Abdul Mannan, Adhir Chowdhury

কলকাতা: আগামী লোকসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে সাংগঠনিক শক্তিবৃদ্ধিতে একাধিক পরিকল্পনা নিতে চলছে প্রদেশ কংগ্রেস। সারা রাজ্যের সমস্ত বুথে নিজেদের দলীয় সংগঠন যে ততটা শক্তপোক্ত নয়, সে কথা ভালো মতোই জানেন প্রদেশ নেতৃত্ব। তবে প্রায় ৭৭ হাজার বুথের মধ্যে থেকে সাংগঠিনক সক্রিয়তা রয়েছে এমন ৫০ হাজার বুথকে চিহ্নিত করে, সেই সমস্ত বুথের দায়িত্ব দলীয় ‘সৈনিক’দের হাতেই তুলে দিতে চাইছে প্রদেশ কংগ্রেস।

সাম্প্রতিক গুজরাত নির্বাচনে সাফল্য পাওয়ার পর কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি রাহুল গান্ধীর নির্দেশে রাজস্থানেও বুথভিত্তিক সংগঠনে জোর দিয়েছে দল। কয়েক মাসের মধ্যেই রাজস্থানের বিধানসভা ভোটে সর্বশক্তি নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ার প্রাথমিক স্তরে বেছে নেওয়া হয়েছে বুথভিত্তিক সংগঠনকেই। সেখানে দলের সভাপতি রাহুল গান্ধীর সঙ্গে বুথ স্তরের কর্মীদের যোগাযোগ সরাসরি অব্যাহত রাখতে বিশেষ যে পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে, তার পোশাকি নাম দেওয়া হয়েছে ‘শক্তি’। স্বয়ং রাহুলের মস্তিষ্কপ্রসূত এই যোগাযোগ মাধ্যমটির সাহায্যে রাজ্যের যে কোনো বুথ স্তরের কর্মীরা সভাপতির সঙ্গে যে কোনো সুবিধা-অসুবিধার কথা নিয়ে আলোচনা করতে পারবেন খুব সহজেই।

‘শক্তি’র মাধ্যমে যে কোনো বুথ স্তরের কর্মী রাহুল গান্ধীর সঙ্গে মোবাইল কল, মেসেজ অথবা ভিডিও-র সাহায্যে সরাসরি যোগাযোগ করতে পারবেন। এ ছাড়া রাজস্থানে ‘মেরা বুথ মেরা গৌরব’ নামের একটি উদ্যোগও নেওয়া হচ্ছে। এই পরিকল্পনায় রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা কংগ্রেস কর্মীদের তথ্য সংগ্রহ করা হবে। পাশাপাশি ওই তথ্যভাণ্ডার থেকে প্রয়োজনমতো কর্মীকে নির্দিষ্ট কর্মসূচি সম্পর্কে অবহিত করার কাজটি নির্বিঘ্নে সারা যাবে।

পশ্চিমবঙ্গেও কতকটা একই ধাঁচে বুথভিত্তিক সংগঠনকে কাজে লাগিয়ে লড়াই জোরদার করার পরিকল্পনা প্রায় পাকা বলেই প্রদেশ কংগ্রেস সূত্রে খবর। জানা গিয়েছে, এই লক্ষ্যে প্রায় ৫০ হাজার বুথ কর্মীকে কাজে লাগানো হবে। যাঁরা নিজের নিজের এলাকার তথ্য-পরিসংখ্যান সংগ্রহ থেকে দলীয় কর্মসূচি পালনে মুখ্য ভূমিকা নেবেন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here