farooq abdullah

শ্রীনগর: তিন দিকে তিন পরমাণুশক্তি। এর মধ্যে স্বাধীন রাষ্ট্রের কথা ভাবতেই পারে না কাশ্মীর। শনিবার এমনই বললেন ন্যাশনাল কনফারেন্সের প্রেসিডেন্ট তথা শ্রীনগরের সাংসদ ফারুক আবদুল্লাহ।

সেই সঙ্গে পাক-অধিকৃত কাশ্মীর যে আদতে পাকিস্তানের আওতাতেই থেকে যাবে সে কথাও বলে দেন ফারুক। তাঁর দাবি, ভারত এবং পাকিস্তান নিজেদের মধ্যে যতই যুদ্ধ করুক, কোনো দিনও পাক-অধিকৃত কাশ্মীরকে ফেরত পাওয়া যাবে না।

শনিবার দলীয় অনুষ্ঠান চলাকালীন সাংবাদিকদের তিনি বলেন, “স্বাধীন কাশ্মীর কোনো ভাবেই সম্ভব নয়। আমাদের তিন দিকে তিন পরমাণু শক্তিধারী দেশ ভারত, পাকিস্তান এবং চিন। বিপদে পড়লে আমাদের আল্লার নাম নেওয়া ছাড়া আর কোনো উপায় নেই।” তিনি আরও বলেন, “যে বিচ্ছিন্নতাবাদীরা স্বাধীনতার কথা বলছে তারা অসত্য কথা বলছে।”

ভারত যে কাশ্মীরের প্রতি বিশ্বাসঘাতকতা করেছে সে কথাও বলেন ফারুক। “আমরা ভালোবাসা থেকে ভারতের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। কিন্তু ভারত আমাদের সঙ্গে ভালো ব্যবহার করেনি। তারা বিশ্বাসঘাতকতা করেছে। আমাদের ভালোবাসার মর্যাদা দেওয়া হয়নি। সেই জন্যই কাশ্মীরের পরিস্থিতি এখন এ রকম টালমাটাল।”

উপত্যকায় শান্তি ফেরানোর একমাত্র রাস্তা যে স্বায়ত্তশাসন, সেটাও বলে দেন কাশ্মীরের প্রথম প্রধানমন্ত্রী শেখ আবদুল্লাহর ছেলে।

কিছু দিন আগেই বিদেশমন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী হংসরাজ আহির বলেছিলেন পাক অধিকৃত কাশ্মীর আদতে ভারতের। তার জবাবে ফারুক বলেন, “আপনাদের কি কাশ্মীরের ভারতভুক্তির চুক্তির কথা মনে নেই?” তিনি বলেন, “আমি ভারত এবং বিশ্ববাসীর কাছে জোর গলায় বলে দিতে চাই যে পাক-অধিকৃত কাশ্মীর পাকিস্তানের অংশ আর এই অংশটা ভারতের অংশ। এটা পালটাবে না। ভারত এবং পাকিস্তান নিজেদের মধ্যে যতই যুদ্ধ করুক এটা পালটাবে না।”

কাশ্মীরে শান্তি ফেরানোর জন্য যে ভারত এবং পাকিস্তানের আলোচনা ছাড়া আর কোনো উপায় নেই বলে জানান তিনি। সেই সঙ্গে তিনি জানিয়ে দেন, কাশ্মীরের দুই অংশকে স্বায়ত্তশাসন দেওয়াই একমাত্র সমাধান।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here