরু করেছে বন দফতর।

সোমবার সুন্দরবনে এসে বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় নিজের হাতে এই গাছ বসানোর কর্মসূচিতে অংশ নেন। এদিন তিনি সুন্দরবনে উপস্থিত হয়ে গোসাবার কুমিরমারিতে নিজের হাতে ম্যানগ্রোভ রোপন করে সুন্দরবন কে রক্ষা করার বার্তা দেন।

তিনি বলেন, সুন্দরবনকে রক্ষা করতে পাঁচ কোটি ম্যানগ্রোভ গাছ লাগানো হবে। এই প্রকল্প মুখ্যমন্ত্রী নিজে ঘোষণা করেছিলেন। এ দিন তিনি সেই কাজ পরিদর্শন করতে এসেছেন বলে জানান।

গত ২০ শে মে ঘূর্ণিঝড় উম্পুনের তান্ডবে ধ্বংসলীলায় পরিণত হয়েছিল সুন্দরবন। নদী বাঁধ ভাঙা থেকে শুরু করে ম্যানগ্রোভ গাছের উপরে উম্পুনের চরম প্রভাব পড়ে।

মূলত প্রাকৃতিক ঝড়ঝঞ্জা থেকে সুন্দরবনকে রক্ষা করতে গোটা সুন্দরবন জুড়ে বিভিন্ন জাতির ম্যানগ্রোভ গাছ লাগানোর উদ্যোগ নিয়েছে রাজ্য সরকার।

বন মন্ত্রী রাজীব বন্দোপাধ্যায় দফায় দফায় সুন্দরবনে এসে সেই কাজ পরিদর্শন করে সুন্দরবনকে রক্ষা করার বার্তা দেন। পাশাপাশি তিনি মৎস্যজীবী পরিবারকে বনে যাওয়া আটকাতে তাঁদের পরিবারের হাতে গ্যাস সিলিন্ডারও তুলে দেন।

মৎস্যজীবীদের হাতে মাছের চারা তুলে দেন তাঁরা যাতে জীবনের ঝুঁকি না নিয়ে জঙ্গলে যান। বাড়ির কাছেই পুকুরে মাছ চাষ করার পরামর্শ দেন তিনি ।

সুন্দরবনকে বাঁচাতে রাজ্য সরকার কী কী করছে এদিন তাও তুলে ধরেন বনমন্ত্রী।

আরও পড়ুন

দক্ষিণবঙ্গে বর্ষার নিষ্ক্রিয়তা কি মঙ্গলবার কাটবে?

Continue Reading

দঃ ২৪ পরগনা

সুন্দরবনে বাঘের হানায় মৎস্যজীবীদের মৃত্যুমিছিল ঠেকাতে শুরু বোট নজরদারি

শুধু লকডাউনের মধ্যেই প্রায় ১৩ জন মৎস্যজীবীর মৃত্যু হয়েছে বাঘের হানায়।

Published

on

উজ্জ্বল বন্দ্যোপাধ্যায়, সুন্দরবন: লকডাউনের শুরু থেকে সুন্দরবনে বাঘের হানায় মৎস্যজীবীদের মৃত্যুর সংখ্যা ক্রমশ বাড়তে থাকায় নজরদারি ও সচেতনতা বাড়াতে নদীপথে ১০টি বোট নামিয়ে তদারকি শুরু করেছে সুন্দরবন ব্যাঘ্র প্রকল্প।

সুন্দরবনে এক দিকে যেমন মানুষের বাস, তেমনই ম্যানগ্রোভে ঘেরা জঙ্গল আবার রয়েল বেঙ্গল টাইগারের। জীবন-জীবিকার স্বার্থে এখানকার অসহায় মানুষকে আজও নদী ও খাঁড়িতে মাছ, কাঁকড়া ধরতে হয়। প্রতি বছরই বহু মানুষের অকালে জীবন যায় বাঘের হানায়। বৈধ অনুমতি থাকলে মৃত কিংবা আহতের পরিবার সরকারি ক্ষতিপূরণ পেলেও বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই বাপ-ঠাকুরদার মতোই অনুমতি ব্যতিরেকে নদী-খাঁড়িতে গিয়ে জীবন খোয়াতে হয় একাংশকে। পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারীর অকাল মৃত্যুতে চরম দুর্ভোগে পড়ে গোটা পরিবার।

[গত ১২ আগস্ট মৃত মৎস্যজীবী হরিপদ মণ্ডল (৪৫)]

