Connect with us

রাজ্য

করোনায় মৃত্যুর আর সুস্থতার হারে রাজ্যের জেলাগুলোর অবস্থান বর্তমানে কী রকম

রোগীর সংখ্যার সঙ্গে তুলনামূলক বিচার করলে দেখা যাবে যে সুস্থতার হার মৃত্যুর হারের নিরিখে সব থেকে ভালো অবস্থানে রয়েছে মালদা।

Published

on

coronavirus

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দিন দিন করোনা-আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। শুক্রবার এক দিনেই রাজ্যে আক্রান্ত হয়েছেন ২৪৯৬ জন, যা এখনও পর্যন্ত সর্বোচ্চ। যদিও এরই মধ্য স্বস্তির খবরও রয়েছে। তা হল রাজ্যে করোনায় গড় মৃত্যুহার কমে এসেছে অনেকটাই।

জুনে যে মৃত্যুহার চার শতাংশের ওপরে ছিল, সেটা এখন কমে হয়েছে ২.২৫ শতাংশ। অন্য দিকে রাজ্যের গড় সুস্থতার হার এখন ৬৯ শতাংশ ছুঁইছুঁই।

রাজ্যের মধ্যে মৃত্যুহারে এগিয়ে রয়েছে কলকাতা। কিন্তু সেখানেও স্বস্তির খবর রয়েছে। এক মাস আগে শহরে করোনায় মৃত্যুহার ৬ শতাংশের ওপরে ছিল। কিন্তু এখন সেটা কমে সাড়ে তিন শতাংশে নেমে এসেছে।

Loading videos...

আবার রোগীর সংখ্যার সঙ্গে তুলনামূলক বিচার করলে দেখা যাবে যে সুস্থতার হার মৃত্যুর হারের নিরিখে সব থেকে ভালো অবস্থানে রয়েছে মালদা।

একবার দেখে নেওয়া যাক সুস্থতা আর মৃত্যুর হারে রাজ্যের জেলাগুলির অবস্থান ঠিক কী রকম। সব তথ্যই শনিবার সকাল পর্যন্ত পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে।

১) কলকাতা

মোট রোগী – ২১,৬৩৯

সুস্থতার হার – ৬৭.০৩ শতাংশ

মৃত্যুহার – ৩.৫১ শতাংশ

২) উত্তর ২৪ পরগণা

মোট রোগী – ১৫,১৩১

সুস্থতার হার – ৬৪.৯১ শতাংশ

মৃত্যুহার – ২.২৫ শতাংশ

৩) হাওড়া

মোট রোগী – ৭,৭৫০

সুস্থতার হার – ৭৩.০৮ শতাংশ

মৃত্যুহার – ২.৫৬ শতাংশ

৪) দক্ষিণ ২৪ পরগণা

মোট রোগী – ৫,১৮২

সুস্থতার হার – ৭২.৫৩ শতাংশ

মৃত্যুহার – ১.৬৭ শতাংশ

৫) হুগলি

মোট রোগী – ৩,৪১১

সুস্থতার হার – ৭০.১৫ শতাংশ

মৃত্যুহার – ১.৭৮ শতাংশ

৬) মালদা

মোট রোগী – ২,২৮৭

সুস্থতার হার – ৮৫.১৩ শতাংশ

মৃত্যুহার – ০.৫২ শতাংশ

৭) দার্জিলিং

মোট রোগী – ২,১৬৬

সুস্থতার হার – ৬৯.৮৯ শতাংশ

মৃত্যুহার – ১.০১ শতাংশ

৮) পূর্ব মেদিনীপুর

মোট রোগী – ১,৫১৮

সুস্থতার হার – ৭২.৩৯ শতাংশ

মৃত্যুহার – ০.৮৫ শতাংশ

৯) জলপাইগুড়ি

মোট রোগী – ১,৩১৪

সুস্থতার হার – ৭১.৫৩ শতাংশ

মৃত্যুহার – ০.৮৩ শতাংশ

১০) পশ্চিম মেদিনীপুর

মোট রোগী – ১,১৮৩

সুস্থতার হার – ৭৩.৩৭ শতাংশ

মৃত্যুহার – ১.২৬ শতাংশ

১১) উত্তর দিনাজপুর

মোট রোগী – ১,১৫৭

সুস্থতার হার – ৬৭.৪১ শতাংশ

মৃত্যুহার – ০.৬০ শতাংশ

১২) দক্ষিণ দিনাজপুর

মোট রোগী – ১,১৫৫

সুস্থতার হার – ৭৮.৬১ শতাংশ

মৃত্যুহার – ০.৬০ শতাংশ

১৩) নদিয়া

মোট রোগী – ১,০১৬

সুস্থতার হার – ৬৭.৫১ শতাংশ

মৃত্যুহার – ০.৯৮ শতাংশ

১৪) পূর্ব বর্ধমান

মোট রোগী – ৮৬০

সুস্থতার হার – ৬০.৬৯ শতাংশ

মৃত্যুহার – ০.৪৬ শতাংশ

১৫) মুর্শিদাবাদ

মোট রোগী – ৮১৪

সুস্থতার হার – ৬৯.৪১ শতাংশ

মৃত্যুহার – ১.৩১ শতাংশ

১৬) পশ্চিম বর্ধমান

মোট রোগী – ৮০৮

সুস্থতার হার – ৬৪.৭২ শতাংশ

মৃত্যুহার – ১.১১ শতাংশ

১৭) বাঁকুড়া

মোট রোগী – ৭৩২

সুস্থতার হার – ৫৯.২৮ শতাংশ

মৃত্যুহার – কারও মৃত্যু হয়নি

১৮) কোচবিহার

মোট রোগী – ৭০৯

সুস্থতার হার – ৬৯.৬৭ শতাংশ

মৃত্যুহার – কারও মৃত্যু হয়নি

১৯) বীরভূম

মোট রোগী – ৫৮৫

সুস্থতার হার – ৬৭.৩৫ শতাংশ

মৃত্যুহার – ১.০২ শতাংশ

২০) আলিপুরদুয়ার

মোট রোগী – ৩৪৭

সুস্থতার হার – ৬৭.১৪ শতাংশ

মৃত্যুহার – ০.৫৭ শতাংশ

২১) পুরুলিয়া

মোট রোগী – ২৪১

সুস্থতার হার – ৬৬.৩৯ শতাংশ।

মৃত্যুহার – কারও মৃত্যু হয়নি।

২২) কালিম্পং

মোট রোগী – ৮৯

সুস্থতার হার – ৭৯.৭৭ শতাংশ

মৃত্যুহার – ১.১২ শতাংশ

২৩) ঝাড়গ্রাম

মোট রোগী – ২৮

সুস্থতার হার – ১০০ শতাংশ

মৃত্যুহার – কারও মৃত্যু হয়নি

দঃ ২৪ পরগনা

কুলতলিতে মহিলা সমবায় সমিতিতে আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগ, মীমাংসা চেয়ে পাশে দাঁড়াল এপিডিআর

আনুমানিক ২২-২৫ লক্ষেরও বেশি টাকার হিসেব চাইছেন মহিলা সদস্যরা।

Published

on

বিডিও অফিসে বিক্ষোভ। ছবি: প্রতিবেদক

উজ্জ্বল বন্দ্যোপাধ্যায়, কুলতলি: মহিলা সমবায় সমিতিতে দুর্নীতির বিরুদ্ধে এ বার মহিলাদের পাশে দাঁড়াল এপিডিআর। কুলতলির মৈপীঠ ভুবনেশ্বরী গ্রাম পঞ্চায়েতের সংঘ মহিলামহল প্রাথমিক বহুমুখী সমিতির (মহিলা সমবায় সমিতি) বিভিন্ন দুর্নীতির বিরুদ্ধে বুধবার দুপুরে কুলতলি বিডিও অফিসে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ দেখালেন সমিতির প্রায় শ’চারেক মহিলা সদস্য।

উল্লেখ্য, গত বছরের ৩০ ডিসেম্বর কুলতলির বিডিও’র অনুমতিতে বিডিও অফিসে সমবায় সমিতির সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেই সভায় জয়েন্ট বিডিও, নোডাল অফিসার, এসএইচজি সুপারভাইজার, সমবায় সমিতির সিআই, জেলা পরিষদ সদস্য, খাদ্য দফতরের কর্মাধ্যক্ষের উপস্থিতিতে সমবায় সমিতির মহিলারা সমিতির ‘দুর্নীতিবাজ’ মূল পরিচালন কমিটির পরিবর্তনের দাবি তোলেন এবং গত চার বছরের সমস্ত টাকার (আনুমানিক ২২-২৫ লক্ষের বেশি) হিসেব চান।

[প্রতিবাদে সদস্যারা। ছবি: প্রতিবেদক]

Loading videos...

অভিযোগ, পরিবর্তনের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ওই সভায় সদস্যাদের দিয়ে সাদা কাগজে সই করিয়ে নেওয়া হলেও তাঁদের সম্পূর্ণ অন্ধকারে রেখে পরবর্তীতে সেই প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করে রেজোলিউশন পেপার পরিবর্তন করে দেওয়া হয়। আর তাই এ বিষয়ে এগিয়ে আসে মানবাধিকার সংগঠন এপিডিআর (APDR)। তাদের প্রতিনিধি দল এ দিন কুলতলির বিডিওর সঙ্গে দেখা করে বিষয়টি মীমাংসার দাবি জানায়।

এ ব্যাপারে এপিডিআরের জেলা সম্পাদক আলতাফ হোসেন বলেন, “এই দুর্নীতির বিরুদ্ধে আন্দোলনরত মহিলাদের পাশে এপিডিআর আছে এবং মহিলাদের দাবি মেনে বিষয়টি নিষ্পত্তি না হলে আমরা বৃহত্তর আন্দোলনের পথে নামব। আমরা চাই, অবিলম্বে বার্ষিক সাধারণ সভা ডেকে গত চার বছরের হিসেব সাধারণ সদস্যদের সামনে দিতে হবে। আর্থিক দুর্নীতি হয়ে থাকলে দুর্নীতিগ্রস্তদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত প্রশাসনিক ব্যবস্থা নিতে হবে”।

এ ব্যাপারে কুলতলির বিডিও বিএন অধিকারী বলেন, আগামী ৩০ তারিখে এ বিষয়ে আলোচনায় বসা হবে। যাতে এ বিষয়টি সুষ্ঠু ভাবে সমাধান করা যায় সেটা দেখা হচ্ছে।

আরও পড়তে পারেন: ‘দুয়ারে সরকার’-এর সাফল্যের খতিয়ান প্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

Continue Reading

ঝাড়গ্রাম

তৃণমূলকে ভোট ‘না’ বলে দিন, ঝাড়গ্রামের সভায় বললেন শুভেন্দু অধিকারী

কুড়মি-আদিবাসীদের বার্তা দিলেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী।

Published

on

শুভেন্দু অধিকারী। ছবি: ফেসবুক থেকে

খবর অনলাইন ডেস্ক: বুধবার ঝাড়গ্রামের সভা থেকে কুড়মি-আদিবাসীদের বার্তা দিলেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari)।

সামনে বিধানসভা ভোট। জঙ্গলমহলের বিস্তীর্ণ অঞ্চল জুড়ে কুড়মি-সহ অন্যান্য জনজাতিকে কাছে পেতে মরিয়া বিজেপি। এ দিনের সভা থেকে সরাসরি তেমন বার্তাই দিতে শোনা গেল শুভেন্দুকে।

তিনি বলেন, “কুড়মিদের সংরক্ষণ, চাকরি দেওয়া হয়নি। তাঁদের ক্রমশ পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। কুড়মিদের বলব, এগিয়ে যেতে হলে, অধিকার পেতে হলে বিজেপিকে ভোট দিন। তফসিলিদের কথা এক মাত্র ভেবেছে বিজেপি। সাঁওতালি ভাষাকে স্বীকৃতি দিয়েছিলেন প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ি”।

Loading videos...

কুড়মিদের একটা বৃহত্তর অংশে তৃণমূলের প্রভাব যথেষ্ট। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও তাঁদের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন। এ বিষয়ে শুভেন্দু বলেন, “মুখ্যমন্ত্রী অলচিকি ভাষার স্বীকৃতির দাবি করেন। আপনারা অলচিকি ভাষায় কি বই বা সিলেবাস পেয়েছেন। অলচিকি ভাষায় কি শিক্ষক নিয়োগ হয়েছে”?

তৃণমূলকে ভোট না দেওয়ার আবেদন জানিয়ে শুভেন্দু বলেন, “তৃণমূল কংগ্রেসকে ভোটে না বলে দিন। তৃণমূল ঝাড়গ্রামের উন্নয়ন চুরি করেছে। তৃণমূলের এখন চুরি ছাড়া কোনো কাজ নেই। ওদের শ্মশানে যাওয়ার সময় এসেছে”।

অঞ্চলের মানুষ বিজেপির সঙ্গে রয়েছে বলে দাবি করে প্রাক্তন পরিবহণমন্ত্রী বলেন, “জঙ্গলমহলকে আমি হাতের তালুর মতো চিনি। এখানকার মানুষ বিজেপির সঙ্গে রয়েছেন। ২০২১-এর প্রতীক্ষায় রয়েছেন তাঁরা”।

আরও পড়তে পারেন: ‘দুয়ারে সরকার’-এর সাফল্যের খতিয়ান প্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

Continue Reading

রাজ্য

‘দুয়ারে সরকার’-এর সাফল্যের খতিয়ান প্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

এখনও পর্যন্ত ১ কোটি ৩০ লক্ষেরও বেশি মানুষের কাছে পরিষেবা পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।

Published

on

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবি: ফেসবুক থেকে

খবর অনলাইন ডেস্ক: বুধবার নবান্নের সাংবাদিক বৈঠকে ‘দুয়ারে সরকার’ (Duare Sarkar)-সহ রাজ্য সরকারের একাধিক প্রকল্পের সাফল্যের খতিয়ান প্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)।

‘দুয়ারে সরকার’ ও ‘পাড়ায় সমাধান’ প্রকল্প দু’টির পর্যালোচনা বৈঠকের পর এ দিন বিভিন্ন প্রকল্পের সুবিধা প্রাপকদের হাতে তুলে দেন মুখ্যমন্ত্রী। একই সঙ্গে ‘চোখের আলো’ প্রকল্পের অধীনে রাজ্যের সমস্ত ব্লকে ৫০,০০০-এর বেশি চশমা বিতরণ কর্মসূচির সূচনা করেন মুখ্যমন্ত্রী।

রাজ্য সরকারের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, এই কর্মসূচিতে এখনও পর্যন্ত ১ কোটি ৩০ লক্ষেরও বেশি মানুষের কাছে পরিষেবা পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে শুধু স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পেই ৭৬ লক্ষ মানুষ নাম নথিভুক্ত করেছেন। এ ছাড়া পাড়ায় সমাধান প্রকল্পে এখনও পর্যন্ত ১০ হাজারেরও বেশি প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে।

Loading videos...

দুয়ারে সরকার কর্মসূচিতে ১২টি প্রকল্পের সুবিধা সাধারণ মানুষের মানুষের দোরগড়ায় পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। এই কর্মসূচির মেয়াদ পঞ্চম বারের জন্য বাড়ানো হয়েছে সাধারণ মানুষের চাহিদার কথা বিবেচনা করে।

এ দিনের সাংবাদিক বৈঠকে ‘দুয়ারে সরকার’ ও ‘পাড়ায় সমাধান’ নামে দু’টি বই প্রকাশ করলেন মমতা। ওই বই দু’টি দেশ-বিদেশের বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের সম্পাদককে দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি দেশের শীর্ষ প্রশাসকদের কাছেও পাঠানো হয়েছে।

দুয়ারে সরকার কর্মসূচির প্রাসঙ্গিকতা সম্পর্কে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “রাজ্য সরকার মানুষের কাছে সরকারি সুবিধা পৌঁছে দিতে বদ্ধ পরিকর। জেলায় জেলায় প্রশাসনকে সঙ্গে নিয়ে সাধারণ মানুষের সমস্যার কথা আমরা শুনেছি। সমাধানের চেষ্টাও করা হয়েছে। তবে কেউ যদি এখনও কোনো সরকারি প্রকল্পের সুবিধা না পেয়ে থাকেন, নাম নথিভুক্তির মাধ্যমে তাঁর কাছে সেটা পৌঁছে দিতেই এই কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে”।

তিনি বলেন, “স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পে পাঁচ লক্ষ টাকার স্বাস্থ্যবিমার সুযোগ দিচ্ছে রাজ্য সরকার। বেসরকারি হাসপাতালেও সাধারণ মানুষ চিকিৎসা করাতে পারবেন এই স্বাস্থ্যসাথী কার্ড দেখিয়ে। রাজ্যের ১০ কোটি মানুষ এই প্রকল্পের আওতায় এলে আমি খুশি হবে”।

পাশাপাশি খাদ্যসাথী প্রকল্পে মাথা পিছু ৫ কেজি চাল, কন্য়াশ্রী, সবুজ সাথী, একশো দিনের কাজ ইত্যাদি প্রকল্পে রাজ্য সরকারের সাফল্যের খতিয়ান তুলে ধরেন মুখ্যমন্ত্রী।

আরও পড়তে পারেন: ফের অসুস্থ সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
দঃ ২৪ পরগনা7 mins ago

কুলতলিতে মহিলা সমবায় সমিতিতে আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগ, মীমাংসা চেয়ে পাশে দাঁড়াল এপিডিআর

দেশ35 mins ago

ন’মাস পরে দিল্লিতে দৈনিক কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা একশোর নীচে!

বিনোদন1 hour ago

‘তাণ্ডব’-এর নির্মাতা, অভিনেতাকে সম্ভাব্য গ্রেফতারির হাত থেরে সুরক্ষা দেওয়ার আরজি ফেরাল সুপ্রিম কোর্ট

দেশ2 hours ago

২৬ জানুয়ারির হিংসাত্মক ঘটনার জেরে কৃষক বিক্ষোভ থেকে সরে দাঁড়াল দু’টি সংগঠন

বিদেশ3 hours ago

কোভিড-১৯ আটকাতে নাকে নেওয়ার স্প্রে আবিষ্কার করলেন বার্মিংহাম বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা

ঝাড়গ্রাম3 hours ago

তৃণমূলকে ভোট ‘না’ বলে দিন, ঝাড়গ্রামের সভায় বললেন শুভেন্দু অধিকারী

রাজ্য4 hours ago

‘দুয়ারে সরকার’-এর সাফল্যের খতিয়ান প্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

রাজ্য5 hours ago

ফের অসুস্থ সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়

শিল্প-বাণিজ্য9 hours ago

ফের বাড়ল পেট্রোল, ডিজেলের দাম, কলকাতায় নতুন রেকর্ড

ফুটবল2 days ago

বিমান দুর্ঘটনায় মৃত্যু ব্রাজিলের ফুটবল ক্লাবের প্রেসিডেন্ট ও চার ফুটবলারের

কলকাতা1 day ago

উত্তর কলকাতার অলিতেগলিতে লুকিয়ে রয়েছে ইতিহাস, সাধারণতন্ত্র দিবসে হেঁটে দেখা

কলকাতা2 days ago

নারকেলডাঙার ছাগলপট্টিতে আগুন, হতাহতের খবর নেই

প্রযুক্তি1 day ago

টিকটক-সহ ৫৯টি চিনা অ্যাপ চিরতরে বন্ধ করে দিল কেন্দ্র

অ্যাডভেঞ্চার2 days ago

হাতে হাত ধরে, জাতীয় সংগীত গেয়ে কে-২ আরোহণ নেপালের দশ শেরপার, দেখুন ভিডিও

রাজ্য9 hours ago

কনকনে উত্তুরে হাওয়া ঢুকছে রাজ্যে, প্রবল শীতের সম্ভাবনা রাজ্য জুড়ে

রাজ্য2 days ago

মেঘ-কুয়াশার যুগলবন্দিতে বাড়ল পারদ, তবে শীত ফিরবে দ্রুত

কেনাকাটা

কেনাকাটা4 days ago

বাসন্তী রঙের পোশাক খুঁজছেন?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই আসছে সরস্বতী পুজো। সেই দিন হলুদ বা বাসন্তী রঙের পোশাক পরার একটা চল রয়েছে অনেকের মধ্যেই। ওই...

কেনাকাটা4 days ago

ঘরদোরের মেকওভার করতে চান? এগুলি খুবই উপযুক্ত

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘরদোর সব একঘেয়ে লাগছে? মেকওভার করুন সাধ্যের মধ্যে। নাগালের মধ্যে থাকা কয়েকটি আইটেম রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার...

কেনাকাটা5 days ago

সিলিকন প্রোডাক্ট রোজের ব্যবহারের জন্য খুবই সুবিধেজনক

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন সামগ্রী এখন সিলিকনের। এগুলির ব্যবহার যেমন সুবিধের তেমনই পরিষ্কার করাও সহজ। তেমনই কয়েকটি কাজের সামগ্রীর খোঁজ...

কেনাকাটা6 days ago

আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজ রইল আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার সময় যে দাম ছিল...

কেনাকাটা6 days ago

রান্নাঘরের এই সামগ্রীগুলি কি আপনার সংগ্রহে আছে?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরে বাসনপত্রের এমন অনেক সুবিধেজনক কালেকশন আছে যেগুলি থাকলে কাজ অনেক সহজ হয়ে যেতে পারে। এমনকি দেখতেও সুন্দর।...

কেনাকাটা1 week ago

৫০% পর্যন্ত ছাড় রয়েছে এই প্যান্ট্রি আইটেমগুলিতে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দৈনন্দিন জীবনের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলির মধ্যে বেশ কিছু এখন পাওয়া যাচ্ছে প্রায় ৫০% বা তার বেশি ছাড়ে। তার মধ্যে...

কেনাকাটা1 week ago

ঘরের জন্য কয়েকটি খুবই প্রয়োজনীয় সামগ্রী

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় ও সুবিধাজনক বেশ কয়েকটি সামগ্রীর খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদনটি লেখার সময় যে দাম ছিল তা-ই...

কেনাকাটা2 weeks ago

৯৯ টাকার মধ্যে ব্র্যান্ডেড মেকআপের সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : ব্র্যান্ডেড সামগ্রী যদি নাগালের মধ্যে এসে যায় তা হলে তো কোনো কথাই নেই। তেমনই বেশ কিছু...

কেনাকাটা3 weeks ago

কয়েকটি ফোল্ডিং আইটেম খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক: এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি সঙ্গে থাকলে অনেক সুবিধে হত বলে মনে হয়, কিন্তু সব সময় তা পাওয়া...

কেনাকাটা3 weeks ago

রান্নাঘরের কাজ এগুলি সহজ করে দেবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের কাজ অনেক বেশি সহজ করে দিতে পারে যে সমস্ত জিনিস, তারই কয়েকটির খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

নজরে