বিষ্ণুপুরে ছাত্রীকে শ্লীলতাহানি, মহকুমা শাসকের হস্তক্ষেপের পর দুষ্কৃতী ধৃত

deputation to sdo bishnupur

নিজস্ব সংবাদদাতা,বাঁকুড়া: মহকুমা শাসকের হস্তক্ষেপে এক নাবালিকা ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে এক দুষ্কৃতীকে গ্রেফতার করতে বাধ্য হল পুলিশ। বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুর শহরের ভাটপুকুর এলাকার ঘটনা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গত সোমবার সকাল দশটা নাগাদ বিষ্ণপুরের ভাটপকুরের রাস্তায় একাদশ শ্রেণির এক ছাত্রীকে টিউশন যাওয়ার পথে এক ব্যক্তি শ্লীলতাহানি করে বলে অভিযোগ। এই ঘটনার পর বিষয়টি পুলিশে জানালে ‘ফল ভালো হবে না’ বলেও এলাকায় দুষ্কৃতী হিসেবে পরিচিত শেখ লালু হুমকি দেয় বলে অভিযোগ। কিন্তু ওই নিগৃহীতা ছাত্রীর পরিবার হুমকির কাছে নতিস্বীকার না করে বিষ্ণুপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। কিন্তু অভিযুক্ত ব্যক্তি গ্রেফতার না হওয়ায় ছাত্রীর পরিবারের তরফে মহকুমাশাসককে জানানো হয়। স্বয়ং মহকুমাশাসক দ্রুততার সঙ্গে পুলিশকে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেন। বুধবার রাত পর্যন্ত অভিযুক্ত গ্রেফতার না হওয়ায় এলাকায় তীব্র চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। বৃহস্পতিবার নিগৃহীতা ছাত্রীর সহপাঠী, শিক্ষক, শিক্ষিকারা অভিযুক্তকে গ্রেফতারের দাবিতে মিছিল করে মহকুমা শাসকের কার্যালয়ে ডেপুটেশন দেন। পরে এ দিন মহকুমাশাসকের হস্তক্ষেপে পুলিশ ওই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে বিষ্ণুপুর মহকুমা আদালতে তোলে।

আরও পড়ুন ছাত্রদের স্বীকারোক্তির পর সাসপেনশন প্রত্যাহার, জট কাটল প্রেসিডেন্সিতে

নিগৃহীতা ছাত্রীর মা বলেন, নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। সকাল দশটায় এত বড়ো একটা ঘটনা যদি ঘটতে পারে, রাত দশটায় যখন সে টিউশন থেকে বাড়ি থেকে ফেরে সেই সময় এই ঘটনা ঘটলে কী হত কে জানে। ওই ছাত্রীর শিক্ষিকা সাধনা ভুঁইয়্যা বলেন, বিষ্ণুপুর শহরে আগে এ ধরনের কোনো ঘটনা ঘটেনি। এই ঘটনায় তাঁরা যথেষ্ট আতঙ্কিত। অভিযুক্ত গ্রেফতার হওয়ার খবরে তাঁরা খুশি। নিরাপত্তার বিষয়টি মহকুমাশাসক দেখবেন বলে তাঁদের জানিয়েছেন বলে সাধনাদেবী জানান। ছাত্র, ছাত্রী, শিক্ষক-শিক্ষিকাদের সঙ্গে আসা পরিচালন কমিটির সভাপতি অভিজিৎ সিংহ বলেন, নিগৃহীতা ছাত্রীর মা স্কুল কর্তৃপক্ষকে লিখিত ভাবে এই বিষয়ে জানান। স্কুল কর্তৃপক্ষের তরফে অভিযুক্তের শাস্তির দাবি করে এই ধরনের ঘটনা ভবিষ্যতে যাতে না ঘটে তা দেখার জন্য প্রশাসনকে অনুরোধ করা হয়।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.