এমনই দুর্বিষহ অবস্থাই রোজনামচা সুন্দরবনের গোসাবা, বাসন্তী, রায়দিঘি, কুলতলি, হিঙ্গলগঞ্জ এলাকার মৎস্যজীবীদের। এক দশক আগের আয়লা কিংবা বুলবুল ও সাম্প্রতিককালের উম্পুন ঘূর্ণিঝড়ে অর্থনৈতিক মেরুদণ্ড ভেঙে পড়েছে সুন্দরবনবাসীর। ‘নুন আনতে পান্তা ফুরোয়’ পরিবারগুলিতে অনেকেই করোনার আবহে লকডাউনের দরুন অভিবাসী শ্রমিকের কাজ হারিয়ে গ্রামে ফিরে এসেছেন। শুধু পেটের তাগিদেই অনেকেই আবার পুরনো পেশাকে বেছে নিয়ে নদীতে, খাঁড়িতে মাছ,কাঁকড়া ধরতে গিয়ে বাঘের শিকারে পরিণত হচ্ছেন।

বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই বাপ-ঠাকুরদার মতোই অনুমতি ব্যতিরেকে নদী-খাঁড়িতে গিয়ে জীবন খোয়াতে হয় একাংশকে। পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারীর অকাল মৃত্যুতে চরম দুর্ভোগে পড়ে গোটা পরিবার।

পরিসংখ্যানে জানা গিয়েছে, শুধু লকডাউনের মধ্যেই প্রায় ১৩ জন মৎস্যজীবীর মৃত্যু হয়েছে বাঘের হানায়। যদিও মৃতদের অধিকাংশই অনুমতি ছাড়াই গিয়েছিল সেই কাজে। ফলে নিজেদের অকাল মৃত্যুর পাশাপাশি চরম সংকটে পড়েছে তাঁদের পরিবারগুলি। এঁদের মৃত্যুর ঘটনা বেড়ে চলায় উদ্বিগ্ন বনমন্ত্রী থেকে সুন্দরবন ব্যাঘ্র প্রকল্পের আধিকারিকরাও।

[ গত ৬ সেপ্টেম্বর বাঘের কামড়ে মৃত মৎস্যজীবী গোপাল বৈদ্য (৫৪)-র পরিবার কান্নায় ভেঙে পড়েছেন।]

চলতি সপ্তাহেই নতুন করে চার দিনে তিন জন মৎস্যজীবীর মৃত্যু ঘটেছে। জল-জঙ্গল নির্ভরশীল মৎস্যজীবীদের নৌকা নিয়ে নদী খাঁড়ির গভীরে ঢুকে যাওয়া-সহ এক গুচ্ছ বিধিনিষেধ সম্পর্কে সচেতন করার পথে হাটার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যাতে মাছ,কাঁকড়া ধরতে যাওয়া মৎস্যজীবীদের ওপর নজরদারি চালানোর পাশাপাশি সচেতন করা যায়।

সোমবারই সুন্দরবন ব্যাঘ্র প্রকল্পের অন্তর্গত বসিরহাট রেঞ্জের ঝিলা ২ ও ৪, সজনেখালি রেঞ্জের অন্তর্গত ঝিলা ৬ নম্বর কম্পার্টমেন্ট এলাকায় পাঁচটি করে মোট দশটি টহলদারি বোর্ড মোতায়েন করা হয়েছে। সেই বোটগুলিতে ব্যাঘ্র প্রকল্পের কর্মীদের পাশাপাশি জয়েন্ট ফরেস্ট মানেজমেন্ট কমিটি (যৌথ বন পরিচালনা সমিতির)সদস্যদেরকেও এক সঙ্গে টহলদারি কাজে লাগানো হয়েছে।

[গত ৩ সেপ্টেম্বর মৃত মৎস্যজীবী বাবুরাম রপ্তান (৩২)]

তবে বিশেষ করে নজর রাখা হচ্ছে যাতে বৈধ অনুমতি ছাড়াই কেউ খাঁড়িতে প্রবেশ করতে না পারে। সেই সঙ্গে নদীর জলেই দোন ফেলেই কাঁকড়া ধরার জন্য উৎসাহ দেওয়া হচ্ছে। কারণ খাঁড়িতে নৌকা নিয়ে ঢুকে বাঘের নাগালের মধ্যে গিয়েই নিজেদের মৃত্যু ডেকে আনছেন এঁরা। অনেকে আবার নিয়ম ছাড়াই জঙ্গলে জ্বালানির কাঠ সংগ্রহ করতে যাচ্ছে। যাতে আর কেউই সরকারি নির্দেশ অমান্য না করে সেই জন্য পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

