নয়াদিল্লি : পরীক্ষার মাসে  লাউডস্পিকার বাজানো নিয়ে রাজ্যের নির্দেশ বহাল রাখল সুপ্রিম কোর্ট। সোমবার বিজেপির আবেদন খারিজ করে দিল দেশের সর্বোচ্চ আদালত। বিজেপির আর্জি ছিল, ফেব্রুয়ারি মার্চ মাসে লাউডস্পিকার বাজানো নিয়ে ২০১৩ সালের পশ্চিমবঙ্গ সরকারের দেওয়া নির্দেশ খারিজ করে দিক সর্বোচ্চ আদালত। কিন্তু না, সর্বোচ্চ আদালত জানিয়ে দিল, নির্বাচনী প্রচারের চেয়ে পড়ুয়াদের পড়াশোনা অনেক বেশি জরুরি। প্রসঙ্গত, ২০১৩ সালের রাজ্যের ওই নির্দেশিকায় বলা হয়েছিল, এই দুই মাস পরীক্ষার সময়, তাই স্কুল আর জনবসতিযুক্ত এলাকায় বাজানো যাবে না লাউডস্পিকার।

কেন্দ্র রাজ্য তরজায় রাজ্য বিজেপির এই আবেদন রাজ্য সরকারের সাংবিধানিক বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিয়েছিল। বিজেপির দাবি ছিল, তৃণমূলের সরকার পরিকল্পিত ভাবে তাদের নির্বাচনী প্রচার বন্ধ করার লক্ষ্যে এই নির্দেশ দিয়েছে। যাতে এপ্রিল মে মাসের সাধারণ নির্বাচনের জন্য রাজ্যে বিজেপি জনসমর্থন গড়ে তুলতে না পারে।

আরও পড়ুন – এয়ারটেল বনাম রিলায়েন্স জিও বনাম ভোডাফোন ২০০ টাকার কমে প্রিপেড রিচার্জ প্ল্যান

পাশাপাশি বিজেপির বক্তব্য ছিল, রাজ্য সরকার শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণ করতে বাধ্য। কিন্তু তা বলে জনবসতিপূর্ণ এলাকায় লাউডস্পিকার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করতে পারে না।

আবেদনে আরও বলা হয়েছিল, নির্বাচনের সময় বিশেষত সাধারণ নির্বাচনের সময় পরিবেশগত বিধিনিষেধের পরিমাণ কমবেশি লঙ্ঘিত হয়। তা ছাড়াও এই নির্দেশিকার মাধ্যমে বাকস্বাধীনতা হরণ করা হচ্ছে রাজনৈতিক দলগুলির। তাদের জন সমর্থন গড়ে তোলার পথে বাধা সৃষ্টি করা হচ্ছে। জনগণকে তাদের প্রতিনিধিদের সম্পর্কে জানতে দেওয়া হচ্ছে না।

উল্লেখ্য, এর আগে এ রাজ্যে বিজেপির রথযাত্রা নিয়ে রাজ্যের রায়কে এক প্রকার সায় দিয়েই বিজেপিকে নতুন করে কর্মসূচি তৈরি করার নির্দেশ দিয়েছিল সর্বোচ্চ আদালত। এই বার আবার রাজ্যের রায় বহাল রাখল সুপ্রিম কোর্ট।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here