সোনামুখীতে গ্রেফতার। নিজস্ব চিত্র।
indrani sen
ইন্দ্রাণী সেন

বাঁকুড়া: অভিনব কায়দায় শিক্ষককে ব্ল্যাকমেল করার ঘটনায় দুই ছাত্রকে বুধবার গ্রেফতার করে সোনামুখী থানার পুলিশ। নবম ও একাদশ শ্রেণির ওই দুই ছাত্রকে ১২ দিন হোমে রাখার নির্দেশ দেয় বাঁকুড়া জুভেনাইল কোর্ট। এই ঘটনার সূত্র ধরেই বৃহস্পতিবার আরও দুই ছাত্রকে গ্রেফতার করল সোনামুখী থানার পুলিশ।

উল্লেখ্য, কর্মসূত্রে সোনামুখী শহরে ভাড়াবাড়িতে থাকা ধুলাই উচ্চ বিদ্যালয়ের ইংরেজির শিক্ষক বিপুল বিশ্বাসকে ব্ল্যাকমেল ও খুনের হুমকির অভিযোগে বুধবার দুই স্কুলছাত্রকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বৃহস্পতিবার তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে একটি বন্দুক, কয়েক রাউন্ড কার্তুজ, একটি গোপন ক্যামেরা ও ভয় দেখানোর জন্য একটি নকল টাইমবোমা উদ্ধার করে পুলিশ। পুলিশের জেরায় ধৃত ওই দুই ছাত্র ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ুয়া দীপান চ্যাটার্জি ও আরও এক স্কুলছাত্রের নাম করে। একই সঙ্গে তারা স্বীকার করে দীপান চ্যাটার্জির মাধ্যমে তারা তিরিশ হাজার টাকার বিনিময়ে ওই বন্দুক হাতে পায়। সূত্র পেয়েই পুলিশ বৃহস্পতিবার ওই দু’জনকে গ্রেফতার করে। স্কুলছাত্রটি নাবালক হওয়ার কারণে পুলিশের পক্ষ থেকে তাকে বাঁকুড়া জুভেনাইল কোর্টে ও দীপান চ্যাটার্জি নামে ধৃত ইঞ্জিনিয়ারিং ছাত্রকে বিষ্ণুপুর মহকুমা আদালতে তোলা হয়। দীপান চ্যাটার্জিকে পুলিশ নিজেদের হেফাজতে নিয়েছে।

ইঞ্জিনিয়ারিং ছাত্রের হাতে বন্দুক কী ভাবে এল পুলিশ তা তদন্ত করে দেখছে। এই ঘটনায় আরও কেউ জড়িত আছে কিনা সে বিষয়ে তদন্তকারী পুলিশ আধিকারিকরা এখনও নিশ্চিত নন। সে বিষয়েও তাঁরা খোঁজ নিচ্ছেন বলে জানিয়েছেন। শেষ পাওয়া খবরে জানা যায়, বিষ্ণুপুর আদালত ওই ইঞ্জিনিয়ারিং ছাত্রটিকে ৬ দিনের পুলিশি হেফাজত দিয়েছে। ৯ আগস্ট ওই ছাত্রকে পুনরায় বিষ্ণুপুর আদালতে তোলা হবে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here