Bhagar

উজ্জ্বল বন্দ্যোপাধ্যায়, জয়নগর: ভাগাড়-কাণ্ডে উত্তাল পশ্চিমবঙ্গে অভিনব উপায়ে মৃত পশুর সৎকারের বন্দোবস্ত করল জাতীয় কংগ্রেস পরিচালিত দক্ষিণ ২৪ পরগনার জয়নগর-মজিলপুর পুরসভা। পুরসভার অন্তর্গত যোগীমিত্র শ্মশানঘাটের কাছেই নিজস্ব জমিতে মৃত পশুর শব পুঁতে দেওয়া হতো। কিন্তু সারা রাজ্য জুড়ে ভাগাড়-কাণ্ডের জেরে তৈরি হওয়া বিতর্ক মুছতে তৈরি হল অভিনব চেম্বার।

পুরপ্রধান সুজিত সরখেল জানান, “এই চেম্বারটি পুরোপুরি বৈজ্ঞানিক পদ্ধতি অনুসরণ করে তৈরি হয়েছে। খরচের পরিমাণ প্রায় ৫০ হাজার টাকা। এটিকে দেখভালে জন্য এক জন ডোম নিযুক্ত করা হবে। তাঁর কাছেই থাকবে চেম্বারের চাবি। আগামী দিনে এখানে সিসিটিভি ক্যামেরা লাগানোরও পরিকল্পনা রয়েছে”। কেমন সেই চেম্বার?

Bhagar-2

শ্মশান লাগোয়া জমিতেই চলছে ১০ ফুট গভীর, ৭ ফুট লম্বা এবং ৬ ফুট চওড়া ওই চেম্বারের কাজ। দেখে বোঝা যায় কাজ প্রায় শেষের পর্যায়ে। ক’দিনের মধ্যেই কাজ শেষ হয়ে যাবে। চেম্বারটির বিশেষত্ব, এর নীচের তলে কোনো ঢালাই বা ইটের আস্তরণ থাকছে না। কারণ, মৃত পশুর দেহ যাতে সহজেই মাটির সঙ্গে মিশে যেতে পারে সে দিকে লক্ষ্য রেখেই এই পদ্ধতি অবলম্বন করা হয়েছে।

এক পুর আধিকারিক জানান, ভাগাড় থেকে মৃত পশুর দেহ নিয়ে ব্যবসা চলছে। এক দিকে যেমন সে দিক থেকে আশ্বস্ত থাকা যাবে তেমনই প্রাকৃতিক উপায়ে মৃতদেহগুলি মাটিতে মিশে গেলে দূষণেরও ভয় থাকবে না।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here