kolkata temperature falls
প্রতীকী ছবি

কলকাতা: দু’ দিন কুড়ির নীচে ছিল কলকাতার সর্বনিম্ন পারদ। আবার তা বেড়ে গেল। তবে আগামী ২৪ ঘণ্টার পর থেকে তাপমাত্রার বড়োসড়ো পতন হতে পারে বলে জানিয়েছে কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতর এবং বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থা ওয়েদার আল্টিমা।

বুধবার কলকাতার আলিপুরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ২০.১ ডিগ্রি। দমদমে পারদ ছিল ১৯.৫। মঙ্গলবারের থেকে কিছুটা বেড়েছে বুধবারের পারদ। এই পারদ বেড়ে যাওয়ার পেছনে তামিলনাড়ু উপকূলে অবস্থিত একটি নিম্নচাপকে দায়ী করছে ওয়েদার আল্টিমা। সেই নিম্নচাপের প্রভাবে মঙ্গলবার দুপুরের পর থেকে দক্ষিণবঙ্গের আকাশে কিছু মেঘ ঢুকতে শুরু করে। যার ফলে বুধবার সকালে পারদ নামতে পারেনি। বুধবার সকালেও কলকাতার আকাশ কিছুটা মেঘাচ্ছন্নই ছিল।

তবে রাজ্যের পশ্চিমাঞ্চলে শীত শীত ভাব ভালো রকমই বজায় রয়েছে। বুধবার দক্ষিণবঙ্গের শীতলতম জায়গা ছিল পানাগড়। সেখানে পারদ নেমে গিয়েছে ১৪.৪ ডিগ্রিতে। বোলপুর, কৃষ্ণনগর, আসানসোলে পারদ ছিল যথাক্রমে ১৫, ১৫.১ এবং ১৫.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। পুরুলিয়াতেও পারদ ১৫.১ রেকর্ড করা হয়। তুলনায় তাপমাত্রা কিছুটা বেশিই ছিল বাঁকুড়া এবং বর্ধমানে। এই দুই শহরে এ দিন সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল যথাক্রমে ১৬.২ এবং ১৬.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আরও পড়ুন দূষণ নিয়ন্ত্রণের জন্য এই সপ্তাহেই দিল্লিতে কৃত্রিম ভাবে বৃষ্টি নামানো হতে পারে

তবে আগামী ২৪ ঘণ্টার পর থেকে পারদ আরও বেশ কিছুটা কমবে। ওয়েদার আল্টিমার তরফে বলা হয়েছে, শুক্রবার ভোর থেকে কলকাতার পারদ ১৬-১৭ ডিগ্রির কাছাকাছি পৌঁছে যেতে পারে। শহরতলির পারদ চলে যেতে পারে ১৫ ডিগ্রিতে। কলকাতায় এতটা পারদ পতন হলে, পুরুলিয়া-বাঁকুড়া-বর্ধমানে তাপমাত্রা ১২-১৩ ডিগ্রিতে নেমে যেতে পারে।

ওয়েদার আল্টিমার কর্ণধার রবীন্দ্র গোয়েঙ্কা জানিয়েছেন, সম্প্রতি হিমাচল, উত্তরাখণ্ডের বিস্তীর্ণ অঞ্চলে তুষারপাত হয়েছে। সেই তুষারপাতের জেরে ঠান্ডা হাওয়া ঢুকবে দক্ষিণবঙ্গের বায়ুমণ্ডলে। অন্য দিকে তামিলনাড়ু উপকূলে নিম্নচাপটি ক্রমে দুর্বল হয়ে পড়বে। এর ফলেই তাপমাত্রা কমে যাবে দক্ষিণবঙ্গে। তবে এই পারদ পতন সাময়িক। সামনের সপ্তাহের শুরু থেকেই ফের বাড়তে পারে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here