সংক্রান্তিতে শীতের দাপট অনেকটাই কমল কলকাতা-সহ গোটা দক্ষিণবঙ্গে

0
kolkata winter

ওয়েবডেস্ক: পৌষ সংক্রান্তিতে না কি ঠান্ডা বেড়ে যায়! সাধারণ মানুষের একাংশের এমনই ধারণা। অনেকে যুক্তি দেন সংক্রান্তির দিন গঙ্গাসাগর থেকে হাওয়া আসার ফলে কাঁপানো ঠান্ডা পড়ে দক্ষিণবঙ্গে। কিন্তু এ বার তো পুরো উলটো ঘটনা ঘটে গেল।

কয়েক দিনের জোরদার ঠান্ডার দাপট সংক্রান্তির দিন অনেকটাই কমে গেল। কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা বাড়ল প্রায় দেড় ডিগ্রি।

বুধবার কলকাতায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৩.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। মঙ্গলবারের (১২.১) থেকে তা বেড়েছে ১.৪ ডিগ্রি। গত কয়েক দিন স্বাভাবিকের থেকে দু’-তিন ডিগ্রি কম থাকার পর বুধবার তাপমাত্রা স্বাভাবিকের ঘরে।

কলকাতার পাশাপাশি তাপমাত্রা বেড়েছে দক্ষিণবঙ্গের সর্বত্র। শ্রীনিকেতনে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা উঠে গিয়েছে ১০ ডিগ্রিতে। পুরুলিয়ায় এ দিন তাপমাত্রা ছিল ১০.২ ডিগ্রি। বর্ধমান, বাঁকুড়া, আসানসোলে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল যথাক্রমে ১২, ১৬.৬ আর ১১.৫ ডিগ্রি।

আরও পড়ুন চরম উত্তেজনার আবহেই পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে আমন্ত্রণ জানাবে ভারত

তবে গত দু’ দিনের মতো এ দিনও দক্ষিণবঙ্গের শীতলতম স্থানের তকমা ছিনিয়ে নিয়েছে পূর্ব মেদিনীপুরের কাঁথি। পশ্চিমাঞ্চলের জায়গাগুলিতে তাপমাত্রা যখন ১০-এর ওপরে, তখন এ দিন কাঁথিতে তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৮.৪ ডিগ্রি।

আগামী দিনগুলিতে তাপমাত্রা আরও বাড়বে দক্ষিণবঙ্গে। উত্তর ভারতে একের পর এক পশ্চিমি ঝঞ্ঝা ধেয়ে আসার প্রভাব পড়বে দক্ষিণবঙ্গে। বৃষ্টির সম্ভাবনা না থাকলেও, কলকাতায় আগামী কয়েক দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৬-১৭ ঘরে উঠে যেতে পারে। ২৯-৩০-এর কাঁটা ছুঁতে পারে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা।

পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলিতেও তাপমাত্রা বাড়বে। সেখানে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৪-১৫-এর ঘরে উঠে যেতে পারে। সব মিলিয়ে আগামী অন্তত দিন পাঁচেক জব্বর শীতের কোনো ব্যাপারই দক্ষিণবঙ্গে থাকবে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.