Amit Mitra
সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন অমিত মিত্র। ছবি: নিজস্ব

কলকাতা: “যে কোনো শিল্পের সঙ্গেই রাজ্য সরকার তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পেও সব সময় সহযোগিতাপূর্ণ মনোভাব দেখিয়ে চলেছে। যে কারণে এ রাজ্যের তথ্যপ্রযুক্তি কেন্দ্র বা আইটি হাবগুলি উদ্বোধনের পরই সেখানে ১০০ শতাংশ সাফল্য পাওয়া গিয়েছে”। শুক্রবার কলকাতার একটি পাঁচতারা হোটেলে টাইকন কলকাতা আয়োজিত ‘#মিসটেকসআরগুড’ শীর্ষক উদ্যোগপতি সম্মেলনে এমনটাই মন্তব্য করলেন রাজ্যের অর্থ তথা তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী অমিত মিত্র।

তিনি জানান, কলকাতার রাজারহাট, নিউটাউন, বানতলা ছাড়াও রাজ্যের জেলায় জেলায় আইটি হাবগুলিতে সাফল্যের সঙ্গে কাজ করে চলেছে অসংখ্য সংস্থা। বর্ধমান, পুরুলিয়া, মালদহ, শিলিগুড়িতেও আইটি হাবের কাজ চলছে। এ ব্যাপারে উদ্যোগপতিদের আগ্রহ দেখে রাজ্য সরকার তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পের জন্য বরাদ্দকৃত জমির পরিমাণ বাড়ানোর বিষয়েও আলোচনা করছে।

অমিত এ দিন জানান, “গত আগস্ট মাসে একশো একর জমি নিয়ে নিউটাউনে সিলিকন ভ্যালি হাবের শিলান্যাস করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মাত্র তিন মাসের মধ্যে সেই জমি বিভিন্ন সংস্থার হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু চাহিদা উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে। মুখ্যমন্ত্রী সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আরও একশো একর জমি আইটি হাবের জন্য বরাদ্দ করা হবে। এ ব্যাপারে বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠিত সংস্থা আগাম অনুরোধ জানিয়েছে”।

সরকারি কর্মীদের জন্য সুখবর শোনাল রাজ্যের অর্থ দফতর!

এ দিন টাই কলকাতার কার্যনির্বাহী সদস্য তথা পিপলম্যাজিকের সিইও চন্দ্রদীপ মিত্রও স্বাগত ভাষণে নতুন উদ্যোগপতিদের আগ্রহে দেওয়ার বিষয়ে রাজ্য সরকারের ভূমিকার ভূয়সী প্রশংসা করেন। তিনি বলেন, গত কয়েক বছরে পশ্চিমবঙ্গের শিল্প মানচিত্রে আমূল পরিবর্তন এসেছে। এ ব্যাপারে রাজ্য সরকার, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং তারই সঙ্গে প্রতিষ্ঠিত শিল্পপতি বা সংস্থা এবং আগ্রহী উদ্যোগপতিদের ইতিবাচক চিন্তাভাবনা এবং উদ্যমেই এটা সম্ভব হয়েছে।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন