jal2
হাতে লাঠি রাজনৈতিক দলের। হাতে লাঠি পুলিশেরও-ফাইল চিত্র

কলকাতা: আগামী সোমবার পঞ্চায়েত ভোটের মনোনয়নে সম্ভাব্য অশান্তি ঠেকাতে বিশেষ ব্যবস্থা নিতে চলেছে রাজ্য নির্বাচন কমিশন। কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশ মেনেই প্রতিটি রাজনৈতিক দলের প্রার্থী যাতে নির্বিঘ্ন মনোনয়ন পেশ করতে পারেন, সে দিকেই সজাগ দৃষ্টি রাখছে কমিশন।

নির্বাচনের নির্ঘণ্ট ঘোষণার পর মনোননয়-মামলার জেরেই তা বাতিল করতে বাধ্য হয় কমিশন। বিজেপি, সিপিএম এবং কংগ্রেস-সহ অন্যান্য কয়েকটি রাজনৈতিক দল ও সংগঠন মনোনয়ন পেশে শাসক দলের সন্ত্রাসের অভিযোগ তুলে আদালতে গেলে সেখান থেকেই পুনরায় মনোনয়নের জন্য একটি বাড়তি দিন এবং নতুন করে ভোটসূচি ঘোষণার নি্র্দেশ দেওয়া হয় কমিশনকে। গত শনিবার রাজ্যের ১০টি প্রভাবশালী রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা বলে আপাতত মনোনয়ন জমার জন্য নির্ধারিত করা হয়েছে আগামী সোমবারকে। তবে ওই দিনও যাতে একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটে সে দিকে তাকিয়েই নিরাপত্তার স্বার্থে বিশেষ কয়েকটি পদক্ষেপ নিচ্ছেন কমিশন-কর্তারা।

আপাতত জানা গিয়েছে, সুষ্ঠু মনোনয়ন পেশের পরিবেশ তৈরিতে জেলার এসডিও এবং বিডিওদের কাছে নির্দিষ্ট নির্দেশিকা যাচ্ছে। যেখানে বলা হয়েছে, মনোনয়ন পেশের নির্ধারিত সময় সকাল ১১টা থেকে দুপুর ৩টে পর্যন্ত ওই সমস্ত প্রশাসনিক কার্যালয়গুলিতে যাতে শান্তি বিরাজ করে, সে দিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখতে। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট আধিকারিক স্থানীয় থানার সঙ্গে সমন্বয় সাধন করবেন। ঠিক একই ভাবে নির্দেশিকা যাচ্ছে জেলার পুলিশ আধিকারিদের কাছেও।

তবে সব থেকে চমকপ্রদ বিষয়টি হল সিসিটিভি ক্যামেরার ব্যবহার। মনোনয়ন পেশের কেন্দ্রগুলিতে প্রয়োজনে সিসিটিভি ক্যামেরা বসানোর কথা বলা হচ্ছে। যাতে কে বা কোন রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিরা অশান্তি বাঁধানোর সঙ্গে যুক্ত, তা স্পষ্ট ভাবে নির্ণয় করা যায়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here