‘নুন আনতে পান্তা ফুরোয়’ পরিবারগুলিতে অনেকেই করোনার আবহে লকডাউনের দরুন অভিবাসী শ্রমিকের কাজ হারিয়ে গ্রামে ফিরে এসেছেন।

একই সঙ্গে শুরু হয়েছে সতর্কতামূলক লিফলেট বিলি ও মাইকিং। এ দিন বনকর্মীদের তরফে হরিণভাঙা নদী,দত্ত নদীতে সেই সচেতনতা বার্তা দেওয়া হয় সাধারণ মৎস্যজীবীদের।

[গত ৪ সেপ্টেম্বর মৃত মৎস্যজীবী রেজাউল গাজি ওরফে মুন্না (৩২)।]

ব্যাঘ্র প্রকল্পের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন গোসাবার লাহিড়িপুর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার যৌথ বন পরিচালনা কমিটির দায়িত্বে থাকা হিমাংশু মণ্ডল। তিনি বলেন,”সাম্প্রতিক সময়ে বেশ কয়েকজনের মৃত্যুর ঘটনায় আমরাও উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছি। মানুষকে নানা ভাবে বোঝানোর চেষ্টা চলছে। সুন্দরবন ব্যাঘ্র প্রকল্পের এই সচেতনতামূলক উদ্যোগ মৎস্যজীবীদের বোঝাতে পারলে অনেকটাই সুবিধা হবে”।

এ প্রসঙ্গে সুন্দরবন ব্যাঘ্র প্রকল্পের ক্ষেত্র অধিকর্তা তাপস দাস বলেন,”আগে মানুষকে সচেতন হতে হবে। কারণ জীবিকার থেকে জীবনটাই বড়ো। তাই বাঘের ডেরায় গিয়ে মাছ, কাঁকড়া না ধরার থেকে নদীতে ধরলে বাঘের হাত থেকেই নিজের জীবনকে রক্ষা করা যাবে। বাঁচবে পরিবারও। সেই কারণেই আমরা ১০টি বোটকে নদীপথে সচেতনতার বার্তা ছড়িয়ে দেওয়ার কাজে লাগিয়েছি। দফতরের কর্মীদের সঙ্গে থেকে সেই কাজ করছেন যৌথ বন পরিচালনা কমিটির সদস্যরাও”।

আরও পড়তে পারেন: সুন্দরবনে বাঘের হানায় মৃত মৎস্যজীবী

সরকারি আধিকারিকদের কথায়, নিয়ম মেনে চললে বাঘ ও মৎস্যজীবী- উভয়েই বাঁচবে।

Continue Reading

দঃ ২৪ পরগনা

২৪ ঘণ্টার মধ্যে সুন্দবনে বাঘের আক্রমণে মৃত আরও এক মৎস্যজীবী

Published

on

উজ্জ্বল বন্দ্যোপাধ্যায়, সুন্দরবন: ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আবার বাঘের কামড়ে মৃত্যু হলো এক মৎস্যজীবীর। এই ঘটনায় স্পষ্ট, বিকল্প কর্মসংস্থান না হলে বাঘের কামড়ে মৃত্যু মিছিল বাড়তেই থাকবে সুন্দরবনে।

বৃহস্পতিবার সুন্দরবনের জঙ্গলের নদীখাঁড়িতে মাছ ও কাঁকড়া ধরতে গিয়ে বাঘের আক্রমণে প্রাণ হারিয়েছিলেন বাবুরাম রপ্তান নামে এক মৎস্যজীবী। সেই মৃত্যুর ২৪ ঘণ্টার ভেতরই আবার শুক্রবার সকালে বাঘের আক্রমণে মৃত্যু ঘটলে এক মৎস্যজীবীর। মৃতের নাম রেজাউল গাজি ওরফে মুন্না (৩২)।

এ দিনের ঘটনাটি ঘটেছে সুন্দরবনের ঝিলা রেঞ্জের ঝিলা ৪ নম্বর জঙ্গল লাগোয়া এলাকায়। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, উত্তর ২৪ পরগনা জেলার হেমনগরের পারঘুমটি এলাকার বাসিন্দা পেশায় মৎস্যজীবী মুন্না-সহ আরও ৪ জন মৎস্যজীবীর একটি দল নৌকা নিয়ে এ দিন ভোরে মাছ ধরার উদ্দেশে রওনা দিয়েছিল সুন্দরবনের নদীর খাঁড়িতে। সকালে তাঁরা মাছ ধরতে ধরতে ঝিলা ৪ নম্বর জঙ্গল লাগোয়া এলাকায় চলে আসে।

সকাল ১০টা নাগাদ মৎস্যজীবী মুন্না সুন্দরবনের জঙ্গল ঘেঁসা নদীতে নেমে বাঁশের খুঁটি পুঁতে জাল বাঁধার কাজ করছিলেন। সেই সময় আচমকা সুন্দরবনের গভীর জঙ্গল থেকে একটি বাঘ বেরিয়ে আসে। মুন্নার পিছন দিক থেকে ঘাড়ের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে ও ঘাড়ে থাবা মারে। বাঘের থাবা খেয়ে ছিটকে নদীর চরে পড়ে যান মৎস্যজীবী মুন্না।

[নিহত মুন্না]

সেখান থেকে উঠে তিনি বেশ কিছুক্ষণ বাঘের সঙ্গে লড়াই করেন। বাকি মৎস্যজীবীরাও দেখতে পেয়ে নৌকার বৈঠা ও লাঠি নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েন বাঘের উপর। বাঘ শিকার ছেড়ে গভীর জঙ্গলে পালিয়ে যায়। জখম মৎস্যজীবী মুন্নাকে নৌকায় তুলে জলপথে আনার সময় তাঁর মৃত্যু ঘটে।

পরপর দু’দিন বাঘের আক্রমণে দু’জন মৎস্যজীবীর মৃত্যু ঘটল এই ঝিলা জঙ্গল লাগোয়া এলাকায়। সুন্দরবন ব্যাঘ্র প্রকল্প সুত্রে জানা গিয়েছে, ঝিলা ৪ নম্বর জঙ্গল এলাকায় মাছ ধরার সময় জঙ্গল থেকে একটি বাঘ বেরিয়ে এসে আক্রমণে করলে এক মৎস্যজীবীর মৃত্যু হয়। মৎস্যজীবীদের কাছে বৈধ কাগজপত্র ছিল। কিন্তু তাঁরা নিষিদ্ধ এলাকায় মাছ ধরছিলেন। তবে কী ভাবে এমন ধরনের ঘটনা ঘটল, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

আরও পড়তে পারেন: সুন্দরবনে বাঘের কামড়ে মৃত আরও এক মৎস্যজীবী! লকডাউনে বিকল্প কর্মসংস্থানের দাবিতে সরব এপিডিআর

কিন্তু বার বার এই ঘটনা বেড়ে চলেছে সুন্দরবনে। লকডাউনে কাজ হারিয়ে সুন্দরবনের প্রান্তিক এলাকার মানুষ বারবার জঙ্গলের গভীরে চলে যাচ্ছে আর বাঘের কামড়ের শিকার হচ্ছে। তাই এদের বিকল্প কর্মসংস্থানের দিকে নজর দেওয়া দরকার বলে মনে করেন সুন্দরবনের বিভিন্ন স্বেচছাসেবী সংগঠনের সদস্যরা।

Continue Reading
Advertisement
দেশ5 mins ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৯২৬০৫, সুস্থ ৯৪৬১২

দেশ37 mins ago

রাজ্যসভায় কৃষি বিল রুখতে মরিয়া বিরোধীরা, কতটা এগিয়ে বিজেপি?

রাজ্য2 hours ago

জাতীয় গড়ের তুলনায় রাজ্যে সুস্থতার হার অনেকটাই বেশি, কেন্দ্রের প্রশংসা

দেশ3 hours ago

কোভিড-১৯: বুধবারের পর থেকে দেশব্যাপী নমুনা পরীক্ষায় ক্রমশ অবনমন

chennai superkings
ক্রিকেট11 hours ago

বদলে যাওয়া আইপিএলের শুরুতেই ‘বদলা’, জয়যাত্রা শুরু ধোনিবাহিনীর

দেশ12 hours ago

পেঁয়াজবোঝাই ট্রাক ঢুকছে বাংলাদেশে, অর্ধেক নষ্ট হওয়ার আশঙ্কায় ব্যবসায়ীরা

partha chatterjee
কলকাতা13 hours ago

ঐতিহ্যবাহী প্রতিভা গ্রন্থাগারের দ্রুত সংস্কারের প্রতিশ্রুতি দিলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়

BSF-BGB Meet
দেশ13 hours ago

চার দিনের সম্মেলনে ১৪টি সিদ্ধান্ত, সীমান্ত-হত্যা শূন্যে নামাতে একমত বিজিবি-বিএসএফ

দেশ5 mins ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৯২৬০৫, সুস্থ ৯৪৬১২

শিল্প-বাণিজ্য2 days ago

এসবিআই এটিএমে টাকা তোলার নিয়ম বদলে গেল! দেখে নিন ওটিপি-ভিত্তিক পদ্ধতির খুঁটিনাটি বিষয়

কলকাতা3 days ago

কোভিড রুখতে অনলাইন মাধ্যমকে হাতিয়ার করছে কলকাতার একাধিক পুজো

কলকাতা3 days ago

রবীন্দ্র সরোবরে করা যাবে না ছটপুজো, খারিজ কেএমডিএর আবেদন

বিজ্ঞান3 days ago

রাশিয়ার করোনা ভ্যাকসিনে সাত জনের মধ্যে এক জনের শরীরে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া!

Wriddhiman Saha
ক্রিকেট3 days ago

হায়দরাবাদের প্রথম একাদশে কি জায়গা পাবেন ঋদ্ধিমান সাহা?

kolkata knightriders
ক্রিকেট3 days ago

আইপিএলে কলকাতা নাইটরাইডার্সের সেরা প্রথম একাদশ কেমন হতে পারে?

প্রযুক্তি3 days ago

এ বার হাতঘড়িতেই লেনদেন, এসবিআইয়ের সঙ্গে জোট বেঁধে টাইটানের নতুন সম্ভার

কেনাকাটা

কেনাকাটা19 hours ago

সংসারের খুঁটিনাটি সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে এই জিনিসগুলির তুলনা নেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিজের ও ঘরের প্রয়োজনে এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি না থাকলে প্রতি দিনের জীবনে বেশ কিছু সমস্যার...

কেনাকাটা4 days ago

ঘরের জায়গা বাঁচাতে চান? এই জিনিসগুলি খুবই কাজে লাগবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ঘরের মধ্যে অল্প জায়গায় সব জিনিস অগোছালো হয়ে থাকে। এই নিয়ে বারে বারেই নিজেদের মধ্যে ঝগড়া লেগে...

কেনাকাটা1 week ago

রান্নাঘরের জনপ্রিয় কয়েকটি জরুরি সামগ্রী, আপনার কাছেও আছে তো?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের এমন কিছু সামগ্রী আছে যেগুলি থাকলে কাজ করাও যেমন সহজ হয়ে যায়, তেমন সময়ও অনেক কম খরচ...

কেনাকাটা2 weeks ago

ওজন কমাতে ও রোগ প্রতিরোধশক্তি বাড়াতে গ্রিন টি

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ওজন কমাতে, ত্বকের জেল্লা বাড়াতে ও করোনা আবহে যেটি সব থেকে বেশি দরকার সেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা...

কেনাকাটা2 weeks ago

ইউটিউব চ্যানেল করবেন? এই ৮টি সামগ্রী খুবই কাজের

বহু মানুষকে স্বাবলম্বী করতে ইউটিউব খুব বড়ো একটি প্ল্যাটফর্ম।

কেনাকাটা3 weeks ago

ঘর সাজানোর ও ব্যবহারের জন্য সেরামিকের ১৯টি দারুণ আইটেম, দাম সাধ্যের মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘর সাজাতে কার না ভালো লাগে। কিন্তু তার জন্য বাড়ির বাইরে বেরিয়ে এ দোকান সে দোকান ঘুরে উপযুক্ত...

কেনাকাটা4 weeks ago

শোওয়ার ঘরকে আরও আরামদায়ক করবে এই ৮টি সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : সারা দিনের কাজের পরে ঘুমের জায়গাটা পরিপাটি হলে সকল ক্লান্তি দূর হয়ে যায়। সুন্দর মনোরম পরিবেশে...

kitchen kitchen
কেনাকাটা1 month ago

রান্নাঘরের এই ৮টি জিনিস কাজ অনেক সহজ করে দেবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজকাল রান্নাঘরের প্রত্যেকটি কাজ সহজ করার জন্য অনেক উন্নত ব্যবস্থা এসে গিয়েছে। তা হলে ঘণ্টার পর ঘণ্টা কষ্ট...

care care
কেনাকাটা1 month ago

চুল ও ত্বকের বিশেষ যত্নের জন্য ১০০০ টাকার মধ্যে এই জিনিসগুলি ঘরে রাখা খুবই ভালো

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পার্লার গিয়ে ত্বকের যত্ন নেওয়ার সময় অনেকেরই নেই। সেই ক্ষেত্রে বাড়িতে ঘরোয়া পদ্ধতি অনেকেই অবলম্বন করেন। বাড়িতে...

কেনাকাটা1 month ago

ঘর ও রান্নাঘরের সরঞ্জাম কিনতে চান? অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ৫০% পর্যন্ত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্ক : অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ঘর আর রান্না ঘরের একাধিক সামগ্রিতে প্রচুর ছাড়। এই সেলে পাওয়া যাচ্ছে ওয়াটার...

নজরে