প্রায় প্রতিবছর এ ভাবেই বন্যার কবলে পড়ে ঘাটাল। ছবি: ঘাটাল.নেট

ঘাটাল: তিন বছর আগে সম্মতি দিলেও এখনও টাকা দেয়নি কেন্দ্র। সেই কারণেই ধাপে ধাপে ঘাটাল মাস্টার প্ল্যান বাস্তবায়িত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার।

ফি বছর ভয়াবহ বন্যার কবলে পড়ে পশ্চিম মেদিনীপুরের ঘাটাল শহর। সাধারণ মানুষকে সেই বন্যার দুর্দশা থেকে মুক্তি দেওয়ার জন্য ২০১৩ সালে ঘাটাল মাস্টার প্ল্যানের পরিকল্পনা করে রাজ্য সরকার। এর দু’ বছর পর কেন্দ্রের তরফ থেকে এই প্রকল্পে সম্মতি দেওয়া হয়েছিল, কিন্তু এখনও টাকা আসেনি।

রাজ্য সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, প্রথম ধাপে শহরের মধ্যে দিয়ে বয়ে চলা পলাশপাই খালের পলি তোলার কাজ করা হবে। এর জন্য ৭৩ কোটি টাকা খরচ হবে রাজ্যের।

১৩ নভেম্বর থেকে এই কাজ শুরু হবে বলে জানিয়েছেন রাজ্যের সেচমন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্র। এই খালের পলি তোলা হলে, ঘাটাল, পাঁশকুড়া, দাসপুর ১ এবং দাসপুর ২ ব্লকের মানুষরা বন্যার হাত থেকে রেহাই পাবেন বলে জানিয়েছেন সৌমেনবাবু। তিনি বলেন, “এই প্রকল্পের কাজ যদি এখনই শুরু না হয়, তা হলে মানুষের ভোগান্তি শেষ হবে না।”

আরও পড়ুন তিনসুকিয়ায় পাঁচ বাঙালি খুনের দায় নিল না আলফা, বন্‌ধে স্তব্ধ জনজীবন

কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তোপ দেগে সৌমেনবাবু বলেন, “এখনও এই প্রকল্প রূপায়ণের জন্য টাকা দেয়নি কেন্দ্র। তাই আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমাদের বাজেট বরাদ্দ থেকেই টাকা নিয়ে এই প্রকল্পের কাজ শুরু করার। এর ফলে সাধারণ মানুষ উপকৃত হবেন।”

প্রথমে ঠিক ছিল এই প্রকল্পের জন্য মোট অর্থের ৭৫ শতাংশ দেবে কেন্দ্র, বাকিটা দেবে রাজ্য। কিন্তু পরে সিদ্ধান্ত বদল হয়ে ৫০:৫০-এ রাজি হয় কেন্দ্র এবং রাজ্য। কিন্তু এখনও কেন্দ্র কোনো টাকা না দেওয়ায় রীতিমতো ক্ষুব্ধ রাজ্য। ঘাটাল মাস্টার প্ল্যান পুরোপুরি বাস্তবায়িত করলে ১২১৪.৯২ কোটি টাকা খরচ হওয়ার কথা।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here