কলকাতা: শুক্রবার রাতে শুরু হয়েছিল টাকা গোনার কাজ। আনা হয়েছিল টাকা গোনার যন্ত্র। শুক্রবার পড়ন্ত দুপুরে শেষ হল তা।

এসএসসি দুর্নীতি তদন্তে গ্রেফতার পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের ঘনিষ্ঠ অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের ফ্ল্যাটে নোট গোনার যন্ত্র দিয়ে চলছিল এই কাজ। ইডি সূত্রে খবর, অর্পিতার টালিগঞ্জের ডায়মন্ড সিটি সাউথের ফ্ল্যাট থেকে ২১ কোটি ৭০ লক্ষ টাকা উদ্ধার হয়েছে। বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে প্রায় ৭৯ লক্ষ টাকা মূল্যের সোনার গয়না। ৫৪ লক্ষ টাকার বিদেশি মুদ্রাও উদ্ধার। ইতিমধ্যেই আটক করা হয়েছে অর্পিতাকে।

[আপডেট পড়ুন এখানে: পার্থ-ঘনিষ্ঠ অর্পিতার বাড়িতে ‘টাকার পাহাড়’, ৪০টি ট্রাঙ্কে ভরে কোথায় নিয়ে যাওয়া হল]

অর্পিতাকে মন্ত্রীর ‘ঘনিষ্ঠ’ বলে দাবি করেছে ইডি। কী ভাবে মন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর আলাপ হয়, তা নিয়ে ইডির দাবি, এক প্রোমোটারের মাধ্যমে সাত বছর আগে পার্থর সঙ্গে আলাপ হয় অর্পিতার। এর পর থেকেই দু’জনের মধ্যে ‘ঘনিষ্ঠতা’ বাড়ে। ইডি সূত্রে খবর, পার্থর সঙ্গে তাঁর ‘পারিবারিক সম্পর্ক’ বলেও জেরায় দাবি করেছেন অর্পিতা।

যা পাওয়া গিয়েছে অর্পিতার ফ্ল্যাটে

নগদ: ২১ কোটি ৭০ লক্ষ টাকা

বিদেশি মুদ্রা: ৫৪ লক্ষ টাকার

গয়না: ৭৯ লক্ষ টাকার

প্রমাণ: উচ্চ শিক্ষা দফতরের খাম

বিস্ফোরক দাবি!

এ দিন সকাল থেকেই একের পর এক চাঞ্চল্যকর তথ্য পাওয়া যাচ্ছে ইডি সূত্রে। জিজ্ঞাসাবাদে না কি বিস্ফোরক দাবি করেছেন অর্পিতা। তাঁর বাড়িতে বেশ কিছু জমির দলিল উদ্ধার হয়েছে। এ ছাড়াও কলকাতা-শহরতলিতে অর্পিতার ৮টি ফ্ল্যাটের হদিশ।

জিজ্ঞাসাবাদে অর্পিতা না কি জানিয়েছেন, “দালালের হাত হয়ে ধাপে ধাপে টাকা যেত আমলা-নেতা-মন্ত্রীদের কাছে। এসএসসির চাকরিপ্রার্থীদের কাছ থেকে টাকা নিত দালালরা। দালালদের কাছ থেকে সরকারি কর্মচারী, আমলা হয়ে টাকা যেত নেতা-মন্ত্রীদের কাছে”।

আরও পড়তে পারেন:

পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে দিল্লি নিয়ে যাওয়া হতে পারে: সূত্র

এক মঞ্চে মমতা-অর্পিতা, পুরনো ভিডিও প্রকাশ করল বিজেপি

২৭ ঘণ্টা ধরে টানা জিজ্ঞাসাবাদ, পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করল ইডি

পার্থ-ঘনিষ্ঠের বাড়িতে কোটি কোটি টাকা, তা কি ঘুষের?

‘পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের পরিচিতার’ বাড়িতে ইডির হানা, ২০ কোটি টাকা উদ্ধার

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন