panchayet

কলকাতা: পঞ্চায়েত-মামলায় আগামী শুক্রবারের শুনানিতে কলকাতা হাইকোর্টের কাছে রাজ্য নির্বাচন কমিশন পেশ করবে নিরাপত্তা সংক্রান্ত পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট। পর্যাপ্ত সশস্ত্র পুলিশ পাওয়ার বিষয়টি নিয়েই সব থেকে বড়ো সমস্যায় পড়েছিল নির্বাচন কমিশন। এ ব্যাপারে কমিশনের তরফে রাজ্য সরকারকে পর্যাপ্ত পুলিশি ব্যবস্থার আবেদন জানানোর পরই ভিন রাজ্য থেকে পুলিশ চেয়ে চিঠি পাঠায় নবান্ন। সূত্রের খবর, যে পাঁচটি রাজ্যকে পুলিশ চেয়ে আবেদন জানানো হয়েছিল তার মধ্যে চারটির কাছ থেকেই ইতিবাচক উত্তর পাওয়া গিয়েছে।

এ বারের পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে একের পর এক গেরোয় জড়িয়েছে নির্বাচন কমিশন। স্বাভাবিক ভাবেই প্রতিটির সঙ্গেই জড়িয়ে গিয়েছে রাজ্য সরকারের ভূমিকা। বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির পক্ষে সর্বশেষ আবেদনটি ছিল, আগামী ১৪ মে ভোটগ্রহণ করার মতো উপযুক্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা কি গ্রহণ করেছে কমিশন। এই একই প্রশ্ন তুলেছেন হাইকোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চের বিচারপতি। ভোটের পূর্ব নির্ধারিত দিন এই রিপোর্টের উপর নির্ভর করছে অনেকটাই। ফলে চারটি রাজ্য থেকে বাড়তি পুলিশ নিয়ে এসে রাজ্য যদি  কমিশনের চাহিদা পূরণ করতে পারে, তা হলে একটি জটিলতা থেকে নিষ্কৃতী পাওয়ার সম্ভাবনা প্রকট।

আরও পড়ুন: সিপিএমের বহুচর্চিত তিন গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্য যোগ দিলেন তৃণমূলে

রাজ্যের হাতে থাকা ৪৬ হাজার সশস্ত্র পুলিশ ছাড়াও সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে,কলকাতা পুলিস ,কারা দফতর ও আবগারি দফতরের কর্মীদের কাজে লাগানো হবে। ফলে সব মিলিয়ে কমিশনের নিয়ম মেনে বুথ পিছু পুলিশ কর্মী নিয়োগ করা সম্ভব হয়, তা হলে অনেকটাই আশ্বস্ত করতে পারবে হাইকোর্টকে। যদিও পুরোটাই নির্ভর করছে আদালতের আগামী শুনানির উপর।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here