dilip-ghosh

কলকাতা: সরাসরি নাম না করে রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের নেতৃত্বাধীন বঙ্গ-বিজেপির বিরুদ্ধে দলের সর্বোচ্চ নেতৃত্বর কাছে চিঠি পাঠিয়েছেন দলের নেতা চন্দ্র বোস। বুধবার তাঁর একটি টুইট নিয়েও রীতিমতো চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে দলের অন্দরে।

কয়েক সপ্তাহ ধরেই রাজ্য বিজেপির অন্তর্কলহ ক্রমশ প্রকাশ্যে আসতে শুরু করেছে। এ বিষয়ে দলের রাজ্যস্তরের শীর্ষ নেতারা যে একে অপরকে তোয়াক্কা করছেন না, সে কথাও প্রকাশ পেয়েছে। এক দিকে সভাপতি দিলীপবাবু, অন্য দিকে প্রাক্তন সভাপতি রাহুল সিনহা এবং মাঝখানে তৃণমূলত্যাগী বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের সমান্তরাল লবি নিয়ে ইতি মধ্যেই নানান গুঞ্জন শোনা গিয়েছে।

chandra-bose

চন্দ্রবাবু টুইটে লিকেছেন, “রাজ্য বিজেপিতে মনোনীত নয়, নির্বাচিত সভাপতি চাই”। পাশাপাশি তিনি সংবাদ মাধ্যমের সামনে বলেন, দিলীপবাবু আগামী ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত সভাপতিপদে থাকার কথা ফলাও করে বললেও, অন্য একটি অংশ চাইছে নতুন কেউ সভাপতি হন। স্বাভাবিক ভাবেই এই বিষয়ে কর্মীদের কাছে সঠিক বার্তা যাচ্ছে না। তাঁরা চন্দ্রবাবুকে ফোন করে জানতে চাইছেন, বর্তমানে রাজ্য বিজেপির নেতৃত্ব কে দিচ্ছেন?

চন্দ্রবাবুর এ হেন কর্মকাণ্ডে যথারীতি ক্ষুব্ধ হতেই পারেন দিলীপবাবু। অতীতেও দলের সা্ংসদ রূপা গঙ্গোপাধ্যায় একই পথে হেঁটে টুইটারের মাধ্যমে তাঁর ক্ষোভের কথা উগরে দেন। তখনও তিনি বলেছিলেন, এ সব দলীয় কথাবার্তা বলার জায়গা রয়েছে। দলের ভিতরের কথা এ ভাবে বলা উচিত নয়। চন্দ্রবাবুর ক্ষেত্রেও একই মত পোষণ করছেন তিনি। তবে তাঁর মতে, বিজেপি গণতান্ত্রিক দল। ফলে প্রত্যেকেই নিজের কথা বলতে পারে। কিন্তু তার জন্য কিছু নিয়মশৃঙ্খলা মেনে চলা প্রয়োজন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here