computer

নিজস্ব সংবাদদাতা: পঞ্চায়েত ভোটের আগে গ্রাম-বাংলায় গরিব মহিলা ও পুরুষদের স্বনির্ভর করতে বিশেষ প্রকল্প শুরু করছে রাজ্য সরকার। গ্রামের মহিলাদের স্বনির্ভর করতে বিশেষ কর্মশালা গঠন করতে চলেছে স্বনির্ভর ও স্বনিযুক্ত দফতর। ইতিমধ্যেই পাইলট প্রোজেক্ট হিসাবে জঙ্গলমহলের জেলাগুলিতে এই কর্মশালা শুরু হলেও এবার এই প্রকল্প সারা রাজ্য জুড়ে সমস্ত জেলাতেই নিয়ে আসছে স্বনির্ভর ও স্বনিযুক্তি দফতর। বাঁকুড়া, পুরুলিয়া ও পশ্চিম মেদিনীপুরে একাধিক ব্লকে এই প্রকল্পে বিশেষ কর্মশালা গঠন করা হয়েছে। তিনটি জেলা থেকেই এই প্রকল্পে ভালো সাড়া পাওয়া গিয়েছে। আর প্রকল্পের ব্যয়বহনের জন্য পরিবারগুলিকে ব্যাঙ্ক থেকে ঋণের ব্যবস্থা করেছে স্বনির্ভর দফতরই।

আরও পড়ুন: পঞ্চায়েত ভোটের আগে জনতার মন জয় করতে অভিনব উদ্যোগ রাজ্য সরকারের

স্বনির্ভর ও স্বনিযুক্তি দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, এবার এই প্রকল্প দ্বিতীয় পর্যায়ে হাওড়া, হুগলি, বর্ধমান, পূর্ব মেদিনীপুর, উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, মালদা, উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুর, বীরভূম, কোচবিহার, নদিয়া ও দার্জিলিং, আলিপুরদুয়ার জেলায় শুরু হবে। ১ জানুয়ারি জঙ্গলমহলের পুরুলিয়া জেলায় এই প্রকল্পের সূচনা হবে।

এই কর্মশালায় কর্মহীন যুবক-যুবতীদের কী প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে?

দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, গ্রামের যুবক-যুবতীদের স্বনির্ভর করতে এবার আধুনিক কিছু বিষয়ে এবার প্রশিক্ষণ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তার মধ্যে উল্লেখ্যযোগ্য হল- হোটেল ম্যনেজমেন্ট, ক্যাটারিং, রেস্তোরাঁ, কম্পিউটার-ল্যাপটপ সারানো, সেলাই, খবরের কাগজ দিয়ে ঠোঙা তৈরি, পাটের ব্যাগ তৈরি ইত্যাদি। এছাড়া ফুড প্রসেসিং শিল্পে জ্যাম, জেলি, আচার, কাসুন্দি তৈরির ট্রেনিং থাকছেই।

কী ভাবে এই প্রকল্পের জন্য ব্যাঙ্ক থেকে ঋণের আবেদন করতে পারবেন?

এই প্রকল্পে ব্যাঙ্ক থেকে ঋণ নিলেও স্বনির্ভর দফতর থেকে বিশেষ ভরতুকি মিলবে। ব্যাঙ্ক মারফত সেই ভরতুকি পাবেন গ্রাহকরা। ব্লকের বিডিও অফিসে প্রকল্পের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট নির্দিষ্ট ফর্ম পাওয়া যাচ্ছে। ফর্ম সংগ্রহ করে, ভর্তি করার পর তা ব্লক স্বনির্ভর দফতরের অধিকর্তার কাছে প্রোজেক্ট রিপোর্ট-সহ জমা দিতে হবে। ব্লক আধিকর্তা ব্যাঙ্কে সেই প্রোজেক্ট রিপোর্ট পাঠিয়ে দেবেন। এর পর ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ সেই প্রোজেক্ট রিপোর্ট খতিয়ে দেখে দ্রুত ঋণের বন্দোবস্ত করে দেবে। এছাড়া পুরসভা এলাকায় পৌরসভার স্বনির্ভর অধিকর্তার কাছে গিয়েও আবেদন করা যাবে। তবে স্বনির্ভর প্রকল্পের বিশেষ কর্মশালার প্রশিক্ষণ থাকলে বিশেষ সুবিধা পাবেন যুবক-যুবতীরা।

দফতরের প্রধান সচিব সৌরভ কুমার দাস বলেন, “স্বনির্ভর ও স্বনিযুক্তি দফতরের পক্ষ থেকে গ্রামের কর্মহীন যুবক-যুবতীদের কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে পাইল্ট প্রোজেক্ট হিসাবে ৫টি কর্মশালা করা হয়েছে। ১ ডিসেম্বর থেকে এই প্রকল্প শুরু হচ্ছে। দফরের মন্ত্রী সাধান পাণ্ডে এই কর্মশালাগুলিতে পরির্দশনে যাচ্ছেন”।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here