নির্বাচন কমিশনকে দখল করে রেখেছে তৃণমূল, জলপাইগুড়িতে সূর্যকান্ত

0
301
left front's rally in jalpaiguri

নিজস্ব সংবাদদাতা, জলপাইগুড়ি: “নির্বাচন কমিশনকে দখল করে রেখেছে তৃণমূল কংগ্রেস”, মন্তব্য সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্রের। বৃহস্পতিবার জলপাইগুড়িতে এই ভাবেই রাজ্যের শাসকদল এবং নির্বাচন কমিশনকে কাঠগোড়ায় তোলেন তিনি।

দলীয় কর্মসূচিতে যোগ দিতে এ দিন দুপুরে জলপাইগুড়িতে আসেন সূর্যকান্তবাবু। প্রাক-নির্বাচনী সন্ত্রাসের প্রতিবাদ জানিয়ে জলপাইগুড়ি শহরে তাঁর নেতৃত্বে মিছিল করেন বাম নেতা-কর্মীরা। মালবাজার-সহ জেলার বিভিন্ন জায়গায় দলীয় কর্মীদের ওপর শাসকদলের যে সন্ত্রাস চলছে তা রোখার দাবি জানিয়ে মিছিল শেষে জলপাইগুড়ির সহকারী কমিশনার তরুণ সিনহারায়কে স্মারকলিপি দেয় বাম নেতৃত্ব। বেলা আড়াইটে নাগাদ শহরের রবীন্দ্রভবনে একটি কর্মীসভায় যোগ দেন সূর্যকান্ত মিশ্র। এই সভায় জেলার দলের নির্বাচনী প্রার্থী ও নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। সেখানেই বক্তৃতা করতে গিয়ে সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক অভিযোগ করেন, বিডিও, এসডিও অফিস দখল করে নিয়েছে শাসকদল।

এই প্রসঙ্গে রাজ্য নির্বাচন কমিশনার অমরেন্দ্রকুমার সিংকে তীব্র কটাক্ষ করেন তিনি। পাঁচ বছরে পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে কোর্টে গিয়েছিলেন তৎকালীন রাজ্য নির্বাচন কমিশনার মীরা পাণ্ডে। সেই প্রসঙ্গ টেনে সূর্যকান্ত মিশ্রের কটাক্ষ, “এক জন মহিলার যে মুরোদ ছিল, বর্তমান নির্বাচন কমিশনারের তা-ও নেই।”

suryakanta in party meeting
দলীয় কর্মীসভায় সূর্যকান্ত।

এ দিনই নির্বাচন প্রক্রিয়ায় ১৬ এপ্রিল পর্যন্ত স্থগিতাদেশ দিয়েছে কলকাতা উচ্চ আদালত। এই নির্দেশকে হাতিয়ার করেছে বামফ্রণ্ট। তবে নির্দেশকে স্বাগত জানালেও সুর্যকান্ত মিশ্র বলেন, “এতে আত্মসন্তুস্টি বা উল্লসিত হওয়ার কোনো অবকাশ নেই। কারণ রাজ্য সরকার এই রায় মানবে না। জনগণের টাকা খরচ করে উচ্চ আদালতের ডিভিশন বেঞ্চ বা শীর্ষ আদালতে যাবে শাসক দল।” বস্তুত ইতিমধ্যেই তৃণমূল কংগ্রেস ডিভিশন বেঞ্চে যাওয়ার প্রস্তুতি নিয়ে নিয়েছে বলেই খবর। এই অবস্থায় সাধারণ মানুষকেই এগিয়ে আসার আবেদন জানিয়েছেন তিনি। তাঁর কথায় “মানুষই সব”।

দলের সামাজিক বা গণ সংগঠনগুলিকে নিশ্ছিদ্র করার কথা বলেন তিনি। এই প্রসঙ্গে তিনি আরএসএস-এর কথা টেনে আনেন। তিনি বলেন, “আরএসএস নামে ওই সংগঠনের কাজ সহজে নজরে আসে না। আরএসএস মানুষের মধ্যে বিষ ছড়ায়, আমরা অমৃত ছড়াব।” রাজ্যে বিরোধী দল হিসেবে বিজেপিকে তুলে আনছে তৃণমূলই, এই মন্তব্য  করে সূর্যকান্ত মিশ্রের দাবি, এতে দুই দলেরই সুবিধা হবে। নিজেদের মধ্যে ভাগাভাগি করে নিয়ে একদল একে তোষণ করবে তো আরেক দল ওকে।

আজকের সভা থেকে সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক ও জেলা নেতা-কর্মীদের কী ভাবে নির্বাচন সামলাতে হবে তার নির্দেশও দেন।

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here