খবর অনলাইনডেস্ক: তিনি যে কোনো দিন না কি খুন হয়ে যেতে পারেন। সেই আশঙ্কা থেকে নিজের মূর্তি গড়ে ফেললেন গোসাবার (Goshaba) তৃণমূল বিধায়ক জয়ন্ত নস্কর। নিজের টাকাতেই কুমোরটুলির শিল্পীকে দিয়ে মূর্তি গরিয়েছেন তিনি।

জয়ন্তবাবুর দাবি, রাজনীতিতে আসা থেকেই তাঁকে নানা রকম ভাবে হুমকি দেওয়া হয়। প্রথম দিকে আরএসপি, সিপিএম তাঁর শত্রু হলেও, এখন সেই জায়গাটি নিয়েছে বিজেপি।  

উল্লেখ্য, বছর তিনেক আগে আলিপুর সেন্ট্রাল জেলের এক কয়েদির ফোনে আড়ি পেতে পুলিশ জানতে পারে, গোসাবার বিধায়ককে খুনের চক্রান্ত করা হচ্ছে। সে সময়ে তিন দুষ্কৃতীকে গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদ করে এ বিষয়ে আরও নিশ্চিত হয় দক্ষিণ ২৪ পরগনা (South 24 Parganas) জেলা পুলিশ। এই খবর পেয়ে জেলা পুলিশ জয়ন্তবাবুর নিরাপত্তা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয়।

এই ঘটনার প্রেক্ষিতেই কুমোরটুলিতে এক শিল্পীকে দিয়ে নিজের জীবদ্দশায় নিজেরই মূর্তি তৈরির সিদ্ধান্ত নেন জয়ন্ত। মাসের পর মাস শিল্পীর কাছে গিয়ে ‘মডেল’ হয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসে থেকেছেন জয়ন্ত। তিনি বলেন, ‘‘অন্তত সাত থেকে আট বার বেশ কয়েক ঘণ্টার জন্য কুমোরটুলিতে গিয়ে শিল্পীর সামনে বসেছিলাম।” 

আরও পড়ুন করোনাভাইরাসের আতঙ্কে খালি করে দেওয়া হল ইনফোসিসের অফিস বাড়ি

অবশেষে দু’টি পূর্ণাবয়ব মূর্তি ও একটি আবক্ষ ফাইবারের মূর্তি তৈরি হয়েছে। কিছু দিন আগে সেই মূর্তি তিনটি বাসন্তীর বগুলাখালিতে নিজের বাড়িতে নিয়ে আসেন তিনি। এখনও মূর্তি অবশ্য প্রতিষ্ঠা পায়নি। নিজের বাড়িতেই রেখেছেন জয়ন্তবাবু।

তাঁর দাবি যে কোনো দিন রাজনৈতিক শত্রুর হাতে মৃত্যু হতে পারে। জয়ন্তবাবুর কথায়, ‘‘যদি দুষ্কৃতীর গুলিতে মরি, তা হলে কী হবে? তাই আমার মৃত্যুর পরেও যাতে নিজের লোকেরা আমার অভাব বোধ না করেন, তাই এই ব্যবস্থা করেছি।”

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন