parhta.jpg2

কলকাতা: শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল দেখা করলেন রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠীর সঙ্গে। তিনি রাজ্যপালকে এখনও পর্যন্ত জমা পড়া মনোনয়নের বিশদ বিবরণ দেন। সারা রাজ্যজুড়ে কী ভাবে শাসক দলের কর্মী-সমর্থকেরা আক্রান্ত হচ্ছেন, সে সব অভিযোগও প্রমাণ সহ ব্যাখ্যা করেন পার্থবাবু।

রাজভবন থেকে বেরিয়ে পার্থবাবু বলেন, “আমরাও সুষ্ঠু নির্বাচনে বিশ্বাসী। সারা রাজ্যে বিরোধী দলগুলি সম্মিলিত ভাবে কুৎসা রটাচ্ছে। আমরা প্রশ্ন তুলতে চাই, শাসক দল যদি মনোনয়ন পেশে বিরোধীদের বাধা দিচ্ছে তা হলে এই পরিসংখ্যান কী বলছে? আসলে মানুষের থেকে বিচ্ছিন্ন কিছু রাজনৈতিক দল এ ভাবে কুৎসা রটিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করতে।”

তিনি বলেন, “গত সাত বছরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সারা রাজ্য জুড়ে যে উন্নয়ন করেছেন, তাতে ভীত হয়ে পড়েছে বিরোধীরা। তাদের হাতে কোনো ইস্যু নেই। যে কারণে তারা সন্ত্রাসের আবহ তৈরি করার চেষ্টা করছে। শুধু মাত্র সংবাদ মাধ্যমে এই ধরনের সংঘর্ষের কথা তুলে ধরে সেই উন্নয়নের বিরুদ্ধে মানুষকে রায় দিতে বাধ্য করতে বিফল হবে। জনতা তাদের বিচার করবেন। রাজ্যপাল নন, নির্বাচন কমিশন নয়, জনতাই তাদের যোগ্য জবাব দেবেন।”

উল্লেখ্য, তৃতীয় দিনে মোট জমা পড়েছে১২,২৯৭টি। এর মধ্যে তৃণমূল কংগ্রেসের ৫৬৪৯টি এবং বিরোধী দলগুলির ৬৬৪৮টি। শতাংশের বিচারে বিরোধী দলের জমা করা মনোনয়নের হার ৫১ শতাংশের বেশি বলে জানান পার্থবাবু।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন