মরশুমের শীতলতম দিন হলেও, জাঁকিয়ে ঠান্ডা এখনও দূরে

0
winter in kolkata

ওয়েবডেস্ক: পশ্চিমী ঝঞ্ঝার বাধা কাটতেই ঢুকে পড়ল উত্তুরে হাওয়া। আর তার জেরে এক ধাক্কায় আড়াই ডিগ্রি নেমে গেল কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। ফলে মঙ্গলবারের সকাল ছিল আপাতত এই মরশুমের শীতলতম। তবে জাঁকিয়ে ঠান্ডা এখনও দূরেই রয়েছে বলে জানাচ্ছেন আবহাওয়া বিশেষজ্ঞরা।

মঙ্গলবার কলকাতায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৬.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। মাত্র ২৪ ঘণ্টা আগেই তাপমাত্রা ছিল ১৯.১ ডিগ্রি। ফলে এক দিনের মধ্যে তাপমাত্রা আড়াই ডিগ্রি কমায় মুখে হাসি ফুটেছে কলকাতা। ধীরে ধীরে বেরোচ্ছে শীতবস্ত্রও।

তবে চমকে দেওয়া ব্যাপার হল, এ দিন পশ্চিমাঞ্চলের সঙ্গে কলকাতা ও তার পার্শ্ববর্তী অঞ্চলের পারদের সঙ্গে কোনো পার্থক্য নেই।

এ দিন আসানসোলের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৬.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বাঁকুড়ার তাপমাত্রা ছিল ১৬.৬। অন্য দিকে কলকাতার উপকণ্ঠের ব্যারাকপুরে পারদ নেমে গিয়েছে ১৪.১ ডিগ্রিতে। তবে দক্ষিণবঙ্গে এ দিন সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল শ্রীনিকেতনে। সেখানে তাপমাত্রা ছিল ১৩.৬।

আরও পড়ুন হাটে ‘হাঁড়ি’ ভেঙেছেন শরদ পওয়ার, মেয়ে বলছেন ‘মোদী মহান’!

উত্তরবঙ্গেও ধীরে ধীরে ভালোই ঠান্ডা পড়ছে। অবশেষে জাঁকিয়ে শীত পড়ছে দার্জিলিংয়েও। এ দিন দার্জিলিংয়ের পারদ রেকর্ড করা হয় ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। কোচবিহার, জলপাইগুড়ি এবং শিলিগুড়িতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল যথাক্রমে ১২.৬, ১৫.৪ এবং ১৪.৪।

আগামী ৭২ ঘণ্টায় পারদ পতন জারি থাকবে বলে জানাচ্ছে বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থা ওয়েদার আল্টিমা। এই সময়ে কলকাতার পারদ আরও কিছুটা নেমে ১৪-১৫ ডিগ্রির কাছাকাছি নেমে যেতে পারে। তবে শুক্রবার থেকে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা আবার কিছুটা বাড়তে পারে।

ওয়েদার আল্টিমার কর্ণধার রবীন্দ্র গোয়েঙ্কা জানাচ্ছেন, ৭ ডিসেম্বর থেকে একটা পশ্চিমী ঝঞ্ঝা হানা দিতে পারে। তার জেরে আবার ১৭-১৮ ডিগ্রিতে উঠতে পারে কলকাতার পারদ। ১৫ ডিসেম্বরের পর এক ধাক্কায় পারদের বড়ো পতন হতে পারে বলে আশ্বাস দিয়েছেন রবীন্দ্রবাবু। তখন কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১২-১৩-এর কাছাকাছি নেমে যেতে পারে।

ফলে শীতের অনুভূতি বাড়লেও, জোরদার শীতের জন্য এখনও অন্তত ১২ দিন অপেক্ষা করতে হবে দক্ষিণবঙ্গবাসীকে।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন