পার্থ চট্টোপাধ্যায়। ছবি: পিটিআই-এর সৌজন্যে

কলকাতা: শুক্রবার আলিপুর আদালতে ফের জামিন চাইলেন এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় গ্রেফতার পার্থ চট্টোপাধ্যায়। আবার আদালতে কেঁদে ফেললেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী। দাবি করলেন, তিনি ষড়যন্ত্রের শিকার।

নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় পার্থকে হেফাজতে নিতে চায় সিবিআই। এই মর্মে আলিপুর কোর্টে, বিশেষ আদালতে আবেদন জানায় তারা। সেইমতো আজ পার্থকে আলিপুরের ১২ নম্বর কোর্টে পেশ করা হয়। আদালতে ফের এ দিন জামিন চান পার্থ।

প্রাক্তন মন্ত্রী বলেন, “আমি সব শুনলাম। মামলাগুলিতে আমার কী ভূমিকা? আমি মন্ত্রী ছিলাম। এসএসসি, প্রাইমারি বোর্ড নিজেরাই কাজ করত। তারা সবাইকে নিয়োগ করত। আমার কোনো ভূমিকা নেই। আমি রামকৃষ্ণ মিশনের ছাত্র, এমবিএ, ডক্টরেট, পরিবারের সবাই উচ্চ শিক্ষিত। আমি ষড়যন্ত্রের শিকার”।

তিনি আরও বলেন, “ইডি দু’মাস ধরে জেলে রেখেছে। এখন আরও এক সংস্থা নতুন করে তদন্ত করতে চাইছে। স্যার, আমি খুব অসুস্থ। কে আমাকে সাহায্য করবে! সারা দিন অনেক ওষুধ খাই। কে সাহায্য করবে? বিচারের প্রতি আস্থা রাখছি। আপনি আপনার মতো বিচার করবেন। আপনার কাছে বিচারের আশায় আছি”।

পাশাপাশি, পার্থর আইনজীবীর দাবি করেন, তাঁর মক্কেল তো জেল হেফাজতেই রয়েছেন। আবার আলাদা করে তাঁকে গ্রেফতারি কেন? তিনি কোথাও যাবেন না, তদন্তে সহযোগিতা করবেন। ৭০ বছর বয়স, শারীরিক ভাবেও অসুস্থ। তাঁকে জামিন দিলেও তদন্তে কোনো সমস্যা হবে না বলে উল্লেখ করলেন আইনজীবী।

তবে সিবিআই-এর দাবি, এখানে যোগ্য প্রার্থীরা বঞ্চিত হয়েছেন। তাই কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা দায়িত্ব নিয়ে তদন্ত করবে মূল চক্রীকে খুঁজে বের করতে। বৃহত্তর স্বার্থে পার্থে হেফাজতে নিয়ে তদন্ত করতে হবে বলে উল্লেখ করেছে সিবিআই।

আরও পড়তে পারেন: কমবে ঝক্কি! ছোটো সংস্থার জন্য নতুন নিয়ম ঘোষণা কেন্দ্রের, জানুন বিস্তারিত

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন