প্রতীকী ছবি

কলকাতা: এই প্রথম রাজ্যের কোনো সরকারি হাসপাতালে সফল ভাবে হৃদযন্ত্র প্রতিস্থাপন করা হল। এসএসকেএম থেকে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে হৃদযন্ত্র নিয়ে যাওয়া হয়। গ্রিন করিডোর হওয়ায় এই পথ পাড়ি দিতে মাত্র ছ’মিনিট সময় লাগে।

শুক্রবার বিকেলে এসএসকেএম হাসপাতালে পূজালির বাসিন্দা বছর তিরিশের সৈকত লাট্টুর ব্রেন ডেথ ঘোষণা করেন চিকিৎসকেরা। এর পরই লাট্টু পরিবারের কাছে মরণোত্তর অঙ্গদানের প্রস্তাব দেওয়া হয়। প্রাথমিক সংশয় কাটিয়ে একমাত্র সন্তানের মরণোত্তর অঙ্গদানে সম্মতি দেন সৈকত লাট্টুর বাবা স্বদেশ লাট্টু।

অঙ্গ প্রতিস্থাপনের জন্য গ্রহীতার খোঁজ নেওয়া শুরু হয়। জানা যায়, সৈকতের হৃদযন্ত্রের ম্যাচিং গ্রহীতা চিকিৎসাধীন রয়েছেন মেডিক্যাল কলেজে। ৩৮ বছর বয়সি রাখাল দাসের হৃদযন্ত্রে গুরুতর সমস্যা রয়েছে। ঠিক হয়, তাঁকেই সৈকতের হৃদযন্ত্র দেওয়া হবে।

কিডনি এবং লিভার রাজ্যের সরকারি হাসপাতালে প্রতিস্থাপিত হলেও এর আগে হৃদযন্ত্র প্রতিস্থাপন হয়নি। সুতরাং রাজ্যের স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় এ এক নতুন পালক।

মেডিক্যাল কলেজ সূত্রে জানা গিয়েছে, হৃদযন্ত্র প্রতিস্থাপনের পরে সুস্থ রয়েছেন রাখালবাবু।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here