rains in kolkata

ওয়েবডেস্ক: আগামী তিন দিন দক্ষিণবঙ্গে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির সম্ভাবনা হলেও সপ্তাহান্তে একটি নিম্নচাপের সৌজন্যে বাড়তে পারে বৃষ্টির পরিমাণ। ওই নিম্নচাপটিই দক্ষিণবঙ্গে বর্ষা ঢুকিয়ে দিতে পারে বলে মনে করছে বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থা ওয়েদার আল্টিমা। ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনাও রয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

১ জুন, শুক্রবার প্রাক বর্ষার প্রবল বৃষ্টি হয়েছিল কলকাতা-তথা সমগ্র দক্ষিণবঙ্গে। কিন্তু তার পরেই বৃষ্টি স্তিমিত হয়ে যায়। কলকাতাতেও আর বিশেষ বৃষ্টির দেখা নেই। যদিও বিক্ষিপ্ত ভাবে ঝড়বৃষ্টি চলেছে দক্ষিণবঙ্গের বাকি অংশে। বৃষ্টি সে ভাবে না হওয়ায় তাপমাত্রা বেশি বাড়ছে না ঠিকই, কিন্তু ছড়ি ঘোরাচ্ছে আর্দ্রতা। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত এ রকম আবহাওয়াই চলবে মনে করেন ওয়েদার আল্টিমার কর্ণধার রবীন্দ্র গোয়ঙ্কা।

রবীন্দ্রবাবু জানান, ছোটোনাগপুর মালভূমির ওপরে অবস্থান করা ঘূর্ণাবর্ত ক্রমশ দুর্বল হয়ে পড়ায় দক্ষিণবঙ্গে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ কিছুটা কমবে, যার ফলে বজ্রগর্ভ মেঘ সৃষ্টির সম্ভাবনাও কমে যাবে। যদিও বিক্ষিপ্ত ভাবে বৃষ্টি জারি থাকবে সমগ্র দক্ষিণবঙ্গে। শুক্রবার থেকে ফের পরিস্থিতি বদলাতে শুরু করতে পারে।

বর্তমান পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে দেখা গিয়েছে শুক্রবার ৮ জুন নাগাদ উত্তর বঙ্গোপসাগরে একটি নিম্নচাপের সৃষ্টি হতে পারে। বিদেশি বিভিন্ন মডেল জানাচ্ছে, ওই নিম্নচাপটি শক্তি বৃদ্ধি করে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে। তার পর সেটি যেতে পারে দক্ষিণবঙ্গের ওপর দিয়েই। নিম্নচাপটি যদি পূর্বাভাসমতো পথ অনুসরণ করে তা হলে সামনের শনিবার থেকে পরের সপ্তাহে মঙ্গলবার পর্যন্ত দফায় দফায় ভারী বৃষ্টি পেতে পারে দক্ষিণবঙ্গ।

নিম্নচাপের সুবাদেই দক্ষিণবঙ্গে যে বর্ষা ঢুকে যাবে সেটাও এক প্রকার নিশ্চিত। তবে উত্তরবঙ্গে বর্ষার জন্য বেশি দিন অপেক্ষা করতে হবে না। মৌসমের ভবনের মতে বুধ-বৃহস্পতিবার নাগাদ উত্তরবঙ্গে পৌঁছে যেতে পারে বর্ষার।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here